ঢাকা ০২:০৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জে ইউপি নির্বাচন নিয়ে আওয়ামীলীগে উৎসব, বিএনপিতে উৎকণ্ঠা

এস এম ইকবাল : আসন্ন ইউপি নির্বাচন নিয়ে আলোচনা চলছে সর্বত্র। ইতোমধ্যে বিভিন্ন উৎসবে ব্যানার পেস্টুনে চেয়ে গেছে ইউনিয়নে ইউনিয়নে। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে অফিস পাড়ায় এ নিয়ে চলছে আলোচনা। কে পাচ্ছেন আওয়ামী আওয়ামীলীগের মনোনয়ন? বিএনপিন কী নির্বাচন করবে?

Model Hospital

যতই দিন ঘনিয়ে আসছে আওয়ামী শিবিরে উৎসব বিরাজ করছে। এর বিপরীত চিত্র বিএনপিতে। বিএনপিতে চলছে উৎকণ্ঠা আর নিরবতা। অন্যদিকে আওয়ামী শিবিরের সম্ভাব্য প্রার্থীরা ব্যানার পেস্টুন ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক কাজে নিজেদের করছেন সম্পৃক্ত। যে কোনো ধর্মী উৎসবে, এমন কী বিবাহের অনুষ্ঠানেও অংশ গ্রহণ করছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। ইতোমধ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগ কর্তৃক তৃণমূলের বর্ধিত সভার মাধ্যমে প্রস্তাব-সমর্থনের মাধ্যমে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীদের প্রাথমিক বাছাই পর্ব শেষ করেছেন।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১নং বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নে তৃণমূলের নেতাদের প্রস্তাব সমর্থনের মাধ্যমে ৬ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন প্রার্থী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। এরা হলেন- ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি বাচ্চু মিয়া স্বর্ণকার, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন খান, বর্তমান চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান, আওয়ামীলীগ নেতা মনির হোসেন মজুমদার, আনিস বকাউল, হারুন অর রশিদ।

উপজেলা আওয়ামীলীগের তৃণমূল বর্ধিত সভায় বর্তমান সংসদ সদস্যের অনুসারী কোনো সম্ভাব্য প্রার্থী অংশ গ্রহণ করেননি। তাদের তালিকা আলাদাভাবে যাবে বলে সর্বত্র আলোচনা হচ্ছে। তাদের মধ্যে যার নাম শোনা যাচ্ছে তিনি হলেন উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সাধারণ সম্পাদক মো.বাহাউদ্দিন খান বাহার। তবে সময়ই বলে দিবে কে হচ্ছেন ১নং ইউনিয়ন পরিষদের নৌকার মাঝি।

এদিকে বিএনপি পরিবার নির্বাচন নিয়ে চুপচাপ। তারা কেন্দ্রীয় নির্দেশনার অপেক্ষায় আছেন। কেউ বলছেন বিএনপি এবার ইউপি নির্বাচন করবে না। আবার কেউ বলছেন কর্মীদের চাঙ্গা রাখতে নির্বাচন করা উচিত। সেই উচিতের জায়গা থেকে কয়েকজন প্রার্থীর মৃদু আওয়াজ শোনা যাচ্ছে। তাদের কয়েকজন হলেন- আতিকুর রহমান বাবলু, ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি (হান্নান গ্রুপ) জসীম উদ্দিন স্বপন মিয়াজি, একই গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক শামীম পাটওয়ারী। সাবেক এমপি লায়ন হারুনুর রশিদ গ্রুপের সভাপতি (ইউপি বিএনপি) নাজির হোসেন পাটোয়ারী।

নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসবে ততই প্রার্থীর সংখ্যা বাড়তে থাকবে। সেই সাথে তাদের অবস্থানও পরিষ্কার হবে। সবাই এখন নির্বাচন কমিশনের দিকে তাকিয়ে আছে। কখন আসবে ঘোষণা।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

