ঢাকা ০৯:১৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জেল হত্যা দিবসে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া

জেল হত্যা দিবস উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

৩ নভেম্বর শুক্রবার বাদ মাগরিব জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডঃ হেলাল হোসেন।

তিনি বলেন, মানবতাবোধের চরম নির্মমতা ও নিষ্ঠুরতার সাক্ষী জেল হত্যা দিবস, বাঙালি জাতির ইতিহাসে আরেকটি কলঙ্কিত অধ্যায়ের নাম জেল হত্যাকাণ্ড। বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর কারাগারের অভ্যন্তরে বিনা বিচারে এই হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীনতাবিরোধী দেশি-বিদেশি চক্র বর্বরোচিতভাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে। এর কিছুদিন পরই ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ইতিহাসের আরেকটি বর্বর হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়।
বাংলাদেশকে নেতৃত্বশূন্য করতে হত্যা করা হয় বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক সহযোদ্ধা জাতীয় চার নেতাকে।স্বাধীনতাবিরোধী ঘাতকচক্র ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর বঙ্গবন্ধুর আজীবন রাজনৈতিক সহকর্মী, তার অবর্তমানে যারা মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে স্বাধীন করেন সেই জাতীয় চার নেতা।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ফেরদাউস মোর্শেদ জুয়েলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি অ্যাডঃ আতাউর রহমান পাটওয়ারী, ফারুক আহমেদ ভূঁইয়া, জাহিদুর রহমান জাহিদ, প্রচার সম্পাদক আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, সদস্য আবু সায়েম।

মিলাদ ও দোয়া পরিচালনা করেন রেলওয়ে বাইতুল আমিন জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাও: জাফর উল্লাহ।

আলোচনা সভা ও মিলাদে জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে অটো চালকের মৃত্যু

জেল হত্যা দিবসে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া

আপডেট সময় : ১০:০৩:০৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ নভেম্বর ২০২৩

জেল হত্যা দিবস উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

৩ নভেম্বর শুক্রবার বাদ মাগরিব জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডঃ হেলাল হোসেন।

তিনি বলেন, মানবতাবোধের চরম নির্মমতা ও নিষ্ঠুরতার সাক্ষী জেল হত্যা দিবস, বাঙালি জাতির ইতিহাসে আরেকটি কলঙ্কিত অধ্যায়ের নাম জেল হত্যাকাণ্ড। বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর কারাগারের অভ্যন্তরে বিনা বিচারে এই হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীনতাবিরোধী দেশি-বিদেশি চক্র বর্বরোচিতভাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে। এর কিছুদিন পরই ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ইতিহাসের আরেকটি বর্বর হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়।
বাংলাদেশকে নেতৃত্বশূন্য করতে হত্যা করা হয় বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক সহযোদ্ধা জাতীয় চার নেতাকে।স্বাধীনতাবিরোধী ঘাতকচক্র ১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর বঙ্গবন্ধুর আজীবন রাজনৈতিক সহকর্মী, তার অবর্তমানে যারা মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে স্বাধীন করেন সেই জাতীয় চার নেতা।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ফেরদাউস মোর্শেদ জুয়েলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি অ্যাডঃ আতাউর রহমান পাটওয়ারী, ফারুক আহমেদ ভূঁইয়া, জাহিদুর রহমান জাহিদ, প্রচার সম্পাদক আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, সদস্য আবু সায়েম।

মিলাদ ও দোয়া পরিচালনা করেন রেলওয়ে বাইতুল আমিন জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাও: জাফর উল্লাহ।

আলোচনা সভা ও মিলাদে জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।