ঢাকা ০৮:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জে ফেসবুকে স্ট্যাটাস করা নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত-৪

  • এস. এম ইকবাল
  • আপডেট সময় : ১০:৩৪:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ মে ২০২৩
  • 410
ফরিদগঞ্জে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস করাকে কেন্দ্র করে উপজেলার পাইকপাড়া ইউ.জি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮ম ও ৯ম শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে।
১১ মে বৃহস্পতিবার পাইকপাড়া ইউ. জি উচ্চ বিদ্যালয় ফেইসবুকে লাইক কমেন্ট নিয়ে তর্ক বিতর্ককের এক পর্যায়ে ধারালো অস্ত্র নিয়ে রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে শিক্ষার্থীরা। এতে বিদ্যালয়ের ৮ম ও ৯ম শিক্ষার্থীদের কমপক্ষে ৪ জন আহত হয়। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
অভিভাবক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ৮ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী সাহেদ ও ৯ম শ্রেণীর তাওহিদ তাদের ফেইস বুকে লাইক কমেন্ট নিয়ে গত দুইদিন ধরে ম্যাচেঞ্জারে নানা অশ্লিল বাক্য বিনিময় হয়। ওইদিন সকালে তারা উভয় বিদ্যালয়ে ক্লাশ করতে এসে ৮ম শ্রেণীর সাহেদের উপর ৯ম শ্রেণীর ইমান, রোখসান, নিরব, শহিদুল, আবরার, তাওহিদ, হিমেল ও সৈকত ৮ম শ্রেণীর ক্লাশে ঢুকে সাহেদসহ তার সহপাঠিদের উপর হামলা চালায়। এতে ৮ম শ্রেণীর সাহেদ, ফাহাদ, আদিল ও ৯ম শ্রেণীর আল-আমিন গুরুতর আহত হয়।
এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক ছলিম উল্যাহ জানান, ফেইসবুকের ঘটনা নিয়ে উল্লেখিত শিক্ষার্থীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে, আমরা তাৎক্ষণিক সেখানে উপস্থিত হয়ে তাদের শান্ত করি। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে প্রধান শিক্ষকের নির্দেশে দুই শ্রেনীর ১৩ জন কে সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে।
কয়েকজন অভিভাবক বলেন, দূর্বল প্রশাসনিক ব্যবস্থার কারণে প্রায় দিনেই বিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা বহিরাগতদের সাথে নিয়ে শিক্ষার্থদের উপর হামলা করে। ইতি পূর্বে কয়েকবার এই ধরনের ঘটনা ঘটেছে। প্রতিষ্ঠানের পক্ষথেকে কোন ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়না। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গত তিন বছর ধরে কোন কমিটি না থাকায় বিদ্যালয়ে শৃঙ্খলা নেই।
এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মোতালেব জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্তদের তালিকা তৈরি করা হয়েছে এবং তাদের বিদ্যালয়ে হাজির হওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আলী জিন্না বলেন, বিষয়টি আমি শুনে সাথে সাথে প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা বলেছি। উভয় পক্ষের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দিয়েছি।
ট্যাগস :

ফরিদগঞ্জে ফেসবুকে স্ট্যাটাস করা নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত-৪

আপডেট সময় : ১০:৩৪:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ মে ২০২৩
ফরিদগঞ্জে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস করাকে কেন্দ্র করে উপজেলার পাইকপাড়া ইউ.জি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮ম ও ৯ম শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে।
১১ মে বৃহস্পতিবার পাইকপাড়া ইউ. জি উচ্চ বিদ্যালয় ফেইসবুকে লাইক কমেন্ট নিয়ে তর্ক বিতর্ককের এক পর্যায়ে ধারালো অস্ত্র নিয়ে রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে শিক্ষার্থীরা। এতে বিদ্যালয়ের ৮ম ও ৯ম শিক্ষার্থীদের কমপক্ষে ৪ জন আহত হয়। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
অভিভাবক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ৮ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী সাহেদ ও ৯ম শ্রেণীর তাওহিদ তাদের ফেইস বুকে লাইক কমেন্ট নিয়ে গত দুইদিন ধরে ম্যাচেঞ্জারে নানা অশ্লিল বাক্য বিনিময় হয়। ওইদিন সকালে তারা উভয় বিদ্যালয়ে ক্লাশ করতে এসে ৮ম শ্রেণীর সাহেদের উপর ৯ম শ্রেণীর ইমান, রোখসান, নিরব, শহিদুল, আবরার, তাওহিদ, হিমেল ও সৈকত ৮ম শ্রেণীর ক্লাশে ঢুকে সাহেদসহ তার সহপাঠিদের উপর হামলা চালায়। এতে ৮ম শ্রেণীর সাহেদ, ফাহাদ, আদিল ও ৯ম শ্রেণীর আল-আমিন গুরুতর আহত হয়।
এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক ছলিম উল্যাহ জানান, ফেইসবুকের ঘটনা নিয়ে উল্লেখিত শিক্ষার্থীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে, আমরা তাৎক্ষণিক সেখানে উপস্থিত হয়ে তাদের শান্ত করি। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে প্রধান শিক্ষকের নির্দেশে দুই শ্রেনীর ১৩ জন কে সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে।
কয়েকজন অভিভাবক বলেন, দূর্বল প্রশাসনিক ব্যবস্থার কারণে প্রায় দিনেই বিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা বহিরাগতদের সাথে নিয়ে শিক্ষার্থদের উপর হামলা করে। ইতি পূর্বে কয়েকবার এই ধরনের ঘটনা ঘটেছে। প্রতিষ্ঠানের পক্ষথেকে কোন ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়না। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গত তিন বছর ধরে কোন কমিটি না থাকায় বিদ্যালয়ে শৃঙ্খলা নেই।
এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মোতালেব জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্তদের তালিকা তৈরি করা হয়েছে এবং তাদের বিদ্যালয়ে হাজির হওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আলী জিন্না বলেন, বিষয়টি আমি শুনে সাথে সাথে প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা বলেছি। উভয় পক্ষের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দিয়েছি।