ঢাকা ০৩:১৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাবা-মায়ের প্রতি দিনের ঝগড়া থামাতে ৬ বছরের শিশু থানায়!

খুবই তুচ্ছ বিষয় নিয়ে সংসার জীবনে প্রতি দিনই বাবা-মায়ের মধ্যে ঝগড়া লেগে থাকে। নিজ ঘরে এমন ঘটনা প্রায় দেখে আসছে শিশু সিয়াম। তার খুদে চেষ্টায় থামে না বাবা-মায়ের এই ঝগড়া। তার সামনেই প্রতিনিয়ত মাদকাসক্ত বাবা মাকে মারধর করেন। এসব সহ্য হচ্ছিল না শিশু সিয়ামের। তাই নিজেই থানায় ছুটে যায় অভিযোগ জানাতে।

Model Hospital

ঘটনাটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল প্রাতবাজার এলাকার জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে শিশু সিয়াম রোববার (২৮ এপ্রিল) দুপুর ২টার দিকে একাই থানায় হাজির হয়।

খুঁজতে থাকেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাহেবকে। পরে থানার ওসির কাছে গিয়ে বাবা মায়ের ঝগড়া সর্ম্পকে অবগত করেন।

এ সময় থানার ওসি মুহাম্মদ এমরানুল ইসলাম বলেন, শিশুটি থানা আসার পর, সেবা গ্রহীতাদের মতো তাকে চেয়ারে বসিয়ে অভিযোগ শুনি। শিশু সিয়াম তার বাবা-মায়ের প্রতি অভিযোগ আনার পাশাপাশি এ পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণ চেয়ে পুলিশের সহযোগিতা কামনা করে।

বিষয়টি সমাধানে এসআই জয়নাল আবেদীন, এএসআই সাইফুল ইসলাম তাৎক্ষণিকভাবে শিশুটিকে নিয়ে তার বাড়িতে যান। থানায় ডেকে আনা হয় তার বাবা-মাকে।

পরে পুলিশ শিশুটির বাবা মাকে বুঝিয়ে তাৎক্ষণিকভাবেই ঝগড়া না করার অঙ্গীকারনামা আদায় করেন।

সিয়ামের বাবা-মা জানিয়েছেন, তারা আর কখনও ঝগড়া করবে না।

পুলিশের এই ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করে শিশু সিয়াম। পরে সে পুলিশকে বেশ হাসিমুখে বিদায় জানায়।

ট্যাগস :

বাবা-মায়ের প্রতি দিনের ঝগড়া থামাতে ৬ বছরের শিশু থানায়!

আপডেট সময় : ০১:৪৮:৩২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৯ এপ্রিল ২০২৪

খুবই তুচ্ছ বিষয় নিয়ে সংসার জীবনে প্রতি দিনই বাবা-মায়ের মধ্যে ঝগড়া লেগে থাকে। নিজ ঘরে এমন ঘটনা প্রায় দেখে আসছে শিশু সিয়াম। তার খুদে চেষ্টায় থামে না বাবা-মায়ের এই ঝগড়া। তার সামনেই প্রতিনিয়ত মাদকাসক্ত বাবা মাকে মারধর করেন। এসব সহ্য হচ্ছিল না শিশু সিয়ামের। তাই নিজেই থানায় ছুটে যায় অভিযোগ জানাতে।

Model Hospital

ঘটনাটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল প্রাতবাজার এলাকার জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে শিশু সিয়াম রোববার (২৮ এপ্রিল) দুপুর ২টার দিকে একাই থানায় হাজির হয়।

খুঁজতে থাকেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাহেবকে। পরে থানার ওসির কাছে গিয়ে বাবা মায়ের ঝগড়া সর্ম্পকে অবগত করেন।

এ সময় থানার ওসি মুহাম্মদ এমরানুল ইসলাম বলেন, শিশুটি থানা আসার পর, সেবা গ্রহীতাদের মতো তাকে চেয়ারে বসিয়ে অভিযোগ শুনি। শিশু সিয়াম তার বাবা-মায়ের প্রতি অভিযোগ আনার পাশাপাশি এ পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণ চেয়ে পুলিশের সহযোগিতা কামনা করে।

বিষয়টি সমাধানে এসআই জয়নাল আবেদীন, এএসআই সাইফুল ইসলাম তাৎক্ষণিকভাবে শিশুটিকে নিয়ে তার বাড়িতে যান। থানায় ডেকে আনা হয় তার বাবা-মাকে।

পরে পুলিশ শিশুটির বাবা মাকে বুঝিয়ে তাৎক্ষণিকভাবেই ঝগড়া না করার অঙ্গীকারনামা আদায় করেন।

সিয়ামের বাবা-মা জানিয়েছেন, তারা আর কখনও ঝগড়া করবে না।

পুলিশের এই ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করে শিশু সিয়াম। পরে সে পুলিশকে বেশ হাসিমুখে বিদায় জানায়।