ঢাকা ১১:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ইউপি চেয়ারম্যানের আদেশ উপেক্ষিত; মতলব উত্তরে জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা

মতলব উত্তর ব্যুরো : মতলব উত্তর উপজেলার বাগানবাড়ি ইউনিয়নের গালিমখাঁ মৌজায় ৩১ শতাংশ জমি জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

Model Hospital

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বাগানবাড়ি ইউনিয়নের গালিমা খাঁ মৌজার ৪০৩নং খতিয়ানের ২০৫৬ দাগের ৩১শতাংশ নাল ভূমি জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা করছে গালিমা খাঁ গ্রামের মৃত. জুনাব আলীর ছেলে মো. জহিরুল ইসলাম।

দূর্গাপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম মিজির ছেলে মো. সোয়েব হোসেন অভিযোগ করেন, এ জমিটি আমার নানী মঞ্জুরা খাতুনের। আমার নানী মঞ্জুরা খাতুন ২০০৪ সালে মৃত্যুবরণ করায় এ জমি আমার মা সালমা বেগম’সহ আরো চার খালা মালিক হন।

জহিরুল ইসলাম এ জমি মালিকানার কোন ওয়ারিশও নয়। তিনি জোরপূর্বক রাতের আঁধারে জমির আইল ও সীমানা পিলার তুলে ফেলেন বলে অভিযোগ করেন সোয়েব হোসেন।

তিনি আরো বলেন, জহিরুল ইসলাম জমি দখলের চেষ্টা করছে জানতে পেরে বাগানবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর একটি আবেদন করেন। এরই প্রেক্ষিতে ২২ সেপ্টেম্বর ইউনিয়ন পরিষদে ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল মামুন শালিসে বসেন।

এ সময় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফয়েজ আহমদ’সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। ওই সালিশে মো. সোয়েব হোসেন জমির স্বপক্ষে কাগজপত্র উপস্থাপন করেন। কিন্তু প্রতিপক্ষ মো. জহিরুল ইসলাম কোন কাগজপত্র দেখাতে না পেরে ২২ নভেম্বর পর্যন্ত সময় প্রার্থনা করেন। তিনি সময় নিয়ে জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা করছেন।

জহিরুল ইসলাম এর ব্যবহৃত (০১৭১৪-৩৩৯০২৯) মুঠোফোনে কয়েকবার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা যায়নি। তাই তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

নিজের বলার মতো একটা গল্প ফাউন্ডেশন’র চাঁদপুর জেলা শাখার উদ্যোক্তা মিটআপ

ইউপি চেয়ারম্যানের আদেশ উপেক্ষিত; মতলব উত্তরে জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা

আপডেট সময় : ০১:০৩:৪৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ নভেম্বর ২০২২

মতলব উত্তর ব্যুরো : মতলব উত্তর উপজেলার বাগানবাড়ি ইউনিয়নের গালিমখাঁ মৌজায় ৩১ শতাংশ জমি জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

Model Hospital

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বাগানবাড়ি ইউনিয়নের গালিমা খাঁ মৌজার ৪০৩নং খতিয়ানের ২০৫৬ দাগের ৩১শতাংশ নাল ভূমি জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা করছে গালিমা খাঁ গ্রামের মৃত. জুনাব আলীর ছেলে মো. জহিরুল ইসলাম।

দূর্গাপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম মিজির ছেলে মো. সোয়েব হোসেন অভিযোগ করেন, এ জমিটি আমার নানী মঞ্জুরা খাতুনের। আমার নানী মঞ্জুরা খাতুন ২০০৪ সালে মৃত্যুবরণ করায় এ জমি আমার মা সালমা বেগম’সহ আরো চার খালা মালিক হন।

জহিরুল ইসলাম এ জমি মালিকানার কোন ওয়ারিশও নয়। তিনি জোরপূর্বক রাতের আঁধারে জমির আইল ও সীমানা পিলার তুলে ফেলেন বলে অভিযোগ করেন সোয়েব হোসেন।

তিনি আরো বলেন, জহিরুল ইসলাম জমি দখলের চেষ্টা করছে জানতে পেরে বাগানবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর একটি আবেদন করেন। এরই প্রেক্ষিতে ২২ সেপ্টেম্বর ইউনিয়ন পরিষদে ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল মামুন শালিসে বসেন।

এ সময় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফয়েজ আহমদ’সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। ওই সালিশে মো. সোয়েব হোসেন জমির স্বপক্ষে কাগজপত্র উপস্থাপন করেন। কিন্তু প্রতিপক্ষ মো. জহিরুল ইসলাম কোন কাগজপত্র দেখাতে না পেরে ২২ নভেম্বর পর্যন্ত সময় প্রার্থনা করেন। তিনি সময় নিয়ে জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা করছেন।

জহিরুল ইসলাম এর ব্যবহৃত (০১৭১৪-৩৩৯০২৯) মুঠোফোনে কয়েকবার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা যায়নি। তাই তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।