ঢাকা ০৮:২২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্ত্রী হত্যার অভিযোগে হাজীগঞ্জ আল-কাউসার মাদরাসার শিক্ষক আটক

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে ইভা নামে এক গৃহিনীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক স্বামীকে আটক করা হয়েছে।

Model Hospital

বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন ৫নং ওয়ার্ডের মকিমাবাদ এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় ইভা আক্তারের (১৮) লাশটি উদ্ধার করা হয়। পরিবারের দাবি তাঁকে হত্যা করা হয়েছে।

উদ্ধার হওয়া লাশের নাম ইভা আক্তার হাজীগঞ্জ সদর ইউনিয়নের কাজীরগাঁও গ্রামের প্রবাসী খোকনের মেয়ে। এই ঘটনার পর পুলিশ ইভার স্বামী মো. সোহেলকে (৩০) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে আসে। তিনি আল-কাউসার মাদ্রাসার শিক্ষক ও মতলব উত্তর উপজেলার বাসিন্দা।

পরিবারের লোকজন ও স্বজনারা জানান, ইভা হাজীগঞ্জ মডেল সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। ৫ মাস পূর্বে পারিবারিকভাবে সোহেলের সাথে তার বিয়ে হয় এবং বিয়ের পর থেকেই স্বামী ফার্নিচারসহ বিভিন্ন জিনিসপত্রের জন্য চাপ-সৃষ্টি ও মানসিক নির্যাতন করে আসছে। এখন ইভাকে মেরে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে।

ইভার মা তাহমিনা জানান, সকালে আমি জামাইকে (সোহেল) ফোন করলে তিনি রিসিভ করেন নি। পরে আমার ছেলেকে পাঠাই এবং জামাইকে ভিডিও ফোন দেই। তখন জামাই ঝুলন্ত অবস্থায় ইভার লাশ দেখায়।

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ আবদুর রশিদ জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। পরবর্তীতে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে মাদরাসাতু মুহাম্মদ সাঃ উদ্বোধন

স্ত্রী হত্যার অভিযোগে হাজীগঞ্জ আল-কাউসার মাদরাসার শিক্ষক আটক

আপডেট সময় : ১১:১৯:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৪

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে ইভা নামে এক গৃহিনীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক স্বামীকে আটক করা হয়েছে।

Model Hospital

বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন ৫নং ওয়ার্ডের মকিমাবাদ এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় ইভা আক্তারের (১৮) লাশটি উদ্ধার করা হয়। পরিবারের দাবি তাঁকে হত্যা করা হয়েছে।

উদ্ধার হওয়া লাশের নাম ইভা আক্তার হাজীগঞ্জ সদর ইউনিয়নের কাজীরগাঁও গ্রামের প্রবাসী খোকনের মেয়ে। এই ঘটনার পর পুলিশ ইভার স্বামী মো. সোহেলকে (৩০) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে আসে। তিনি আল-কাউসার মাদ্রাসার শিক্ষক ও মতলব উত্তর উপজেলার বাসিন্দা।

পরিবারের লোকজন ও স্বজনারা জানান, ইভা হাজীগঞ্জ মডেল সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। ৫ মাস পূর্বে পারিবারিকভাবে সোহেলের সাথে তার বিয়ে হয় এবং বিয়ের পর থেকেই স্বামী ফার্নিচারসহ বিভিন্ন জিনিসপত্রের জন্য চাপ-সৃষ্টি ও মানসিক নির্যাতন করে আসছে। এখন ইভাকে মেরে লাশ ঝুলিয়ে রেখেছে।

ইভার মা তাহমিনা জানান, সকালে আমি জামাইকে (সোহেল) ফোন করলে তিনি রিসিভ করেন নি। পরে আমার ছেলেকে পাঠাই এবং জামাইকে ভিডিও ফোন দেই। তখন জামাই ঝুলন্ত অবস্থায় ইভার লাশ দেখায়।

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ আবদুর রশিদ জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। পরবর্তীতে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।