ঢাকা ১০:৪০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শতবর্ষে মাতৃপীঠ -এর লোগো ও স্মরণকথার মোড়ক উন্মোচন করলেন শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি : চাঁদপুরের ঐতিহ্যবাহী নারী শিক্ষার প্রতিষ্ঠান মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য আয়োজন কার্যক্রম অনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হয়েছে।
এ উপলক্ষে ১৩ অক্টোবর বৃহস্পতিবার বিকেলে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে উৎসবমুখর আয়োজনে ‘শতবর্ষে মাতৃপীঠ’ এর লোগো এবং স্মরণকথার মোড়ক উন্মোচন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে লোগো এবং স্মরণকথার মোড়ক উন্মোচন করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি।
এসময় তিনি বিদ্যালয়ের প্রাক্তণ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে কেক কেটে শতবর্ষ উদযাপন কার্যক্রমের শুভ সূচনা করেন।

Model Hospital

শিক্ষামন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, একটি বিদ্যালয় শতবর্ষ টিকে থাকা অনেক গর্বের বিষয়। শতবর্ষের মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় চাঁদপুরের গর্ব। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির অনেক শিক্ষার্থী দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চাঁদপুরে সুনাম বয়ে বেড়ায়।
আমার মা এই বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেছেন।

এই প্রতিষ্ঠানটি সরকারী করনে আমার পিতার অনেক অবদান রয়েছে। যার ফলে এই বিদ্যালয়টি আমার অন্যরকম আবেগ ও ভালোবাসার জায়গা।

ডা. দীপু মনি বলেন, এখনো যারা এই বিদ্যালয়ের অগ্রযাত্রার সাথে জড়িয়ে আছেন, তাদেরকে আমি ব্যক্তিগতভাবে অন্তরের অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ জানাই। বিদ্যালয়ের শতবর্ষ উদযাপনের কার্যক্রম চলছে। যেখানে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা ঘটবে। যারা এ আয়োজনের উদ্যোগতা তাদের সকলকে আমি ধন্যবাদ জানাই। আমি সব সময় এ প্রতিষ্ঠানটির উত্তর উত্তর সাফল্য কামনা করি।

মাতৃপীঠ সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রানকৃষ্ণ দেবনাথের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, শতবর্ষ উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব মনিরা আক্তার।

শতবর্ষী উদযাপন উপস্থাপনা উপ-কমিটির সদস্য সচিব রোটারিয়ান ডা. রাশেদা আক্তার ও প্রচার উপ-কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক সায়েরা কাকলীর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) বশির আহমেদ, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল, জেলা শিক্ষা অফিসার জাহাঙ্গীর আলস, বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক নূর হোসেন খান, ফজিলাতুন্নাহার বেগম, শতবর্ষী উদযাপন কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী আফরোজজাহান আখন্দ প্রমুখ।

এসময় শতবর্ষে মাতৃপীঠ উদযাপন কমিটি ও বিভিন্ন উপ-কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ibn sina diabeties
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

নিজের বলার মতো একটা গল্প ফাউন্ডেশন’র চাঁদপুর জেলা শাখার উদ্যোক্তা মিটআপ

শতবর্ষে মাতৃপীঠ -এর লোগো ও স্মরণকথার মোড়ক উন্মোচন করলেন শিক্ষামন্ত্রী

আপডেট সময় : ০১:০৮:০৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ অক্টোবর ২০২২
নিজস্ব প্রতিনিধি : চাঁদপুরের ঐতিহ্যবাহী নারী শিক্ষার প্রতিষ্ঠান মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য আয়োজন কার্যক্রম অনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হয়েছে।
এ উপলক্ষে ১৩ অক্টোবর বৃহস্পতিবার বিকেলে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে উৎসবমুখর আয়োজনে ‘শতবর্ষে মাতৃপীঠ’ এর লোগো এবং স্মরণকথার মোড়ক উন্মোচন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে লোগো এবং স্মরণকথার মোড়ক উন্মোচন করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি।
এসময় তিনি বিদ্যালয়ের প্রাক্তণ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে কেক কেটে শতবর্ষ উদযাপন কার্যক্রমের শুভ সূচনা করেন।

Model Hospital

শিক্ষামন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, একটি বিদ্যালয় শতবর্ষ টিকে থাকা অনেক গর্বের বিষয়। শতবর্ষের মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় চাঁদপুরের গর্ব। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির অনেক শিক্ষার্থী দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চাঁদপুরে সুনাম বয়ে বেড়ায়।
আমার মা এই বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেছেন।

এই প্রতিষ্ঠানটি সরকারী করনে আমার পিতার অনেক অবদান রয়েছে। যার ফলে এই বিদ্যালয়টি আমার অন্যরকম আবেগ ও ভালোবাসার জায়গা।

ডা. দীপু মনি বলেন, এখনো যারা এই বিদ্যালয়ের অগ্রযাত্রার সাথে জড়িয়ে আছেন, তাদেরকে আমি ব্যক্তিগতভাবে অন্তরের অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ জানাই। বিদ্যালয়ের শতবর্ষ উদযাপনের কার্যক্রম চলছে। যেখানে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা ঘটবে। যারা এ আয়োজনের উদ্যোগতা তাদের সকলকে আমি ধন্যবাদ জানাই। আমি সব সময় এ প্রতিষ্ঠানটির উত্তর উত্তর সাফল্য কামনা করি।

মাতৃপীঠ সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রানকৃষ্ণ দেবনাথের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, শতবর্ষ উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব মনিরা আক্তার।

শতবর্ষী উদযাপন উপস্থাপনা উপ-কমিটির সদস্য সচিব রোটারিয়ান ডা. রাশেদা আক্তার ও প্রচার উপ-কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক সায়েরা কাকলীর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) বশির আহমেদ, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল, জেলা শিক্ষা অফিসার জাহাঙ্গীর আলস, বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক নূর হোসেন খান, ফজিলাতুন্নাহার বেগম, শতবর্ষী উদযাপন কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী আফরোজজাহান আখন্দ প্রমুখ।

এসময় শতবর্ষে মাতৃপীঠ উদযাপন কমিটি ও বিভিন্ন উপ-কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ibn sina diabeties