ঢাকা ০৪:০২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মতলবে বিএনপি নেতা লাভলু’র হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

মনিরুল ইসলাম মনির : চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ফতেপুর পশ্চিম ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সলিমুল্লাহ লাভলুর হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

রোববার দুপুরে উপজেলার মান্দারতলী বাজারে এলাকাবাসীর উদ্যোগে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।
মানববন্ধনে সলিমুল্লাহ লাভলু হত্যায় জড়িতদের চিহ্নিত করে ফাঁসির দাবি জানান এলাকাবাসী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সামছুল হক মাষ্টার, আবুল হোসেন খান, ছিদ্দিকুর রহমান, হাসিবুর রহমান. মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ’সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, লাভলু ৭নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য ও ফতেপুর পশ্চিম ইউনিয়নের বিএনপি সাধারণ সম্পাদক। রাতের অন্ধকারে তাকে হত্যা করে রাস্তার পাশে মরদেহ ফেলে রাখা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার ডানকানের নিচে আঘাতের চিহ্ন ছিল।

নিহতের স্কুলপড়ুয়া ছেলে লাবিব জানায়, ১ নভেম্বর বিকেলে স্কুল ছুটি হওয়ার পর তাদের গ্রামের শিপন তার (লাবিব) পায়ের ওপর মোটরসাইকেল তুলে দেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে তর্ক হয়। লাভলু বিষয়টি জানার পর শিপনকে জিজ্ঞেস করলে বেশ তর্ক বিতর্ক হয়। পরে শিপন (২১) ও তার দুই বন্ধু রাকিব (২২) এবং তুহিন (২০) মিলে লাভলুর বাড়িতে এসে আজকেই খেলা দেখাবে বলে হুমকি দেন। তাই লাভলু হত্যায় তারা জড়িত বলে সন্দেহ করছে নিহতের পরিবার।

২ নভেম্বর ভোরে নিহত সলিমুল্লাহ লাভলুর বাড়ির পাশের একটি বাগান থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুর শহরে আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে দাঁড়ালো অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন

মতলবে বিএনপি নেতা লাভলু’র হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

আপডেট সময় : ১২:৫২:৩১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ নভেম্বর ২০২২

মনিরুল ইসলাম মনির : চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ফতেপুর পশ্চিম ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সলিমুল্লাহ লাভলুর হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

রোববার দুপুরে উপজেলার মান্দারতলী বাজারে এলাকাবাসীর উদ্যোগে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।
মানববন্ধনে সলিমুল্লাহ লাভলু হত্যায় জড়িতদের চিহ্নিত করে ফাঁসির দাবি জানান এলাকাবাসী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সামছুল হক মাষ্টার, আবুল হোসেন খান, ছিদ্দিকুর রহমান, হাসিবুর রহমান. মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ’সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, লাভলু ৭নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য ও ফতেপুর পশ্চিম ইউনিয়নের বিএনপি সাধারণ সম্পাদক। রাতের অন্ধকারে তাকে হত্যা করে রাস্তার পাশে মরদেহ ফেলে রাখা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার ডানকানের নিচে আঘাতের চিহ্ন ছিল।

নিহতের স্কুলপড়ুয়া ছেলে লাবিব জানায়, ১ নভেম্বর বিকেলে স্কুল ছুটি হওয়ার পর তাদের গ্রামের শিপন তার (লাবিব) পায়ের ওপর মোটরসাইকেল তুলে দেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে তর্ক হয়। লাভলু বিষয়টি জানার পর শিপনকে জিজ্ঞেস করলে বেশ তর্ক বিতর্ক হয়। পরে শিপন (২১) ও তার দুই বন্ধু রাকিব (২২) এবং তুহিন (২০) মিলে লাভলুর বাড়িতে এসে আজকেই খেলা দেখাবে বলে হুমকি দেন। তাই লাভলু হত্যায় তারা জড়িত বলে সন্দেহ করছে নিহতের পরিবার।

২ নভেম্বর ভোরে নিহত সলিমুল্লাহ লাভলুর বাড়ির পাশের একটি বাগান থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।