ঢাকা ০২:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে ভিখারিণী গণধর্ষণের শিকার, গ্রেফতার-২

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে এক স্বামী পরিত্যক্তা ভিখারিনী (৪০) গণধর্ষণের শিকার হয়েছে।
রবিবার নির্যাতনের শিকার ওই নারীকে উন্নত চিকিৎসা ও পরীক্ষার জন্য চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় ।
একই সঙ্গে ওই কান্ডে অভিযুক্ত ০৪ যুবকের মধ্যে দুই যুবককে পুলিশ আটক করে চাঁদপুর আদালতে সোপর্দ করে।
পাশবিক নির্যাতনের শিকার নারী ও পুলিশ সূত্র জানায়, চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার গোহাট দক্ষিণ ইউপির ৯ নং ওয়ার্ডের চান্দিয়াপাড়া গ্রামের রহির বাড়ীর জনৈক এক স্বামী পরিত্যক্ত ভিখারিণী ভিক্ষাবৃত্তি করে জীবিকা নির্বাহ করত। ওই হিসেবে তিনি শনিবার শাহরাস্তি উপজেলার বেরনাইয়া বাজার সংলগ্ন এলাকায় ভিক্ষাবৃত্তি শেষে থ্রি হুইলার অটোযোগে বাড়ি ফিরছিলেন।
ওইদিন সন্ধ্যায় তিনি উপজেলার রঘুরামপুর ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় অতিক্রম করছিল।
তখন শাহরাস্তি উপজেলার রায়শ্রী উত্তর ইউপির জাদবপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রবের পুত্র বিল্লাল হোসেন (২৮), হাসান আহমেদের পুত্র বেলায়েত হোসেন (৩০), মৃত আবুল কাশেমের পুত্র আঃ কাদির (২০) আবুল হোসেনের পুত্র ইমাম হোসেন মিয়াজি(২১) তাকে বহন করা অটোর গতিরোধ করে নামিয়ে পেলে। তারপর তাকে টেনে হেঁচড়ে রঘুরামপুর গ্রামের আরিফ উল্লাহ পাটওয়ারীর বাড়ীর শাহআলমের নির্মানাধীন একতলা বিল্ডিংয়ের ভিতর নিয়ে যায়।
পরবর্তীতে ভিখারিনীর  বক্তব্য অনুসারে বিল্লাল, বেলায়েত ও কাদির পালাক্রমে তাকে গণধর্ষণ করে।
এছাড়া অভিযুক্ত ইমাম ও সহযোগীরা তাদেরকে এ কাজে সহযোগিতা করে। ওই সময় তিনি নিজেকে বাঁচানোর জন্য চেষ্টা চালালে অভিযুক্ত যুবকরা তার ডানস্তন নখ দিয়ে আচঁড় দেয় এবং বাম চোখের নিচে থেতলানো রক্তাক্ত জখমসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে নির্যাতন চালায়। পরে তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ও পুলিশ এসে নির্যাতনের শিকার ওই ভিখারিনীকে উদ্ধার করে শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  চিকিৎসার ব্যবস্থা করে।
ওই ভিখারিণী আরো জানান যুবক দল তার সঙ্গে থাকা ৫ হাজার ৭ শ টাকা এবং সেম্পনি বাটন মোবাইল সেট সিম নাম্বার ০১৭০৩৬৬৭৬৪২ যার মূল্য ১ হাজার ৫ শ’ টাকা ও থলিতে থাকা  চিকিৎসার কাগজপত্র নিয়ে পালিয়ে যায়।
এ প্রসঙ্গে শাহরাস্তি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, অভিযুক্ত দুই যুবককে আটক করা হয়েছে।
এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত ওই নারী ৪ জনকে আসামি করে একটি নারী ও শিশু  নির্যাতনধমণ আইনে একটি ধর্ষণ মামলা রুজু করে যার নং ০৮ – তারিখ  ১৪.০১.২৪ ।
আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করে পুলিশ পরবর্তী ব্যবস্থা নিবে বলে তিনি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে অটো চালকের মৃত্যু

