ঢাকা ০৯:০৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম ও আশপাশের জেলায় মাঝারি মাত্রায় ভূমিকম্প

চট্টগ্রাম ও আশপাশের জেলায় মাঝারি মাত্রায় ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। ভূমিকম্প পর্যবেক্ষণ ওয়েবসাইট ভলকেনো ডিসকাভারির তথ্য অনুযায়ী, স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৪৬ মিনিটে ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

Model Hospital

ভূমিকম্প ছিল ৩ দশমিক ৭ মাত্রার। ভূমিকম্পের গভীরতা ছিল ১০ কিমি। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ৪৩ কিলোমিটার উত্তরে রাঙ্গামাটি জেলার কাপ্তাই উপজলায়।

চট্টগ্রাম নগরের বাসিন্দা বেলাল উদ্দিন বলেন, রাত পৌনে ১১টার দিকে হাল্কা ভূমিকম্প অনুভূত হয়। তবে ক্ষয়ক্ষতির কোনো খবর পায়নি।

এর আগে জাপানে শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে। রিখটার স্কেলের মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৩। দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। তবে ওই ভূমিকম্প থেকে বড় ধরনের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ জানায়, স্থানীয় সময় বুধবার (১৮ এপ্রিল) রাত ১১টা ১৪ মিনিটে কিয়োসু এবং শিকোকু দীপপুঞ্জের মধ্যবর্তী স্থানে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

জাপানে প্রতি বছর গড়ে প্রায় ১৫০০ ভূমিকম্প আঘাত হানে। তবে এগুলোর মধ্যে অধিকাংশই মৃদু ভূমিকম্প। এমনকি দেশটিতে বড় ধরনের ভূমিকম্পেও সামান্য ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়। কারণ ভূমিকম্প থেকে বাঁচতে এবং ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে তাদের সব ধরনের ব্যবস্থা রয়েছে।

ট্যাগস :

মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিতদের গেজেট প্রকাশ

চট্টগ্রাম ও আশপাশের জেলায় মাঝারি মাত্রায় ভূমিকম্প

আপডেট সময় : ১২:৩০:০৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

চট্টগ্রাম ও আশপাশের জেলায় মাঝারি মাত্রায় ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। ভূমিকম্প পর্যবেক্ষণ ওয়েবসাইট ভলকেনো ডিসকাভারির তথ্য অনুযায়ী, স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৪৬ মিনিটে ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

Model Hospital

ভূমিকম্প ছিল ৩ দশমিক ৭ মাত্রার। ভূমিকম্পের গভীরতা ছিল ১০ কিমি। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ৪৩ কিলোমিটার উত্তরে রাঙ্গামাটি জেলার কাপ্তাই উপজলায়।

চট্টগ্রাম নগরের বাসিন্দা বেলাল উদ্দিন বলেন, রাত পৌনে ১১টার দিকে হাল্কা ভূমিকম্প অনুভূত হয়। তবে ক্ষয়ক্ষতির কোনো খবর পায়নি।

এর আগে জাপানে শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে। রিখটার স্কেলের মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৩। দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। তবে ওই ভূমিকম্প থেকে বড় ধরনের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ জানায়, স্থানীয় সময় বুধবার (১৮ এপ্রিল) রাত ১১টা ১৪ মিনিটে কিয়োসু এবং শিকোকু দীপপুঞ্জের মধ্যবর্তী স্থানে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

জাপানে প্রতি বছর গড়ে প্রায় ১৫০০ ভূমিকম্প আঘাত হানে। তবে এগুলোর মধ্যে অধিকাংশই মৃদু ভূমিকম্প। এমনকি দেশটিতে বড় ধরনের ভূমিকম্পেও সামান্য ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়। কারণ ভূমিকম্প থেকে বাঁচতে এবং ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে তাদের সব ধরনের ব্যবস্থা রয়েছে।