ঢাকা ০৪:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মতলব উত্তরে দেবর কর্তৃক ভাবিকে মারধরের ঘটনায় থানায় অভিযোগ

মতলব উত্তর ব্যুরো : চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার জামালপুর গ্রামের লিটন সরকারের স্ত্রী মিনারা আক্তার (৩৪) কে মারধর করে গুরুতর জখম করে তারই আপন দেবর রিপন সরকার। শুধু তাই নয় বককাচি দিয়ে মিনারার হাত কেটেও মারাত্মক জখম করেছে। গত ৫ জুলাই বিকালে তার নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

Model Hospital

পরে বুধবার মিনারা বাদী হয়ে মতলব উত্তর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মিনারার স্বামী লিটন সরকার ঢাকাতে চাকুরী করে। তিনি তিন সন্তান নিয়ে বাড়িতে থাকেন। উদ্দেশ্য প্রনোদীত ভাবে তার দেবর বিভিন্ন সময় মিনারার সন্তানদেরকে মারধর করে। এতে বাধা দেওয়া মিনারাকেও পূর্বে একাধিকবার মারধর করেছে তার দেবর। এই নিয়ে একাধিক বার শালিশ বৈঠক বসলেও কোন তোয়াক্কা করেনি দেবর রিপন। একই বিষয় নিয়ে গত ৫ জুলাই বিকালে মিনারাকে গালমন্দ করে।

এতে প্রতিবাদ করলে রিপন ঘরে প্রবেশ করে মিরারাকে চুলের মুঠি ধরে এলোপাথারী চর থাপ্পর মারে এবং নাকে মুখে জখম করে মাটিতে ফেলে দেয়। রিপনের হাতে থাকা কাঠের লাঠি দিয়ে হাত পা সহ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে পিটিয়ে আহত করে। এ পর্যায়ে বককাচি দিয়ে বা হাতের কবজিতে কোপ দিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। তাকের টেনে হিচরে শ্লীলতাহানি করে। এবং মিনারাকে ও তার সন্তানদেরকে খুন করে লাশ গুম করবে বলেও হুমকি দেয় দেবর রিপন। মিনারার ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে মতলব উত্তর কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্য ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়।

বাদী মিনারা বলেন, আমাকে বিগত দিন ধরে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করে আসছে। কিছু বলতে গেলেই গালমন্দ করে আর মারধর করে। এলাকার শালিশ বৈঠকে কোন সমাধান মানে না। সর্বশেষ এই ঘটনায় আমাকে মারধর করেছে। কোন উপায়ন্তর না পেয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি। এদিকে ঘটনার পর থেকে রিপন বাড়ি নেই।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

শহীদ মিনারে শিশু-কিশোরা, শহীদদের ফুলেল শ্রদ্ধায় হৃদয়ে জাগরন সৃষ্টি

মতলব উত্তরে দেবর কর্তৃক ভাবিকে মারধরের ঘটনায় থানায় অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৩:০৬:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ জুলাই ২০২২

মতলব উত্তর ব্যুরো : চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার জামালপুর গ্রামের লিটন সরকারের স্ত্রী মিনারা আক্তার (৩৪) কে মারধর করে গুরুতর জখম করে তারই আপন দেবর রিপন সরকার। শুধু তাই নয় বককাচি দিয়ে মিনারার হাত কেটেও মারাত্মক জখম করেছে। গত ৫ জুলাই বিকালে তার নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

Model Hospital

পরে বুধবার মিনারা বাদী হয়ে মতলব উত্তর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মিনারার স্বামী লিটন সরকার ঢাকাতে চাকুরী করে। তিনি তিন সন্তান নিয়ে বাড়িতে থাকেন। উদ্দেশ্য প্রনোদীত ভাবে তার দেবর বিভিন্ন সময় মিনারার সন্তানদেরকে মারধর করে। এতে বাধা দেওয়া মিনারাকেও পূর্বে একাধিকবার মারধর করেছে তার দেবর। এই নিয়ে একাধিক বার শালিশ বৈঠক বসলেও কোন তোয়াক্কা করেনি দেবর রিপন। একই বিষয় নিয়ে গত ৫ জুলাই বিকালে মিনারাকে গালমন্দ করে।

এতে প্রতিবাদ করলে রিপন ঘরে প্রবেশ করে মিরারাকে চুলের মুঠি ধরে এলোপাথারী চর থাপ্পর মারে এবং নাকে মুখে জখম করে মাটিতে ফেলে দেয়। রিপনের হাতে থাকা কাঠের লাঠি দিয়ে হাত পা সহ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে পিটিয়ে আহত করে। এ পর্যায়ে বককাচি দিয়ে বা হাতের কবজিতে কোপ দিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। তাকের টেনে হিচরে শ্লীলতাহানি করে। এবং মিনারাকে ও তার সন্তানদেরকে খুন করে লাশ গুম করবে বলেও হুমকি দেয় দেবর রিপন। মিনারার ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে মতলব উত্তর কমপ্লেক্সে স্বাস্থ্য ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়।

বাদী মিনারা বলেন, আমাকে বিগত দিন ধরে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করে আসছে। কিছু বলতে গেলেই গালমন্দ করে আর মারধর করে। এলাকার শালিশ বৈঠকে কোন সমাধান মানে না। সর্বশেষ এই ঘটনায় আমাকে মারধর করেছে। কোন উপায়ন্তর না পেয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি। এদিকে ঘটনার পর থেকে রিপন বাড়ি নেই।