ঢাকা ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাজীগঞ্জে এসএসসি পরিক্ষা দিতে হলে গিয়ে জানলো বাবা আর নেই!

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ পৌরসভার ১০ নম্বর ওয়ার্ড রান্ধুনীমূড়া (মনিনাগ) হেলু মেম্বার বাড়ির মিতু আক্তার। সোমবার সকালে সহপাঠীদের সাথে একসাথে পরিক্ষা কেন্দ্রে যায়।

Model Hospital

হলরুম পেয়েছে, সিট নম্বার খুঁজে নিজ আসনে বসে। পরিক্ষা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পরই হঠাৎ খবর আসে মিতু আক্তারের বাবা মো. টিটু (৪০) আর বেঁচে নেই। মুহুর্তের মধ্যেই আবেগঘন পুরো হলরুম।

বাবার মৃত্যুর খবরে কান্নায় ভেঙে পড়ে এসএসসি পরিক্ষার্থী মিতু আক্তার। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহপাঠীদের সহযোগিতায় সদ্য শুরু হওয়া এসএসসির বাংলা ১ম পত্র পরিক্ষা শেষ করে।

মিতু আক্তার হাজীগঞ্জ পৌরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ড রান্ধুনীমূড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এবারে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে হাজীগঞ্জ আমিন মেমোরিয়াল হাইস্কুল কেন্দ্রে।

স্থানীয় বাসিন্দা মো. সোহেল পপুলার বিডিনিউজকে জানান, দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থতায় ভুগছিলেন। সকালে নিজ বাড়িতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে স্ত্রী, তিন মেয়ে ও এক ছেলে’সহ অনেক গুণগ্রাহী রেখে যান তিনি। তার বড় মেয়ে রান্ধুনীমূড়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে।

রান্ধুনীমূড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম মজুমদার জানান, পরিক্ষা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পরই হঠাৎ খবর আসে মিতুর বাবা আর পৃথিবীতে নেই। বিষয়টি মিতু জানার পর কান্নায় ভেঙে পড়ে। পরে আমি ও তার সহপাঠীরা বুঝিয়ে পরিক্ষা সম্পন্ন করতে সাহায্য করি।

পরিক্ষার্থী মিতু আক্তারের বাবার মৃত্যুতে দুঃখ প্রকাশ করেছেন হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাশেদুল ইসলাম ও পৌরসভার মেয়র আ স ম মাহবুব উল আলম লিপন।

ট্যাগস :

মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিতদের গেজেট প্রকাশ

হাজীগঞ্জে এসএসসি পরিক্ষা দিতে হলে গিয়ে জানলো বাবা আর নেই!

আপডেট সময় : ১১:৩৩:৩০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩০ এপ্রিল ২০২৩

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ পৌরসভার ১০ নম্বর ওয়ার্ড রান্ধুনীমূড়া (মনিনাগ) হেলু মেম্বার বাড়ির মিতু আক্তার। সোমবার সকালে সহপাঠীদের সাথে একসাথে পরিক্ষা কেন্দ্রে যায়।

Model Hospital

হলরুম পেয়েছে, সিট নম্বার খুঁজে নিজ আসনে বসে। পরিক্ষা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পরই হঠাৎ খবর আসে মিতু আক্তারের বাবা মো. টিটু (৪০) আর বেঁচে নেই। মুহুর্তের মধ্যেই আবেগঘন পুরো হলরুম।

বাবার মৃত্যুর খবরে কান্নায় ভেঙে পড়ে এসএসসি পরিক্ষার্থী মিতু আক্তার। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহপাঠীদের সহযোগিতায় সদ্য শুরু হওয়া এসএসসির বাংলা ১ম পত্র পরিক্ষা শেষ করে।

মিতু আক্তার হাজীগঞ্জ পৌরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ড রান্ধুনীমূড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এবারে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে হাজীগঞ্জ আমিন মেমোরিয়াল হাইস্কুল কেন্দ্রে।

স্থানীয় বাসিন্দা মো. সোহেল পপুলার বিডিনিউজকে জানান, দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থতায় ভুগছিলেন। সকালে নিজ বাড়িতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে স্ত্রী, তিন মেয়ে ও এক ছেলে’সহ অনেক গুণগ্রাহী রেখে যান তিনি। তার বড় মেয়ে রান্ধুনীমূড়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে।

রান্ধুনীমূড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম মজুমদার জানান, পরিক্ষা শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পরই হঠাৎ খবর আসে মিতুর বাবা আর পৃথিবীতে নেই। বিষয়টি মিতু জানার পর কান্নায় ভেঙে পড়ে। পরে আমি ও তার সহপাঠীরা বুঝিয়ে পরিক্ষা সম্পন্ন করতে সাহায্য করি।

পরিক্ষার্থী মিতু আক্তারের বাবার মৃত্যুতে দুঃখ প্রকাশ করেছেন হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাশেদুল ইসলাম ও পৌরসভার মেয়র আ স ম মাহবুব উল আলম লিপন।