ঢাকা ০৭:৪০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে রাস্তার জমি দখলের অভিযোগে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের পরাণপুর গ্রামের হাজীবাড়িতে যাতায়াতের রাস্তা দখল করে পথ বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে পরাণপুর হাজীবাড়ির ইব্রাহিম খলিলের বিরুদ্ধে।

Model Hospital

এ ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে সোমবার (১১ মার্চ) বিকাল ৪ ঘটিকায় পরাণপুর হাজীবাড়ি সংলগ্ন প্রধান সড়কে ঐ বাড়ির ভুক্তভোগীসহ এলাকাবাসী মানববন্ধন করেছে। এ সময় এলাকাবাসী ইব্রাহিম খলিলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেয় এবং তার কুশপুত্তলিকা পুড়িয়েছে।

সরেজমিনে গেলে বাড়ির বাসিন্দা মোঃ সুন্দর আলী বলেন, ইব্রাহিম খলিল এবং প্রবাসে থাকা অবস্থানরত দুই সন্তান ইউনূস ও জাহানশাহ দীর্ঘদিন যাবত বাড়িতে ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করে আসছে। টামটা উত্তর ইউনিয়নের পরাণপুর গ্রামের হাজীবাড়িতে প্রবেশপথের রাস্তার জায়গা দখল করে পথ বন্ধ করে দেয়ার মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে ইব্রাহিম খলিল ও তার পরিবার। এ রাস্তা দিয়ে বাড়ির ত্রিশটি পরিবার যাতায়াত করে প্রায় শত বছর ধরে। হটাৎ করে তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা রাস্তার সেই জায়গা দখল করে তাতে আমরা সকলেই বাঁধা দেই।

ফলে তিনি আমাদের নানারকম হুমকি-ধামকি দেয় এবং আদালতে মিথ্যা মামলা দেয়। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। অবিলম্বে দখলকৃত রাস্তার জায়গা খালি করে না দিলে আমরা বৃহত্তর মানববন্ধনে যেতে বাধ্য হবো।

মানববন্ধনে হাজীবাড়ির বাসিন্দা ভুক্তভোগী মোঃ শাহ আলম মিয়া বলেন, শুনেছি আমাদের স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অব) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম দেশের জন্য ও সাধারন মানুষের জন্য কাজ করে, কিন্তু আজ তার এলাকায় ইব্রাহিম খলিলের মতো লোক বাড়ির চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে আমাদেরকে কষ্ট দিচ্ছে। ইব্রাহিম খলিল যাতায়াতের রাস্তা দখল করে আবার ভয়-ভীতি দেখায়। আমরা আমাদের চলাচলের সেই রাস্তা পুনরুদ্ধার করার জন্যই আজকে রাজপথে মানববন্ধন করছি। স্থানীয় সংসদ মেজর (অব) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি, আমাদের যাতায়াতের সেই রাস্তা পুনরুদ্ধারের জন্য।

ভুক্তভোগী হাজীবাড়ির বাসিন্দা মিজান বলেন, প্রভাব বিস্তার করে ইব্রাহিম খলিল ও তার পরিবারের সদস্যরা যাতায়াতের রাস্তার জমি অবৈধভাবে দখল করে তা বন্ধ করে দিয়েছেন। আমি এলাকাবাসী ও বাড়ির লোক সহ বাঁধা দিলে আমার ও বাড়ির কয়েকজনের নামে মিথ্যা মামলা করেছে। নানা রকম হুমকি-ধামকি সহ পুলিশি হয়রানি করবে বলে ভয়-ভীতি দেখিয়েছে। একজন বয়োজ্যেষ্ঠ লোকের আচরন কখনও এমন হতে পারে না, ভুমি দস্যুদের মত সাধারন জনগনের চলাচলের রাস্তা সে দখল করতে পারে না। আমরা আমাদের চলাচলের সেই রাস্তা দখলমুক্ত চাই।

বাড়ির বাসিন্দা মনি আক্তার আরও জানান, যাতায়াতের জায়গা দখল করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করায় ৩০ টি পরিবারের মানুষজন পাশের জমির উপর দিয়ে চলাফেরা করতো। ইব্রাহিম খলিল তার জমিতে সীমানা প্রাচীর নির্মান করায় এখন তাদের চলাচল করা খুবই কষ্টকর হয়ে পড়েছে। এ বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য একাধিকবার ইব্রাহিম খলিলকে নোটিশ দেয়া হয়েছে কিন্তু তিনি কোন কর্ণপাত করেননি।

উল্লেখ্য, মানববন্ধন শেষে এলাকাবাসী ও বাড়ির লোকেরা ইব্রাহিম খলিলের কুশপুত্তলিকা পুড়িয়ে অবিলম্বে যাতায়াতের রাস্তা উন্মুক্ত করে দিতে স্থানীয় প্রশাসনসহ সকলকে অনুরোধ করেন। চলাচলের রাস্তা উন্মুক্ত না করলে শীঘ্রই তারা আরও বৃহত্তর মানববন্ধন করবেন বলেও জানিয়েছেন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে মাদরাসাতু মুহাম্মদ সাঃ উদ্বোধন

