ঢাকা ০১:০৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রীর রহস্যজনক আত্মহত্যা

  • এস এম ইকবাল
  • আপডেট সময় : ১০:৫৪:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 189
চাঁদপুরে ফরিদগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রী সানজিদা আক্তার তিশা (১২) আত্মহত্যা করেছে। সংবাদ পেয়ে থানার তদন্ত (ওসি) প্রদীপ মন্ডল সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে থেকে লাশ উদ্ধার থানায় নিয়ে আসে।
৩০ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা রাতে ফরিদগঞ্জ পৌরসভার চরবসন্ত এলাকায় নানার ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। সানজিদা। সে একই এলাকার চরের বাড়ির সিএনজি চালক জাকিরের মেয়ে। তবে সানজিদার আত্মহত্যার বিষয়টি রহস্যজনক মনে করছে স্থানীয়রা।
সানজিদা গাজীপুর আহম্মদিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী।
আত্মহত্যাকারী সানজিদার বাবা জাকির জানান, বিকেলে আমরা মেয়ে আমাকে ভাত দিয়েছে। আমি খাবার খেয়ে বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় দেখেছি সে ঘরের সিঁড়িতে বসে ছিল। এরপর রাত আনুমানিক ৮ টার সময় ফোন পেয়েছি সানজিদা আত্মহত্যা করেছে। কি কারণে আত্মহত্যা করেছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা ছোট মেয়ে গতকাল মাদ্রাসার পরিক্ষা শেষ হয়েছে। আমি কোন কারন জানি না। তিনি আরো বলেন, আত্মহত্যা করার সময় আমার শ্বশুর ও শাশুড়ি বাড়িতে ছিলনা। উনারা উনাদের পুরান বাড়ি থেকে এসে দেখেন আমার মেয়ে সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলে আছে।
এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সাইদুল ইসলাম জানান, রাতেই লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে এবং ময়নাতদন্তের তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এবিষয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Model Hospital
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে লঞ্চে শুরু হয়েছে নাড়ির টানে বাড়ি ফেরা

ফরিদগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রীর রহস্যজনক আত্মহত্যা

আপডেট সময় : ১০:৫৪:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ ডিসেম্বর ২০২৩
চাঁদপুরে ফরিদগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রী সানজিদা আক্তার তিশা (১২) আত্মহত্যা করেছে। সংবাদ পেয়ে থানার তদন্ত (ওসি) প্রদীপ মন্ডল সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে থেকে লাশ উদ্ধার থানায় নিয়ে আসে।
৩০ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা রাতে ফরিদগঞ্জ পৌরসভার চরবসন্ত এলাকায় নানার ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। সানজিদা। সে একই এলাকার চরের বাড়ির সিএনজি চালক জাকিরের মেয়ে। তবে সানজিদার আত্মহত্যার বিষয়টি রহস্যজনক মনে করছে স্থানীয়রা।
সানজিদা গাজীপুর আহম্মদিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী।
আত্মহত্যাকারী সানজিদার বাবা জাকির জানান, বিকেলে আমরা মেয়ে আমাকে ভাত দিয়েছে। আমি খাবার খেয়ে বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় দেখেছি সে ঘরের সিঁড়িতে বসে ছিল। এরপর রাত আনুমানিক ৮ টার সময় ফোন পেয়েছি সানজিদা আত্মহত্যা করেছে। কি কারণে আত্মহত্যা করেছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা ছোট মেয়ে গতকাল মাদ্রাসার পরিক্ষা শেষ হয়েছে। আমি কোন কারন জানি না। তিনি আরো বলেন, আত্মহত্যা করার সময় আমার শ্বশুর ও শাশুড়ি বাড়িতে ছিলনা। উনারা উনাদের পুরান বাড়ি থেকে এসে দেখেন আমার মেয়ে সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলে আছে।
এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সাইদুল ইসলাম জানান, রাতেই লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে এবং ময়নাতদন্তের তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এবিষয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Model Hospital