শাহরাস্তিতে নিজের পায়ুপথে ৬ ইঞ্চি ডাব প্রবেশ করিয়ে বিপাকে যুবক

ফরিদগঞ্জে ইউপি নির্বাচন নিয়ে আওয়ামীলীগে উৎসব, বিএনপিতে উৎকণ্ঠা

আপডেট সময় : ০৩:৩৩:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ নভেম্বর ২০২১

এস এম ইকবাল : আসন্ন ইউপি নির্বাচন নিয়ে আলোচনা চলছে সর্বত্র। ইতোমধ্যে বিভিন্ন উৎসবে ব্যানার পেস্টুনে চেয়ে গেছে ইউনিয়নে ইউনিয়নে। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে অফিস পাড়ায় এ নিয়ে চলছে আলোচনা। কে পাচ্ছেন আওয়ামী আওয়ামীলীগের মনোনয়ন? বিএনপিন কী নির্বাচন করবে?

Model Hospital

যতই দিন ঘনিয়ে আসছে আওয়ামী শিবিরে উৎসব বিরাজ করছে। এর বিপরীত চিত্র বিএনপিতে। বিএনপিতে চলছে উৎকণ্ঠা আর নিরবতা। অন্যদিকে আওয়ামী শিবিরের সম্ভাব্য প্রার্থীরা ব্যানার পেস্টুন ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক কাজে নিজেদের করছেন সম্পৃক্ত। যে কোনো ধর্মী উৎসবে, এমন কী বিবাহের অনুষ্ঠানেও অংশ গ্রহণ করছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। ইতোমধ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগ কর্তৃক তৃণমূলের বর্ধিত সভার মাধ্যমে প্রস্তাব-সমর্থনের মাধ্যমে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীদের প্রাথমিক বাছাই পর্ব শেষ করেছেন।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১নং বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নে তৃণমূলের নেতাদের প্রস্তাব সমর্থনের মাধ্যমে ৬ জন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন প্রার্থী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। এরা হলেন- ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি বাচ্চু মিয়া স্বর্ণকার, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন খান, বর্তমান চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান, আওয়ামীলীগ নেতা মনির হোসেন মজুমদার, আনিস বকাউল, হারুন অর রশিদ।

উপজেলা আওয়ামীলীগের তৃণমূল বর্ধিত সভায় বর্তমান সংসদ সদস্যের অনুসারী কোনো সম্ভাব্য প্রার্থী অংশ গ্রহণ করেননি। তাদের তালিকা আলাদাভাবে যাবে বলে সর্বত্র আলোচনা হচ্ছে। তাদের মধ্যে যার নাম শোনা যাচ্ছে তিনি হলেন উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সাধারণ সম্পাদক মো.বাহাউদ্দিন খান বাহার। তবে সময়ই বলে দিবে কে হচ্ছেন ১নং ইউনিয়ন পরিষদের নৌকার মাঝি।

এদিকে বিএনপি পরিবার নির্বাচন নিয়ে চুপচাপ। তারা কেন্দ্রীয় নির্দেশনার অপেক্ষায় আছেন। কেউ বলছেন বিএনপি এবার ইউপি নির্বাচন করবে না। আবার কেউ বলছেন কর্মীদের চাঙ্গা রাখতে নির্বাচন করা উচিত। সেই উচিতের জায়গা থেকে কয়েকজন প্রার্থীর মৃদু আওয়াজ শোনা যাচ্ছে। তাদের কয়েকজন হলেন- আতিকুর রহমান বাবলু, ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি (হান্নান গ্রুপ) জসীম উদ্দিন স্বপন মিয়াজি, একই গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক শামীম পাটওয়ারী। সাবেক এমপি লায়ন হারুনুর রশিদ গ্রুপের সভাপতি (ইউপি বিএনপি) নাজির হোসেন পাটোয়ারী।

নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসবে ততই প্রার্থীর সংখ্যা বাড়তে থাকবে। সেই সাথে তাদের অবস্থানও পরিষ্কার হবে। সবাই এখন নির্বাচন কমিশনের দিকে তাকিয়ে আছে। কখন আসবে ঘোষণা।