ঢাকা ০১:১৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ৬ আশ্বিন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মিষ্টি খাওয়া নিয়ে সার্জেন্টকে মারধর; সাবেক কাউন্সিলর আটক, মুক্তির দাবীতে বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার : মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর আল-আমিন সরকারকে পুলিশ আটক করেছে। তার মুক্তির দাবীতে সোমবার (২০ মার্চ) রাতে থানার সামনে বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী। জানা যায়, সার্জেন্ট (অব.) আমান উল্লাহ সরকার ও আল-আমিন সরকার দু’জনই ছেংগারচর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভার ছোট ঝিনাইয়া শাহ সোলেমান শাহের লেংটার খলায় ওরশ ও মেলায় ১৬ মার্চ রাতে তালতলী এলাকার কিছু লোকজনকে চা-পান ও মিষ্টি খাওয়া নিয়ে বিরোধে দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও মারধরের ঘটনা ঘটে।

এতে বড় মরাদোন গ্রামের সার্জেন্ট (অব.) আমান উল্লাহ সরকারকে মারধর করা হয়। এতে তিনি মারাত্মক জখম হয়।

স্থানীয়দের সহায়তায় তিনি মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসা নেন। এ ঘটনা তিনি বাদী হয়ে মোঃ আল আমিন সরকারকে প্রধান আসামী করে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে আরো অজ্ঞাতনামা ৪/৫জনকে আসামী করে মতলব উত্তর থানায় একটি মামলা করা হয়।

এলাকাবাসীর বিক্ষোভ।

ওই মামলায় তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইয়াকুব আলী তদন্ত পূর্বক আসামী মোঃ আল আমিন সরকারকে সোমবার বিকেলে তালতলী এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে।

এ ঘটনা তালতলী এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে তার মুক্তির দাবীতে মতলব উত্তর থানার সামনে বিক্ষোভ করে এলাকার শত শত নারী-পুরুষ।

আরো পড়ুন  মতলবে কলাগাছ কাটা নিয়ে সংঘর্ষ; এসএসসি পরীক্ষার্থী’সহ আহত ৪
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

৪০ বছর বাইসাইকেলে চড়া শিক্ষক বিদায় নিলেন ফুলের গাড়িতে

error: Content is protected !!

মিষ্টি খাওয়া নিয়ে সার্জেন্টকে মারধর; সাবেক কাউন্সিলর আটক, মুক্তির দাবীতে বিক্ষোভ

আপডেট সময় : ০৫:১০:৪৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মার্চ ২০২৩

স্টাফ রিপোর্টার : মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর আল-আমিন সরকারকে পুলিশ আটক করেছে। তার মুক্তির দাবীতে সোমবার (২০ মার্চ) রাতে থানার সামনে বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী। জানা যায়, সার্জেন্ট (অব.) আমান উল্লাহ সরকার ও আল-আমিন সরকার দু’জনই ছেংগারচর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভার ছোট ঝিনাইয়া শাহ সোলেমান শাহের লেংটার খলায় ওরশ ও মেলায় ১৬ মার্চ রাতে তালতলী এলাকার কিছু লোকজনকে চা-পান ও মিষ্টি খাওয়া নিয়ে বিরোধে দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও মারধরের ঘটনা ঘটে।

এতে বড় মরাদোন গ্রামের সার্জেন্ট (অব.) আমান উল্লাহ সরকারকে মারধর করা হয়। এতে তিনি মারাত্মক জখম হয়।

স্থানীয়দের সহায়তায় তিনি মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসা নেন। এ ঘটনা তিনি বাদী হয়ে মোঃ আল আমিন সরকারকে প্রধান আসামী করে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে আরো অজ্ঞাতনামা ৪/৫জনকে আসামী করে মতলব উত্তর থানায় একটি মামলা করা হয়।

এলাকাবাসীর বিক্ষোভ।

ওই মামলায় তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইয়াকুব আলী তদন্ত পূর্বক আসামী মোঃ আল আমিন সরকারকে সোমবার বিকেলে তালতলী এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে।

এ ঘটনা তালতলী এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে তার মুক্তির দাবীতে মতলব উত্তর থানার সামনে বিক্ষোভ করে এলাকার শত শত নারী-পুরুষ।

আরো পড়ুন  এসএসসি পরীক্ষা দিলেও কাঙ্খিত ফলাফল জানা হলো না মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ২ বন্ধুর