ঢাকা ০৬:০৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কচুয়ায় ইউপি সদস্য মানিক মিয়ার মৃত্যু

মোঃ রাছেল : কচুয়া উপজেলার কড়ইয়া ইউনিয়নের বাসাবাড়িয়া গ্রামের ৩নং ওয়ার্ডের দুই দুই বারের সফল ইউপি সদস্য মোঃ মানিক মিয়া (৩৮) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি….রাজিউন)।

Model Hospital

রবিবার সকাল সাড়ে ৭টার ঢাকায় একটি হসপিাটালে শেষ নিশ^াস ত্যাগ করেন। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গতকাল শনিবার তাঁর বুকে ব্যাথা অনুভব করলে প্রথমে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে অবস্থা অবনতি দেখে তাকে ঢাকা রেফার করে। পরে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। রবিবার দুপুর ২টায় তার নিজ বাড়ি বাসাবাড়িয়া জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

মৃত্যুকালে স্ত্রী ও ২ ছেলে সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান। তাঁর অকাল মৃত্যুতে কচুয়ায় শোকের ছায়া নেমে আসে। কচুয়া সাংসদ ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশির , পৌর মেয়র নাজমুল আলম স্বপন, কড়ইয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল সালাম সওদাগর, সাবেক চেয়ারম্যান আহসান হাবিব জুয়েল তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

অপর দিকে শনিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের পিয়ন সুনীল চন্দ্র দাস (৫৮) মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যু কালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ১ মেয়ে সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান। তিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে ভুগে আসছিলেন। রবিবার দুপুরে পারিবারিক শ্মশানে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

ক্যাব চাঁদপুরের আয়োজনে বাজার পরিস্থিতি ও নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক মত বিনিময় সভা

কচুয়ায় ইউপি সদস্য মানিক মিয়ার মৃত্যু

আপডেট সময় : ০৩:১৩:০৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ মে ২০২২

মোঃ রাছেল : কচুয়া উপজেলার কড়ইয়া ইউনিয়নের বাসাবাড়িয়া গ্রামের ৩নং ওয়ার্ডের দুই দুই বারের সফল ইউপি সদস্য মোঃ মানিক মিয়া (৩৮) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি….রাজিউন)।

Model Hospital

রবিবার সকাল সাড়ে ৭টার ঢাকায় একটি হসপিাটালে শেষ নিশ^াস ত্যাগ করেন। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গতকাল শনিবার তাঁর বুকে ব্যাথা অনুভব করলে প্রথমে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে অবস্থা অবনতি দেখে তাকে ঢাকা রেফার করে। পরে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। রবিবার দুপুর ২টায় তার নিজ বাড়ি বাসাবাড়িয়া জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

মৃত্যুকালে স্ত্রী ও ২ ছেলে সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান। তাঁর অকাল মৃত্যুতে কচুয়ায় শোকের ছায়া নেমে আসে। কচুয়া সাংসদ ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশির , পৌর মেয়র নাজমুল আলম স্বপন, কড়ইয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল সালাম সওদাগর, সাবেক চেয়ারম্যান আহসান হাবিব জুয়েল তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

অপর দিকে শনিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের পিয়ন সুনীল চন্দ্র দাস (৫৮) মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যু কালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ১ মেয়ে সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান। তিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে দীর্ঘদিন ধরে ভুগে আসছিলেন। রবিবার দুপুরে পারিবারিক শ্মশানে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।