ঢাকা ০৪:১১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে নির্বাচিত ৩ চেয়ারম্যানের কেন্দ্রওয়ারী ফলাফল

শাহরাস্তিতে দ্বিতীয় ধাপের ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু এবং সুন্দরভাবে সম্পূর্ণ হয়েছে।
উপজেলা চেয়ারম্যান পদে ইঞ্জিনিয়ার মুকবুল হোসেন পাটোয়ারী ঘোড়া প্রতীকে ৩২ হাজার ৬৭৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আনারস প্রতীকের প্রার্থী ওমর ফারুক রুমি ২৬ হাজার ৯৮ ভোট পেয়ে  বিজিত হন।
অন্যদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে চশমা প্রতীকের প্রার্থী সাবেক ছাত্রলীগ নেতা  ইমদাদুল হক মিলন ২২ হাজার ৮ শ ৪৯ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ ইরান ১৯ হাজার ৬৬ ভোট পেয়ে বিজিত হন।
অপরদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রজাপতি প্রতীকে হাছিনা আক্তার ২১ হাজার ১শ ৩৯ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন নাহার কাজল ১৫হাজার ৯ শ ৬৭ ভোট পেয়ে বিজিত হয়।
প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় বিজয়ী চেয়ারম্যান ভাইস চেয়ারম্যান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সবাইকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।
এবারের উপজেলা পরিষদ  নির্বাচনে ভোট যুদ্ধে ২ জন চেয়ারম্যান, ৫ জন ভাইস চেয়ারম্যান, ৪ নারী ভাইস চেয়ারম্যানসহ ১১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। এর মধ্যে জনগণ তাদের পছন্দের প্রার্থীদের বেছে নিয়েছেন।
এদিকে মঙ্গলবার সকাল ০৮:০০ টা হতে বিকাল ০৪:০০ টা পর্যন্ত ইভিএম-এর  মাধ্যমে একটানা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা নির্বাচন অফিস  সূত্র জানা গেছে,এই নির্বাচনে ১টি পৌরসভা ও ১০ টি ইউপির ৬৫টি ভোটকেন্দ্রে  স্থায়ী ৩৯৯ অস্থায়ী ৬৬ সহ সর্বমোট  ৪৬৫ ভোট কক্ষে  ১,০৪,০১৪ জন পুরুষ এবং ১,০২,২২৯ জন নারী  ভোটারসহ সর্বমোট  ২,০৬,২৪৪ জন ভোটারের ভোটাধিকার প্রয়োগের ব্যবস্থা করা হয়। এরমধ্যে ৬৫টি কেন্দ্রে ভোটাররা ৫৮ হাজার ৭ শ ৭৭ টি বৈধ  ভোট প্রদান করেন। যার শতকরা হার ২৮.৬০ ভাগ।
ওই নির্বাচনে সুষ্ঠু এবং সুন্দরভাবে ভোট গ্রহণ নিশ্চিত করতে  সকাল থেকে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও  উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ ইয়াসির আরাফাতের দিক নির্দেশনায়  আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাজে নিয়োজিত সদস্যদের টহলদারি ছিল চোখে পড়ার মতো।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এই নির্বাচনে ভোটগ্রহণের জন্য উপজেলা প্রশাসনের পাশাপাশি ১১ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ৬৫ জন প্রিজাইডিং, সহকারী প্রিজাইডিং ৪৬৫ জন পোলিং অফিসার ৯৩০ জন এ দায়িত্ব পালন করেন।
একই সঙ্গে দুই প্লাটুন বিজিবি, পুলিশ বাহিনীর সদস্য, আনসার পিসি ৬৫ জন, এপিসি ১৯৫ জন, সাধারণ আনসার ৬৫০ জনসহ মোট ৯১০ জন দায়িত্ব পালন করে।
এদিকে চেয়ারম্যান পদে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে লড়াই করে বিজয়ী হওয়া বিশিষ্ট শিল্পপতি, ঠিকাদার, সমাজ সেবক ইঞ্জিনিয়ার মকবুল হোসেন পাটোয়ারী।
প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, যারা আমাকে কষ্ট করে শ্রম ঘাম দিয়ে নিঃস্বার্থ ভালোবেসে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে বিজয় করেছে। আমি তাদের উদ্দেশ্যে এ বিজয় উৎসর্গ করলাম।
এছাড়া আগামী দিনে তিনি স্থানীয় সাংসদ সহ সকলের সহযোগিতা নিয়ে শাহরাস্তির উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করব।
তিনি আরো বলেন, আমি উন্নত সমাজ গঠনে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছি। বর্তমানে উন্নয়নের যে রোড ম্যাপ রয়েছে তা বাস্তবায়নে নিজেকে নিয়োজিত রাখবো।
দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে উন্নত শাহরাস্তি বিনির্মাণে জীবন সায়াহ্নে নিজেকে উজাড় করব। ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও চাঁদপুর জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইমদাদুল হক মিলন চশমা প্রতিক নিয়ে বিজয় হয়ে সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।
একইভাবে আওয়ামী লীগ নেত্রী হাছিনা আক্তার সবাইকে কৃতজ্ঞতা ধন্যবাদ জানিয়েছেন।
৬৫ টি কেন্দ্রের ফলাফল নিম্মে তুলে ধরা হলঃ
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

