ঢাকা ০৫:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে আর্সেনিকমুক্ত নলকূপের লোভ দেখিয়ে প্রতারক চক্রের অর্থ দাবি 

মোঃ মাসুদ রানা : শাহরাস্তি উপজেলার বিভিন্ন ইউপিতে আর্সেনিকমুক্ত নলকূপের লোভ দেখিয়ে গ্রাহকদের নিকট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীর নাম ভাঙ্গিয়ে এক প্রতারক চক্র মুঠোফোনে নগদ অর্থ দাবি করে আসছে। ওই চক্র কয়েকজন  ইউপি চেয়ারম্যানকে মুঠোফোনে একই কথা বলেছে বলে চাউর রয়েছে ।
বিষয়টি উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাহবুব আলমের দৃষ্টিগোচর হলে তিনি অজ্ঞাত ওই ব্যক্তির মুঠোফোন নাম্বারটি-০১৩২০-৬১১১৫৪ নামে শাহরাস্তি থানায় একটি সাধারণ ডাইরী করেন। যার শাহরাস্তি থানায় জিডি নং ৯৭৯ তাং২২/০৮/২২।
এ প্রসঙ্গে উপ- সহকারী প্রকৌশলী মোঃ মাহবুবুল আলম গণমাধ্যমকে জানান, ওই অজ্ঞাত নাম্বারটি থেকে চক্রটির কে বা কার আমার নাম ভাঙ্গিয়ে কয়েক জন ইউপি চেয়ারম্যান ও আর্সেনিকমুক্ত কল প্রাপ্ত গ্রাহকদের নিকট মুঠোফোনে অর্থ দাবি ও নানামুখি কুট কথার বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তিনি এও বলেন ভবিষ্যতে বিষয়টি বড় ধরনের ক্ষতির কারণ হয়ে উঠতে পারে তাই আমি আগাম সর্তকতা স্বরূপ আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।
সংশ্লিষ্টরা নাম্বারটি ট্রেকিং করে দুষ্ট চক্র সনাক্ত করে ব্যবস্থা নিলে বিষয়টি সূরাহ হবে। অবশ্য এই বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়দের মুখে মুখে নানান কথা রটিয়ে বেড়াচ্ছে।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

ক্যাব চাঁদপুরের আয়োজনে বাজার পরিস্থিতি ও নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক মত বিনিময় সভা

শাহরাস্তিতে আর্সেনিকমুক্ত নলকূপের লোভ দেখিয়ে প্রতারক চক্রের অর্থ দাবি 

আপডেট সময় : ০৪:১০:৪৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ অগাস্ট ২০২২
মোঃ মাসুদ রানা : শাহরাস্তি উপজেলার বিভিন্ন ইউপিতে আর্সেনিকমুক্ত নলকূপের লোভ দেখিয়ে গ্রাহকদের নিকট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীর নাম ভাঙ্গিয়ে এক প্রতারক চক্র মুঠোফোনে নগদ অর্থ দাবি করে আসছে। ওই চক্র কয়েকজন  ইউপি চেয়ারম্যানকে মুঠোফোনে একই কথা বলেছে বলে চাউর রয়েছে ।
বিষয়টি উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাহবুব আলমের দৃষ্টিগোচর হলে তিনি অজ্ঞাত ওই ব্যক্তির মুঠোফোন নাম্বারটি-০১৩২০-৬১১১৫৪ নামে শাহরাস্তি থানায় একটি সাধারণ ডাইরী করেন। যার শাহরাস্তি থানায় জিডি নং ৯৭৯ তাং২২/০৮/২২।
এ প্রসঙ্গে উপ- সহকারী প্রকৌশলী মোঃ মাহবুবুল আলম গণমাধ্যমকে জানান, ওই অজ্ঞাত নাম্বারটি থেকে চক্রটির কে বা কার আমার নাম ভাঙ্গিয়ে কয়েক জন ইউপি চেয়ারম্যান ও আর্সেনিকমুক্ত কল প্রাপ্ত গ্রাহকদের নিকট মুঠোফোনে অর্থ দাবি ও নানামুখি কুট কথার বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তিনি এও বলেন ভবিষ্যতে বিষয়টি বড় ধরনের ক্ষতির কারণ হয়ে উঠতে পারে তাই আমি আগাম সর্তকতা স্বরূপ আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।
সংশ্লিষ্টরা নাম্বারটি ট্রেকিং করে দুষ্ট চক্র সনাক্ত করে ব্যবস্থা নিলে বিষয়টি সূরাহ হবে। অবশ্য এই বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়দের মুখে মুখে নানান কথা রটিয়ে বেড়াচ্ছে।