ঢাকা ১০:০৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুর সদরে হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক ১০১টি, লাইসেন্সবিহীন ১৫ টি

সাইদ হোসেন অপু চৌধুরী : লাইসেন্স নেই চাঁদপুরে অসংখ্য হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার রয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানই লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেনি। জেলায় তালিকার বাইরেও অসংখ্য হাসপাতাল ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার লাইসেন্স ছাড়া চলছে।

Model Hospital

চাঁদপুর সিভিল সার্জন সূত্রে জানা গেছে, চাঁদপুর সদরে বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক হচ্ছে ১০১টি। এরমধ্য লাইসেন্স বিহীন ১৫ টি। সোমবার চাঁদপুর সিভিল সার্জন মোহাম্মদ সাহাদাৎ হোসেন এই তথ্য জানিয়েছেন।

এদিকে অবৈধ প্রতিষ্ঠানগুলো রোগীদের সাথে বিভিন্ন অজুহাতে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। এছাড়াও বিভিন্ন দক্ষ চিকিৎসকের নাম ভাঙ্গিয়ে বিভিন্ন পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট দেওয়া হচ্ছে। যার ফলে সাধারণ মানুষ হয়রানির শিকার হচ্ছে এবং তারা সঠিক চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

লাইসেন্স বিহীন হাসপাতাল ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারগুলো হলো: আল নাহিয়ান ডায়াগনস্টিক সেন্টার, তিতাস ডায়াগনস্টিক সেন্টার, রিম টাচ্ ডায়াগনস্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টার, মেডি-এইডস ডায়াগনস্টিক সেন্টার, আল-রাফি ডায়াগনস্টিক সেন্টার, মাতৃছায়া হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার, নিউ মডার্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টার, মেরিন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার, হলি ফ্যামিলি ডায়াগনস্টিক সেন্টার, চাঁদপুর জমিন হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার, প্রাইম ডায়াগনস্টিক সেন্টার, মেডি কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টার, লাজ ডক্টরস কনসালটেশন সেন্টার।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষণা শ্যামলী খানের

চাঁদপুর সদরে হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক ১০১টি, লাইসেন্সবিহীন ১৫ টি

আপডেট সময় : ০৭:৩২:০৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ মে ২০২২

সাইদ হোসেন অপু চৌধুরী : লাইসেন্স নেই চাঁদপুরে অসংখ্য হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার রয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানই লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেনি। জেলায় তালিকার বাইরেও অসংখ্য হাসপাতাল ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার লাইসেন্স ছাড়া চলছে।

Model Hospital

চাঁদপুর সিভিল সার্জন সূত্রে জানা গেছে, চাঁদপুর সদরে বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনষ্টিক হচ্ছে ১০১টি। এরমধ্য লাইসেন্স বিহীন ১৫ টি। সোমবার চাঁদপুর সিভিল সার্জন মোহাম্মদ সাহাদাৎ হোসেন এই তথ্য জানিয়েছেন।

এদিকে অবৈধ প্রতিষ্ঠানগুলো রোগীদের সাথে বিভিন্ন অজুহাতে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। এছাড়াও বিভিন্ন দক্ষ চিকিৎসকের নাম ভাঙ্গিয়ে বিভিন্ন পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট দেওয়া হচ্ছে। যার ফলে সাধারণ মানুষ হয়রানির শিকার হচ্ছে এবং তারা সঠিক চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

লাইসেন্স বিহীন হাসপাতাল ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারগুলো হলো: আল নাহিয়ান ডায়াগনস্টিক সেন্টার, তিতাস ডায়াগনস্টিক সেন্টার, রিম টাচ্ ডায়াগনস্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টার, মেডি-এইডস ডায়াগনস্টিক সেন্টার, আল-রাফি ডায়াগনস্টিক সেন্টার, মাতৃছায়া হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার, নিউ মডার্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টার, মেরিন হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার, হলি ফ্যামিলি ডায়াগনস্টিক সেন্টার, চাঁদপুর জমিন হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার, প্রাইম ডায়াগনস্টিক সেন্টার, মেডি কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টার, লাজ ডক্টরস কনসালটেশন সেন্টার।