ঢাকা ০৬:০৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে ২টি অনিবন্ধিত ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা ও জরিমানা

শাহরাস্তিতে ভ্রাম্যমান আদালত কর্তৃক ২টি অনিবন্ধিত ডায়াগনস্টিক সেন্টার সীলগালা ও ৪০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে।
সোমবার (২২ জানুয়ারি) দুপুরে পৌরসভার কালিয়াপাড়া বাজার এবং উপজেলার চিতোষী পশ্চিম ইউনিয়নের আয়নাতলী বাজারে বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইয়াসির আরাফাত এ অভিযান পরিচালনা করেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ভ্রাম্যমান আদালত ২ টি  ডায়াগনস্টিক সেন্টারের লাইসেন্স না থাকায় তাদের মোবাইল কোর্টের তফসীলভুক্ত আইন ২০০৯ এর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ২৭ ধারা মোতাবেক ০৩/২০২৪ নং মামলায় এই রায় দেয়া হয়।
প্রতিষ্ঠান দ্বয় হলো, গ্রীণ ভিউ ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ভিআইপি কন্সাল্টেশন সেন্টার।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ নাসির উদ্দিন বলেন, স্বাস্থ্য নীতিমালা উপেক্ষা, অযোগ্যতা, অদক্ষতা দিয়ে কোন হাসপাতাল চলতে পারেনা। সাধারণ মানুষের জীবনের নিরাপত্তার জন্যই আমরা স্বাস্থ্য মন্ত্রীর নির্দেশে পুরো উপজেলায় ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।
যার অংশ হিসেবে দুটি অনিবন্ধিত ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনুমোদন না থাকায় সীলগালা করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইয়াসির আরাফাত বলেন, উপজেলার সর্বত্র নিয়মিত অভিযান চলবে এবং ত্রুটিযুক্ত, অনিয়ম ও অনুমোদনহীন সকল প্রকার ল্যাব, ক্লিনিক, বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহায়তা করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ সারোয়ার হোসেন, স্যানেটারি ইন্সপেক্টর ফায়দুল্যা মিঞা, শাহরাস্তি থানার এসআই মোঃ আতোয়ার রহমানসহ সঙ্গীয় ফোর্স।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

রমজানের আগেই ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ কমিশন’ দাবি নতুনধারার

শাহরাস্তিতে ২টি অনিবন্ধিত ডায়াগনস্টিক সেন্টার সিলগালা ও জরিমানা

আপডেট সময় : ০৭:৩৫:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৪
শাহরাস্তিতে ভ্রাম্যমান আদালত কর্তৃক ২টি অনিবন্ধিত ডায়াগনস্টিক সেন্টার সীলগালা ও ৪০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে।
সোমবার (২২ জানুয়ারি) দুপুরে পৌরসভার কালিয়াপাড়া বাজার এবং উপজেলার চিতোষী পশ্চিম ইউনিয়নের আয়নাতলী বাজারে বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইয়াসির আরাফাত এ অভিযান পরিচালনা করেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ভ্রাম্যমান আদালত ২ টি  ডায়াগনস্টিক সেন্টারের লাইসেন্স না থাকায় তাদের মোবাইল কোর্টের তফসীলভুক্ত আইন ২০০৯ এর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ২৭ ধারা মোতাবেক ০৩/২০২৪ নং মামলায় এই রায় দেয়া হয়।
প্রতিষ্ঠান দ্বয় হলো, গ্রীণ ভিউ ডিজিটাল ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ভিআইপি কন্সাল্টেশন সেন্টার।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ নাসির উদ্দিন বলেন, স্বাস্থ্য নীতিমালা উপেক্ষা, অযোগ্যতা, অদক্ষতা দিয়ে কোন হাসপাতাল চলতে পারেনা। সাধারণ মানুষের জীবনের নিরাপত্তার জন্যই আমরা স্বাস্থ্য মন্ত্রীর নির্দেশে পুরো উপজেলায় ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।
যার অংশ হিসেবে দুটি অনিবন্ধিত ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনুমোদন না থাকায় সীলগালা করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইয়াসির আরাফাত বলেন, উপজেলার সর্বত্র নিয়মিত অভিযান চলবে এবং ত্রুটিযুক্ত, অনিয়ম ও অনুমোদনহীন সকল প্রকার ল্যাব, ক্লিনিক, বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহায়তা করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ সারোয়ার হোসেন, স্যানেটারি ইন্সপেক্টর ফায়দুল্যা মিঞা, শাহরাস্তি থানার এসআই মোঃ আতোয়ার রহমানসহ সঙ্গীয় ফোর্স।