ঢাকা ১১:৩১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যাত্রীবাহী লঞ্চে আগুন লাগার পর শঙ্কামুক্ত হয়ে চাঁদপুর ছেড়ে গেছে সুরভী-৯ লঞ্চ

নিজস্ব প্রতিনিধি : মেঘনা নদীতে যাত্রীবাহী লঞ্চে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। তবে আগুন লঞ্চে ছড়িয়ে পড়ার আগেই তা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছেন লঞ্চের কর্মীরা। খবর পেয়ে নৌ-ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

Model Hospital

শনিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে মতলব উত্তরের মোহনপুর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। আগুন লাগার পর শঙ্কামুক্ত হয়ে যাত্রী নিয়ে এমভি সুরভী-৯ নামের লঞ্চটি বরিশালের উদ্দেশ্যে ছেড়ে গিয়েছে।

শনিবার (৮ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১২টার দিকে চাঁদপুরের মতলব উত্তরের মোহনপুর মেঘনা নদীতে যাত্রীবাহী লঞ্চটি আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। তবে আগুন লঞ্চে ছড়িয়ে পড়ার আগেই তা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছেন লঞ্চের কর্মীরা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিআইডব্লিউটিএ এর চাঁদপুরের বন্দর কর্মকর্তা মো. কায়সারুল ইসলাম।

তিনি বলেন, লঞ্চটির ইঞ্জিন রুম থেকে আগুনের ধোয়া বের হতে দেখেন যাত্রীরা। এ নিয়ে তাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে কোন একজন যাত্রী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে সহযোগিতা চান। এর পরপরই পুলিশ মোহনপুর এলাকায় আসলে সুরভী-৯ লঞ্চটি ঘাটে আটকে রাখা হয়।

বিআইডব্লিউটিএর কর্মকর্তা আরও বলেন, লঞ্চের ইঞ্জিনে আগুন ধরার পর কিছু সময়ের মধ্যে তা নিভিয়ে ফেলতে সক্ষম হয় স্টাফরা। ফলে বড় ধরণের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে লঞ্চটি। সারারাত লঞ্চটি মোহনপুর এলাকায় নোঙর করে রাখা হয়। শঙ্কাুমুক্ত নিশ্চিত হয়ে রোববার ভোর সাড়ে ৫টায় মোহনপুর থেকে লঞ্চটি বরিশাল উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।

বন্দর কর্মকর্তা আরো জানান, যাত্রাপথে ইঞ্জিনের সাইলেন্সার থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে কোনো যাত্রী জরুরি সেবা ৯৯৯ নাম্বারে ফোন দেয়। লঞ্চটিতে পাঁচ শতাধিক যাত্রী ছিল। তবে যাত্রীদের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

এর আগে গত ২৩শে ডিসেম্বর রাতে ঢাকা থেকে বরগুনা যাওয়ার পথে অভিযান-১০ নামের একটি লঞ্চে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। এতে আগুনে পুড়ে ও পানিতে ডুবে প্রায় অর্ধশত যাত্রী প্রাণ হারান।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে লঞ্চে শুরু হয়েছে নাড়ির টানে বাড়ি ফেরা

যাত্রীবাহী লঞ্চে আগুন লাগার পর শঙ্কামুক্ত হয়ে চাঁদপুর ছেড়ে গেছে সুরভী-৯ লঞ্চ

আপডেট সময় : ০২:০২:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ জানুয়ারী ২০২২

নিজস্ব প্রতিনিধি : মেঘনা নদীতে যাত্রীবাহী লঞ্চে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। তবে আগুন লঞ্চে ছড়িয়ে পড়ার আগেই তা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছেন লঞ্চের কর্মীরা। খবর পেয়ে নৌ-ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

Model Hospital

শনিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে মতলব উত্তরের মোহনপুর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। আগুন লাগার পর শঙ্কামুক্ত হয়ে যাত্রী নিয়ে এমভি সুরভী-৯ নামের লঞ্চটি বরিশালের উদ্দেশ্যে ছেড়ে গিয়েছে।

শনিবার (৮ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১২টার দিকে চাঁদপুরের মতলব উত্তরের মোহনপুর মেঘনা নদীতে যাত্রীবাহী লঞ্চটি আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। তবে আগুন লঞ্চে ছড়িয়ে পড়ার আগেই তা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছেন লঞ্চের কর্মীরা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিআইডব্লিউটিএ এর চাঁদপুরের বন্দর কর্মকর্তা মো. কায়সারুল ইসলাম।

তিনি বলেন, লঞ্চটির ইঞ্জিন রুম থেকে আগুনের ধোয়া বের হতে দেখেন যাত্রীরা। এ নিয়ে তাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে কোন একজন যাত্রী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে সহযোগিতা চান। এর পরপরই পুলিশ মোহনপুর এলাকায় আসলে সুরভী-৯ লঞ্চটি ঘাটে আটকে রাখা হয়।

বিআইডব্লিউটিএর কর্মকর্তা আরও বলেন, লঞ্চের ইঞ্জিনে আগুন ধরার পর কিছু সময়ের মধ্যে তা নিভিয়ে ফেলতে সক্ষম হয় স্টাফরা। ফলে বড় ধরণের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে লঞ্চটি। সারারাত লঞ্চটি মোহনপুর এলাকায় নোঙর করে রাখা হয়। শঙ্কাুমুক্ত নিশ্চিত হয়ে রোববার ভোর সাড়ে ৫টায় মোহনপুর থেকে লঞ্চটি বরিশাল উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।

বন্দর কর্মকর্তা আরো জানান, যাত্রাপথে ইঞ্জিনের সাইলেন্সার থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। পরে কোনো যাত্রী জরুরি সেবা ৯৯৯ নাম্বারে ফোন দেয়। লঞ্চটিতে পাঁচ শতাধিক যাত্রী ছিল। তবে যাত্রীদের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

এর আগে গত ২৩শে ডিসেম্বর রাতে ঢাকা থেকে বরগুনা যাওয়ার পথে অভিযান-১০ নামের একটি লঞ্চে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। এতে আগুনে পুড়ে ও পানিতে ডুবে প্রায় অর্ধশত যাত্রী প্রাণ হারান।