গরু জবাই করার সময় হার্ট অ্যাটাকে মৃ’ত্যু

শাহরাস্তিতে নির্বাচিত ৩ চেয়ারম্যানের কেন্দ্রওয়ারী ফলাফল

আপডেট সময় : ১০:৪১:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪
শাহরাস্তিতে দ্বিতীয় ধাপের ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু এবং সুন্দরভাবে সম্পূর্ণ হয়েছে।
উপজেলা চেয়ারম্যান পদে ইঞ্জিনিয়ার মুকবুল হোসেন পাটোয়ারী ঘোড়া প্রতীকে ৩২ হাজার ৬৭৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে আনারস প্রতীকের প্রার্থী ওমর ফারুক রুমি ২৬ হাজার ৯৮ ভোট পেয়ে  বিজিত হন।
অন্যদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে চশমা প্রতীকের প্রার্থী সাবেক ছাত্রলীগ নেতা  ইমদাদুল হক মিলন ২২ হাজার ৮ শ ৪৯ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ ইরান ১৯ হাজার ৬৬ ভোট পেয়ে বিজিত হন।
অপরদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রজাপতি প্রতীকে হাছিনা আক্তার ২১ হাজার ১শ ৩৯ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন নাহার কাজল ১৫হাজার ৯ শ ৬৭ ভোট পেয়ে বিজিত হয়।
প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় বিজয়ী চেয়ারম্যান ভাইস চেয়ারম্যান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সবাইকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।
এবারের উপজেলা পরিষদ  নির্বাচনে ভোট যুদ্ধে ২ জন চেয়ারম্যান, ৫ জন ভাইস চেয়ারম্যান, ৪ নারী ভাইস চেয়ারম্যানসহ ১১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। এর মধ্যে জনগণ তাদের পছন্দের প্রার্থীদের বেছে নিয়েছেন।
এদিকে মঙ্গলবার সকাল ০৮:০০ টা হতে বিকাল ০৪:০০ টা পর্যন্ত ইভিএম-এর  মাধ্যমে একটানা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা নির্বাচন অফিস  সূত্র জানা গেছে,এই নির্বাচনে ১টি পৌরসভা ও ১০ টি ইউপির ৬৫টি ভোটকেন্দ্রে  স্থায়ী ৩৯৯ অস্থায়ী ৬৬ সহ সর্বমোট  ৪৬৫ ভোট কক্ষে  ১,০৪,০১৪ জন পুরুষ এবং ১,০২,২২৯ জন নারী  ভোটারসহ সর্বমোট  ২,০৬,২৪৪ জন ভোটারের ভোটাধিকার প্রয়োগের ব্যবস্থা করা হয়। এরমধ্যে ৬৫টি কেন্দ্রে ভোটাররা ৫৮ হাজার ৭ শ ৭৭ টি বৈধ  ভোট প্রদান করেন। যার শতকরা হার ২৮.৬০ ভাগ।
ওই নির্বাচনে সুষ্ঠু এবং সুন্দরভাবে ভোট গ্রহণ নিশ্চিত করতে  সকাল থেকে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও  উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ ইয়াসির আরাফাতের দিক নির্দেশনায়  আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাজে নিয়োজিত সদস্যদের টহলদারি ছিল চোখে পড়ার মতো।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এই নির্বাচনে ভোটগ্রহণের জন্য উপজেলা প্রশাসনের পাশাপাশি ১১ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ৬৫ জন প্রিজাইডিং, সহকারী প্রিজাইডিং ৪৬৫ জন পোলিং অফিসার ৯৩০ জন এ দায়িত্ব পালন করেন।
একই সঙ্গে দুই প্লাটুন বিজিবি, পুলিশ বাহিনীর সদস্য, আনসার পিসি ৬৫ জন, এপিসি ১৯৫ জন, সাধারণ আনসার ৬৫০ জনসহ মোট ৯১০ জন দায়িত্ব পালন করে।
এদিকে চেয়ারম্যান পদে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে লড়াই করে বিজয়ী হওয়া বিশিষ্ট শিল্পপতি, ঠিকাদার, সমাজ সেবক ইঞ্জিনিয়ার মকবুল হোসেন পাটোয়ারী।
প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, যারা আমাকে কষ্ট করে শ্রম ঘাম দিয়ে নিঃস্বার্থ ভালোবেসে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে বিজয় করেছে। আমি তাদের উদ্দেশ্যে এ বিজয় উৎসর্গ করলাম।
এছাড়া আগামী দিনে তিনি স্থানীয় সাংসদ সহ সকলের সহযোগিতা নিয়ে শাহরাস্তির উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করব।
তিনি আরো বলেন, আমি উন্নত সমাজ গঠনে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছি। বর্তমানে উন্নয়নের যে রোড ম্যাপ রয়েছে তা বাস্তবায়নে নিজেকে নিয়োজিত রাখবো।
দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে উন্নত শাহরাস্তি বিনির্মাণে জীবন সায়াহ্নে নিজেকে উজাড় করব। ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও চাঁদপুর জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইমদাদুল হক মিলন চশমা প্রতিক নিয়ে বিজয় হয়ে সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।
একইভাবে আওয়ামী লীগ নেত্রী হাছিনা আক্তার সবাইকে কৃতজ্ঞতা ধন্যবাদ জানিয়েছেন।
৬৫ টি কেন্দ্রের ফলাফল নিম্মে তুলে ধরা হলঃ