ঢাকা ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জ বালিথুবায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের উপর হামলা, আহত ১০

নিজস্ব প্রতিনিধি : আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পূর্ব মুহূর্তে ফরিদগঞ্জের ২ নং বালিথুবা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র আনারস মার্কার প্রার্থী মোঃ হারুন অর রশিদের সমর্থকদের প্রচার প্রচারনাকালে একদল সন্ত্রাসী তাদেরকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা করেছে। দফায় দফায় হামলার ঘটনায় স্বতন্ত্রপ্রার্থীর প্রায় ১০ জন সমর্থনকে কুপিয়ে জখম করেছে।

Model Hospital

বুধবার বিকালে একতা বাজারে আনারসের সমর্থনে মাইক নিয়ে প্রচারকালে মাইকম্যান মাহফুজ তপাদার, সিএনজি চালক ইলিয়াছ ও তার সাথে থাকা,আমির হোসেনকে ব্যাপক মারধর করে।

হামলাকারীরা বালুথুবা ইউনিয়নে অতর্কিতভাবে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের এনে পৃথকভাবে হামলা চালিয়েছে।
আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জানান হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা জানান, চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুন অর রশিদের আনারস মার্কার প্রচার প্রচারনা কালে আবু সুফিয়ান,হেলাল,কাউছার, জাকির,মিলন,আলআমিন মজুমদার,সিপন খান,জুটন মিজি,কালা মনির ও জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী একতা বাজারে মাইকিং করার সময় আমাদের মাইক ভাংচুর ও আমাদেরকে ব্যাপক মারধোর করে।

নৌকা মার্কার প্রার্থী ইন্দনে তার সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিতভাবে এই হামলা চালিয়েছে। এছাড়া তারা আনারস মার্কার প্রচার কালে মাইক ভেঙে ফেলে গাড়ি রাস্তার পাশে ফেলে দিয়েছে। তারা জানে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে ও আনারস মার্কার পোস্টার ফেস্টুন ব্যানার সিরে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। পরে স্থানীয়রা আমাদেরকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করানো হয়।খবর পেয়ে চেয়ারম্যান হারুর হাসপাতালে আহতদের কে দেখতে যায়।

এ বিষয়ে বালুথুবা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আনারস মার্কার প্রার্থী হারুনুর রশীদ জানান, নৌকা মার্কার প্রতিপক্ষ প্রার্থী বহিরাগত লোকজন দের এনে এলাকায় সন্ত্রাসী তাণ্ডব চালাচ্ছে। প্রচার প্রচারণার সময় তারা আনারস মার্কার সমর্থনে উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাদেরকে আহত করেছে। আগামী ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে তারা কেন্দ্র দখল ও হামলা করার পরিকল্পনা করছে।

ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে সে জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ জরুরী প্রয়োজন।
নির্বাচনের দিন বালুথুবা ইউনিয়নে পুলিশ বিডিআর ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নজরদারি করার জোর দাবী জানাই। যদি নির্বাচন সুষ্ঠু হয় তাহলে বিপুল ভোটে আনারস মার্কা বিজয়ী হবে। অতীতে যেভাবে অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাজ করেছি পুনরায় নির্বাচিত হতে পারলে ভবিষ্যতেও এই ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে রূপান্তরিত করার চেষ্টা করব।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষণা শ্যামলী খানের

ফরিদগঞ্জ বালিথুবায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের উপর হামলা, আহত ১০

আপডেট সময় : ০৪:৪৮:৩৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২১

নিজস্ব প্রতিনিধি : আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পূর্ব মুহূর্তে ফরিদগঞ্জের ২ নং বালিথুবা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র আনারস মার্কার প্রার্থী মোঃ হারুন অর রশিদের সমর্থকদের প্রচার প্রচারনাকালে একদল সন্ত্রাসী তাদেরকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা করেছে। দফায় দফায় হামলার ঘটনায় স্বতন্ত্রপ্রার্থীর প্রায় ১০ জন সমর্থনকে কুপিয়ে জখম করেছে।

Model Hospital

বুধবার বিকালে একতা বাজারে আনারসের সমর্থনে মাইক নিয়ে প্রচারকালে মাইকম্যান মাহফুজ তপাদার, সিএনজি চালক ইলিয়াছ ও তার সাথে থাকা,আমির হোসেনকে ব্যাপক মারধর করে।

হামলাকারীরা বালুথুবা ইউনিয়নে অতর্কিতভাবে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের এনে পৃথকভাবে হামলা চালিয়েছে।
আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জানান হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা জানান, চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুন অর রশিদের আনারস মার্কার প্রচার প্রচারনা কালে আবু সুফিয়ান,হেলাল,কাউছার, জাকির,মিলন,আলআমিন মজুমদার,সিপন খান,জুটন মিজি,কালা মনির ও জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী একতা বাজারে মাইকিং করার সময় আমাদের মাইক ভাংচুর ও আমাদেরকে ব্যাপক মারধোর করে।

নৌকা মার্কার প্রার্থী ইন্দনে তার সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিতভাবে এই হামলা চালিয়েছে। এছাড়া তারা আনারস মার্কার প্রচার কালে মাইক ভেঙে ফেলে গাড়ি রাস্তার পাশে ফেলে দিয়েছে। তারা জানে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে ও আনারস মার্কার পোস্টার ফেস্টুন ব্যানার সিরে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। পরে স্থানীয়রা আমাদেরকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করানো হয়।খবর পেয়ে চেয়ারম্যান হারুর হাসপাতালে আহতদের কে দেখতে যায়।

এ বিষয়ে বালুথুবা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আনারস মার্কার প্রার্থী হারুনুর রশীদ জানান, নৌকা মার্কার প্রতিপক্ষ প্রার্থী বহিরাগত লোকজন দের এনে এলাকায় সন্ত্রাসী তাণ্ডব চালাচ্ছে। প্রচার প্রচারণার সময় তারা আনারস মার্কার সমর্থনে উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাদেরকে আহত করেছে। আগামী ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে তারা কেন্দ্র দখল ও হামলা করার পরিকল্পনা করছে।

ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে সে জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ জরুরী প্রয়োজন।
নির্বাচনের দিন বালুথুবা ইউনিয়নে পুলিশ বিডিআর ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নজরদারি করার জোর দাবী জানাই। যদি নির্বাচন সুষ্ঠু হয় তাহলে বিপুল ভোটে আনারস মার্কা বিজয়ী হবে। অতীতে যেভাবে অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাজ করেছি পুনরায় নির্বাচিত হতে পারলে ভবিষ্যতেও এই ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়ন হিসেবে রূপান্তরিত করার চেষ্টা করব।