শাহরাস্তিতে রাস্তার জমি দখলের অভিযোগে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

আপডেট সময় : ১০:৩৭:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ মার্চ ২০২৪

চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের পরাণপুর গ্রামের হাজীবাড়িতে যাতায়াতের রাস্তা দখল করে পথ বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে পরাণপুর হাজীবাড়ির ইব্রাহিম খলিলের বিরুদ্ধে।

Model Hospital

এ ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে সোমবার (১১ মার্চ) বিকাল ৪ ঘটিকায় পরাণপুর হাজীবাড়ি সংলগ্ন প্রধান সড়কে ঐ বাড়ির ভুক্তভোগীসহ এলাকাবাসী মানববন্ধন করেছে। এ সময় এলাকাবাসী ইব্রাহিম খলিলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেয় এবং তার কুশপুত্তলিকা পুড়িয়েছে।

সরেজমিনে গেলে বাড়ির বাসিন্দা মোঃ সুন্দর আলী বলেন, ইব্রাহিম খলিল এবং প্রবাসে থাকা অবস্থানরত দুই সন্তান ইউনূস ও জাহানশাহ দীর্ঘদিন যাবত বাড়িতে ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করে আসছে। টামটা উত্তর ইউনিয়নের পরাণপুর গ্রামের হাজীবাড়িতে প্রবেশপথের রাস্তার জায়গা দখল করে পথ বন্ধ করে দেয়ার মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে ইব্রাহিম খলিল ও তার পরিবার। এ রাস্তা দিয়ে বাড়ির ত্রিশটি পরিবার যাতায়াত করে প্রায় শত বছর ধরে। হটাৎ করে তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা রাস্তার সেই জায়গা দখল করে তাতে আমরা সকলেই বাঁধা দেই।

ফলে তিনি আমাদের নানারকম হুমকি-ধামকি দেয় এবং আদালতে মিথ্যা মামলা দেয়। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। অবিলম্বে দখলকৃত রাস্তার জায়গা খালি করে না দিলে আমরা বৃহত্তর মানববন্ধনে যেতে বাধ্য হবো।

মানববন্ধনে হাজীবাড়ির বাসিন্দা ভুক্তভোগী মোঃ শাহ আলম মিয়া বলেন, শুনেছি আমাদের স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অব) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম দেশের জন্য ও সাধারন মানুষের জন্য কাজ করে, কিন্তু আজ তার এলাকায় ইব্রাহিম খলিলের মতো লোক বাড়ির চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে আমাদেরকে কষ্ট দিচ্ছে। ইব্রাহিম খলিল যাতায়াতের রাস্তা দখল করে আবার ভয়-ভীতি দেখায়। আমরা আমাদের চলাচলের সেই রাস্তা পুনরুদ্ধার করার জন্যই আজকে রাজপথে মানববন্ধন করছি। স্থানীয় সংসদ মেজর (অব) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি, আমাদের যাতায়াতের সেই রাস্তা পুনরুদ্ধারের জন্য।

ভুক্তভোগী হাজীবাড়ির বাসিন্দা মিজান বলেন, প্রভাব বিস্তার করে ইব্রাহিম খলিল ও তার পরিবারের সদস্যরা যাতায়াতের রাস্তার জমি অবৈধভাবে দখল করে তা বন্ধ করে দিয়েছেন। আমি এলাকাবাসী ও বাড়ির লোক সহ বাঁধা দিলে আমার ও বাড়ির কয়েকজনের নামে মিথ্যা মামলা করেছে। নানা রকম হুমকি-ধামকি সহ পুলিশি হয়রানি করবে বলে ভয়-ভীতি দেখিয়েছে। একজন বয়োজ্যেষ্ঠ লোকের আচরন কখনও এমন হতে পারে না, ভুমি দস্যুদের মত সাধারন জনগনের চলাচলের রাস্তা সে দখল করতে পারে না। আমরা আমাদের চলাচলের সেই রাস্তা দখলমুক্ত চাই।

বাড়ির বাসিন্দা মনি আক্তার আরও জানান, যাতায়াতের জায়গা দখল করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করায় ৩০ টি পরিবারের মানুষজন পাশের জমির উপর দিয়ে চলাফেরা করতো। ইব্রাহিম খলিল তার জমিতে সীমানা প্রাচীর নির্মান করায় এখন তাদের চলাচল করা খুবই কষ্টকর হয়ে পড়েছে। এ বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য একাধিকবার ইব্রাহিম খলিলকে নোটিশ দেয়া হয়েছে কিন্তু তিনি কোন কর্ণপাত করেননি।

উল্লেখ্য, মানববন্ধন শেষে এলাকাবাসী ও বাড়ির লোকেরা ইব্রাহিম খলিলের কুশপুত্তলিকা পুড়িয়ে অবিলম্বে যাতায়াতের রাস্তা উন্মুক্ত করে দিতে স্থানীয় প্রশাসনসহ সকলকে অনুরোধ করেন। চলাচলের রাস্তা উন্মুক্ত না করলে শীঘ্রই তারা আরও বৃহত্তর মানববন্ধন করবেন বলেও জানিয়েছেন।