শাহরাস্তিতে ভিখারিণী গণধর্ষণের শিকার, গ্রেফতার-২

আপডেট সময় : ০৯:১৯:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২৪
চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে এক স্বামী পরিত্যক্তা ভিখারিনী (৪০) গণধর্ষণের শিকার হয়েছে।
রবিবার নির্যাতনের শিকার ওই নারীকে উন্নত চিকিৎসা ও পরীক্ষার জন্য চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় ।
একই সঙ্গে ওই কান্ডে অভিযুক্ত ০৪ যুবকের মধ্যে দুই যুবককে পুলিশ আটক করে চাঁদপুর আদালতে সোপর্দ করে।
পাশবিক নির্যাতনের শিকার নারী ও পুলিশ সূত্র জানায়, চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার গোহাট দক্ষিণ ইউপির ৯ নং ওয়ার্ডের চান্দিয়াপাড়া গ্রামের রহির বাড়ীর জনৈক এক স্বামী পরিত্যক্ত ভিখারিণী ভিক্ষাবৃত্তি করে জীবিকা নির্বাহ করত। ওই হিসেবে তিনি শনিবার শাহরাস্তি উপজেলার বেরনাইয়া বাজার সংলগ্ন এলাকায় ভিক্ষাবৃত্তি শেষে থ্রি হুইলার অটোযোগে বাড়ি ফিরছিলেন।
ওইদিন সন্ধ্যায় তিনি উপজেলার রঘুরামপুর ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় অতিক্রম করছিল।
তখন শাহরাস্তি উপজেলার রায়শ্রী উত্তর ইউপির জাদবপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রবের পুত্র বিল্লাল হোসেন (২৮), হাসান আহমেদের পুত্র বেলায়েত হোসেন (৩০), মৃত আবুল কাশেমের পুত্র আঃ কাদির (২০) আবুল হোসেনের পুত্র ইমাম হোসেন মিয়াজি(২১) তাকে বহন করা অটোর গতিরোধ করে নামিয়ে পেলে। তারপর তাকে টেনে হেঁচড়ে রঘুরামপুর গ্রামের আরিফ উল্লাহ পাটওয়ারীর বাড়ীর শাহআলমের নির্মানাধীন একতলা বিল্ডিংয়ের ভিতর নিয়ে যায়।
পরবর্তীতে ভিখারিনীর  বক্তব্য অনুসারে বিল্লাল, বেলায়েত ও কাদির পালাক্রমে তাকে গণধর্ষণ করে।
এছাড়া অভিযুক্ত ইমাম ও সহযোগীরা তাদেরকে এ কাজে সহযোগিতা করে। ওই সময় তিনি নিজেকে বাঁচানোর জন্য চেষ্টা চালালে অভিযুক্ত যুবকরা তার ডানস্তন নখ দিয়ে আচঁড় দেয় এবং বাম চোখের নিচে থেতলানো রক্তাক্ত জখমসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে নির্যাতন চালায়। পরে তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ও পুলিশ এসে নির্যাতনের শিকার ওই ভিখারিনীকে উদ্ধার করে শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  চিকিৎসার ব্যবস্থা করে।
ওই ভিখারিণী আরো জানান যুবক দল তার সঙ্গে থাকা ৫ হাজার ৭ শ টাকা এবং সেম্পনি বাটন মোবাইল সেট সিম নাম্বার ০১৭০৩৬৬৭৬৪২ যার মূল্য ১ হাজার ৫ শ’ টাকা ও থলিতে থাকা  চিকিৎসার কাগজপত্র নিয়ে পালিয়ে যায়।
এ প্রসঙ্গে শাহরাস্তি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, অভিযুক্ত দুই যুবককে আটক করা হয়েছে।
এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত ওই নারী ৪ জনকে আসামি করে একটি নারী ও শিশু  নির্যাতনধমণ আইনে একটি ধর্ষণ মামলা রুজু করে যার নং ০৮ – তারিখ  ১৪.০১.২৪ ।
আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করে পুলিশ পরবর্তী ব্যবস্থা নিবে বলে তিনি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন।