ঢাকা ০৬:৪৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাজারের সাড়ে ৬ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে কারাগারে ইউপি চেয়ারম্যান

হবিগঞ্জের মাধবপুরে মাজারের ৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা আত্মসাত এবং হামলার ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন চৌধুরীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। বুধবার (২৬ এপ্রিল) তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

Model Hospital

এ সময় তার ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। এর আগে মঙ্গলবার রাতে পুলিশ তাকে ঢাকার বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা অনিক চন্দ্র দেব জানান, তিনি একটি মাজারের সাড়ে ৬ কোটি টাকার কোনো হিসাব না দিয়ে আত্মসাত করেছেন। মাজারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট যারা হিসাব চেয়েছিলেন তাদের ওপর হামলাও করেন তিনি। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়। এর প্রেক্ষিতে তাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তার ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন জানানো হয়েছে।

মামলার সংক্ষিপ্ত সূত্রে জানা যায়, ওই উপজেলার সুরমা এলাকার এনায়েতপুর মরহুম চান্দ মিয়া চৌধুরী (রহঃ) এর ওয়াকফকৃত ভূমি ও এতে স্থাপিত মাজারের রক্ষণাবেক্ষণ করেন একই গ্রামের মো. ফারুক চৌধুরী। কিন্তু ২০১০ সাল থেকে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত একই এলাকার বাসিন্দা শাহজাহানপুর ইউপি চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন চৌধুরীসহ কয়েকজন মাজারের ওয়াকফের দলিলের শর্ত ভঙ্গ করে জোরপূর্বক ভোগ দখল করেছেন। মাজারের আয় বাবদ প্রতিবছর প্রায় ৫০ লাখ টাকা হিসাবে মোট ৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা কোনো হিসাব না দিয়ে তিনি আত্মসাত করেন।

মাজারের মুরিদানগণসহ মাজারের রক্ষণাবেক্ষণকারী মো. ফারুক চৌধুরী ওই টাকার হিসাব চেয়ে স্থানীয় মুরুব্বীগণের দারস্থ হন। কিন্তু তাতে কোনো ফল মেলেনি। পরবর্তীতে তিনি এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি অভিযোগ দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন চৌধুরী লোকজন নিয়ে সম্প্রতি মো. ফারুক চৌধুরীর ওপর হামলা চালান। এ সময় তিনি চিৎকার করলে ওই গ্রামের বাসিন্দা সাইমুন হোসেন চৌধুরীসহ বেশ কয়েকজন বেরিয়ে আসেন। তখন তাদের ওপরও হামলা চালানো হয়।

উক্ত ঘটনায় মো. ফারুক চৌধুরী বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। উক্ত মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন চৌধুরীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান সুমন

মাজারের সাড়ে ৬ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে কারাগারে ইউপি চেয়ারম্যান

আপডেট সময় : ০২:৩৬:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৩

হবিগঞ্জের মাধবপুরে মাজারের ৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা আত্মসাত এবং হামলার ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন চৌধুরীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। বুধবার (২৬ এপ্রিল) তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

Model Hospital

এ সময় তার ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। এর আগে মঙ্গলবার রাতে পুলিশ তাকে ঢাকার বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা অনিক চন্দ্র দেব জানান, তিনি একটি মাজারের সাড়ে ৬ কোটি টাকার কোনো হিসাব না দিয়ে আত্মসাত করেছেন। মাজারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট যারা হিসাব চেয়েছিলেন তাদের ওপর হামলাও করেন তিনি। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়। এর প্রেক্ষিতে তাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তার ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন জানানো হয়েছে।

মামলার সংক্ষিপ্ত সূত্রে জানা যায়, ওই উপজেলার সুরমা এলাকার এনায়েতপুর মরহুম চান্দ মিয়া চৌধুরী (রহঃ) এর ওয়াকফকৃত ভূমি ও এতে স্থাপিত মাজারের রক্ষণাবেক্ষণ করেন একই গ্রামের মো. ফারুক চৌধুরী। কিন্তু ২০১০ সাল থেকে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত একই এলাকার বাসিন্দা শাহজাহানপুর ইউপি চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন চৌধুরীসহ কয়েকজন মাজারের ওয়াকফের দলিলের শর্ত ভঙ্গ করে জোরপূর্বক ভোগ দখল করেছেন। মাজারের আয় বাবদ প্রতিবছর প্রায় ৫০ লাখ টাকা হিসাবে মোট ৬ কোটি ৫০ লাখ টাকা কোনো হিসাব না দিয়ে তিনি আত্মসাত করেন।

মাজারের মুরিদানগণসহ মাজারের রক্ষণাবেক্ষণকারী মো. ফারুক চৌধুরী ওই টাকার হিসাব চেয়ে স্থানীয় মুরুব্বীগণের দারস্থ হন। কিন্তু তাতে কোনো ফল মেলেনি। পরবর্তীতে তিনি এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি অভিযোগ দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন চৌধুরী লোকজন নিয়ে সম্প্রতি মো. ফারুক চৌধুরীর ওপর হামলা চালান। এ সময় তিনি চিৎকার করলে ওই গ্রামের বাসিন্দা সাইমুন হোসেন চৌধুরীসহ বেশ কয়েকজন বেরিয়ে আসেন। তখন তাদের ওপরও হামলা চালানো হয়।

উক্ত ঘটনায় মো. ফারুক চৌধুরী বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। উক্ত মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন চৌধুরীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।