ঢাকা ০৯:৪৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
চাঁদপুর পৌরসভার নগর সমন্বয় কমিটির (টিএলসিসি) সভায় পৌর মেয়র

আমরা বাস্তব ধর্মী একটা বাজেট করতে চাই : জিল্লুর রহমান জুয়েল

চাঁদপুর পৌরসভার নগর সমন্বয় কমিটির (টিএলসিসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ২৯ মে সোমবার সকাল ১১ টায় চাঁদপুর পৌরপাঠাগার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত টিএলসিসির সভায় সভাপতিত্ব করেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল।

Model Hospital

সভাপতির বক্তব্যে মেয়র অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, জনগণের সহযোগিতা ব্যতিত আমরা পৌর এলাকায় কোনো কাজ করতে পারবো না। কাজেই আমরা পৌরসভার সকল কাজে পৌরবাসীর সহযোগিতা চাই। আমরা বাস্তব ধর্মী একটা বাজেট করতে চাই। জুন মাসের মধ্যে সে বাজেট পেশ করা হবে। আমরা বিগত যেকোন সময়ের চেয়ে রেকর্ড সংখ্যক কাজ করেছি। যদি অর্থের দিক দিয়ে বিবেচনা করা হয় তাহলে কিন্তু কম নয়।

আসল কথা হচ্ছে আমাদের প্রচারনা কম। আমাদের মধ্যে সন্তষ্টি কম। এখন আমরা দৃশ্যমান কাজের দিকে নজর দিচ্ছি। মূল কাজগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো শহরের সড়ক গুলো প্রসস্ত করন। ইতিমধ্যে কিছু কাজ করেছি। এছাড়াও আমরা বিকল্প রাস্তার কথা চিন্তা করছি।

তিনি আরো বলেন, আমরা পৌরসভার নিজস্ব কিছু কাজ করেছি। পৌর কর্মচারীদের বেতন বকেয়া ছিল বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ছিল। আমরা পৌর কর্মচারীদের বকেয়া বেতন পরিশোধ করেছি। পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পগুলো পাওয়ার জন্যই আমাদের এই কাজ গুলো করতে হয়েছে।

অন্যান্য বক্তারা বলেন, বর্তমান মেয়রের আড়াই বছরের দায়িত্বে অনেক উন্নয়ন কাজ করছেন। তবে কিছু সড়কে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। তা মেরামত করলে জনদূর্ভোগ কমে আসবে। বাজেট কি ধরনের হবে এ সভায় তাই সিদ্ধান্ত হবে। ২১ জন প্রতিনিধি আছেন যাদের অক্টোবর মাসে ৩ বছর পূর্ন হবে। জবাবদিহিতা আপনাদের করতে হবে। আগামী বাজেটের আগে আপনারা নিজস্ব বাজেটে প্রায় ২৫ কোটি টাকার কাজ করা হয়েছে। তা ফোকাস হয়নি। তা ফোকাস হলে জনগন জানতে পারবে এ পরিষদ তিন বছরে কি উন্নয়ন হয়েছে তা জানবে। ২০২৩-২৪ অর্থবছরে কি ধরনের বাজেট হচ্ছে তা যদি স্যোসাল মিডিয়ায় প্রকাশ করলে সাধারন মানুষ জানতে পারবে।

চাঁদপুর পৌরসভার পানির সংকট আছো কিছু কিছু এলাকয়। শপথ চত্বর এলাকার সড়ক প্রসস্ত করা হয়েছে। তবে তার চারপাশে রাস্তা পাকা করন করা প্রয়োজন। রেলওয়ের সাথে বসে আলোচনা করে লেকের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করা যেতে পারে। শহরের রাস্তাগুলোতে ভ্যান দিয়ে নানা পণ্য বিক্রি করার কারনে যানজট লেগেই রয়েছে। এ ব্যাপার পৌরসভা থেকে ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন। শহরের চিত্রলেখা মোড় থেকে সেই সড়ক প্রসস্ত করণ করা হয়েছে, বঙ্গবন্ধু সড়কে রেলওয়ে লিজকৃত দোকান উচ্ছেদ করে সড়ক প্রসস্ত করা হয়েছে। এ ধরনের জনকল্যাণ মুলক কাজের স্বীকৃতি দিতে হবে।

প্রশাসনিক কর্মকর্তা মফিজুল ইসলাম হাওলাদারের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন পৌর নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম ভূইয়া, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি এএইচএম আহসানুল্যাহ, সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, চাঁদপুর ইউএনডিপি ম্যানেজার আব্দুল হান্নান, প্যনেল মেয়র ফরিদা ইলিয়াস, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি রাধা গোবিন্দ গোপ, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপিকা মাসুদা নুর খান, ক্লাস্টার বিলকিস বেগম ও শিল্পী ঘোষ প্রমুখ।

সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলোয়াত করেন পৌরসভা জামে মসজিদের ইমাম মোঃ জাকির হোসেন ও গীতা থেকে পাঠ করেন চন্দনাথ ঘোষ চন্দন।

ট্যাগস :

মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিতদের গেজেট প্রকাশ

চাঁদপুর পৌরসভার নগর সমন্বয় কমিটির (টিএলসিসি) সভায় পৌর মেয়র

আমরা বাস্তব ধর্মী একটা বাজেট করতে চাই : জিল্লুর রহমান জুয়েল

আপডেট সময় : ১০:০৩:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মে ২০২৩

চাঁদপুর পৌরসভার নগর সমন্বয় কমিটির (টিএলসিসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ২৯ মে সোমবার সকাল ১১ টায় চাঁদপুর পৌরপাঠাগার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত টিএলসিসির সভায় সভাপতিত্ব করেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল।

Model Hospital

সভাপতির বক্তব্যে মেয়র অ্যাডঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল বলেন, জনগণের সহযোগিতা ব্যতিত আমরা পৌর এলাকায় কোনো কাজ করতে পারবো না। কাজেই আমরা পৌরসভার সকল কাজে পৌরবাসীর সহযোগিতা চাই। আমরা বাস্তব ধর্মী একটা বাজেট করতে চাই। জুন মাসের মধ্যে সে বাজেট পেশ করা হবে। আমরা বিগত যেকোন সময়ের চেয়ে রেকর্ড সংখ্যক কাজ করেছি। যদি অর্থের দিক দিয়ে বিবেচনা করা হয় তাহলে কিন্তু কম নয়।

আসল কথা হচ্ছে আমাদের প্রচারনা কম। আমাদের মধ্যে সন্তষ্টি কম। এখন আমরা দৃশ্যমান কাজের দিকে নজর দিচ্ছি। মূল কাজগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো শহরের সড়ক গুলো প্রসস্ত করন। ইতিমধ্যে কিছু কাজ করেছি। এছাড়াও আমরা বিকল্প রাস্তার কথা চিন্তা করছি।

তিনি আরো বলেন, আমরা পৌরসভার নিজস্ব কিছু কাজ করেছি। পৌর কর্মচারীদের বেতন বকেয়া ছিল বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ছিল। আমরা পৌর কর্মচারীদের বকেয়া বেতন পরিশোধ করেছি। পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পগুলো পাওয়ার জন্যই আমাদের এই কাজ গুলো করতে হয়েছে।

অন্যান্য বক্তারা বলেন, বর্তমান মেয়রের আড়াই বছরের দায়িত্বে অনেক উন্নয়ন কাজ করছেন। তবে কিছু সড়কে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। তা মেরামত করলে জনদূর্ভোগ কমে আসবে। বাজেট কি ধরনের হবে এ সভায় তাই সিদ্ধান্ত হবে। ২১ জন প্রতিনিধি আছেন যাদের অক্টোবর মাসে ৩ বছর পূর্ন হবে। জবাবদিহিতা আপনাদের করতে হবে। আগামী বাজেটের আগে আপনারা নিজস্ব বাজেটে প্রায় ২৫ কোটি টাকার কাজ করা হয়েছে। তা ফোকাস হয়নি। তা ফোকাস হলে জনগন জানতে পারবে এ পরিষদ তিন বছরে কি উন্নয়ন হয়েছে তা জানবে। ২০২৩-২৪ অর্থবছরে কি ধরনের বাজেট হচ্ছে তা যদি স্যোসাল মিডিয়ায় প্রকাশ করলে সাধারন মানুষ জানতে পারবে।

চাঁদপুর পৌরসভার পানির সংকট আছো কিছু কিছু এলাকয়। শপথ চত্বর এলাকার সড়ক প্রসস্ত করা হয়েছে। তবে তার চারপাশে রাস্তা পাকা করন করা প্রয়োজন। রেলওয়ের সাথে বসে আলোচনা করে লেকের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করা যেতে পারে। শহরের রাস্তাগুলোতে ভ্যান দিয়ে নানা পণ্য বিক্রি করার কারনে যানজট লেগেই রয়েছে। এ ব্যাপার পৌরসভা থেকে ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন। শহরের চিত্রলেখা মোড় থেকে সেই সড়ক প্রসস্ত করণ করা হয়েছে, বঙ্গবন্ধু সড়কে রেলওয়ে লিজকৃত দোকান উচ্ছেদ করে সড়ক প্রসস্ত করা হয়েছে। এ ধরনের জনকল্যাণ মুলক কাজের স্বীকৃতি দিতে হবে।

প্রশাসনিক কর্মকর্তা মফিজুল ইসলাম হাওলাদারের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন পৌর নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম ভূইয়া, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি এএইচএম আহসানুল্যাহ, সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, চাঁদপুর ইউএনডিপি ম্যানেজার আব্দুল হান্নান, প্যনেল মেয়র ফরিদা ইলিয়াস, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি রাধা গোবিন্দ গোপ, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপিকা মাসুদা নুর খান, ক্লাস্টার বিলকিস বেগম ও শিল্পী ঘোষ প্রমুখ।

সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলোয়াত করেন পৌরসভা জামে মসজিদের ইমাম মোঃ জাকির হোসেন ও গীতা থেকে পাঠ করেন চন্দনাথ ঘোষ চন্দন।