ঢাকা ০৬:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রামপুরায় নিহত সেই স্কুলছাত্রের পরিবারের পাশে ডিএনসিসি

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, লাইসেন্স ছাড়া কোনো গাড়ি রাস্তায় নামানো যাবে না। ঢাকার রাস্তায় কোনো অবৈধ গাড়ি চলতে দেওয়া হবে না।

Model Hospital

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) রাজধানীর রামপুরায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত স্কুলছাত্র মাইনুদ্দীন ইসলামের পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাত শেষে ডিএনসিসি মেয়র এ কথা বলেন।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা কারও কাম্য নয়, রাস্তায় চালকদের অধিকতর সতর্কতার সাথে গাড়ি চালাতে হবে। লাইসেন্স ছাড়া কোনো গাড়ি রাস্তায় নামানো যাবে না, ঢাকার রাস্তায় কোনো অবৈধ গাড়ি চলতে দেয়া হবে না।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ডিএনসিসির সকল গাড়িতেই আধুনিক জিপিএস ও ড্যাস কামেরা স্থাপন এবং নিয়মিত মনিটরিং করা হবে।

আতিকুল ইসলাম বলেন, মানবিক দায়িত্ববোধ থেকেই সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত স্কুলছাত্রের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে ডিএনসিসি। কোনো কিছুর বিনিময়েই নিহত স্কুলছাত্রের পরিবারের ক্ষতিপূরণ দেওয়া সম্ভব নয়, মানবিক সহায়তা হিসেবে পরিবারটিকে নগদ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের একমাত্র আয়ের উৎস একটি ছোট্ট চায়ের দোকানকে ট্রেড লাইসেন্স প্রদানের মাধ্যমে বৈধতা দেওয়া হয়েছে এবং খুব শিগগিরই দোকানটিকে ডিএনসিসির পক্ষ থেকে সুসজ্জিত করে দেওয়া হবে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

কি হবে আর ছবি তুলে!

রামপুরায় নিহত সেই স্কুলছাত্রের পরিবারের পাশে ডিএনসিসি

আপডেট সময় : ০৪:০১:১৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২১

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, লাইসেন্স ছাড়া কোনো গাড়ি রাস্তায় নামানো যাবে না। ঢাকার রাস্তায় কোনো অবৈধ গাড়ি চলতে দেওয়া হবে না।

Model Hospital

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) রাজধানীর রামপুরায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত স্কুলছাত্র মাইনুদ্দীন ইসলামের পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাত শেষে ডিএনসিসি মেয়র এ কথা বলেন।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা কারও কাম্য নয়, রাস্তায় চালকদের অধিকতর সতর্কতার সাথে গাড়ি চালাতে হবে। লাইসেন্স ছাড়া কোনো গাড়ি রাস্তায় নামানো যাবে না, ঢাকার রাস্তায় কোনো অবৈধ গাড়ি চলতে দেয়া হবে না।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ডিএনসিসির সকল গাড়িতেই আধুনিক জিপিএস ও ড্যাস কামেরা স্থাপন এবং নিয়মিত মনিটরিং করা হবে।

আতিকুল ইসলাম বলেন, মানবিক দায়িত্ববোধ থেকেই সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত স্কুলছাত্রের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে ডিএনসিসি। কোনো কিছুর বিনিময়েই নিহত স্কুলছাত্রের পরিবারের ক্ষতিপূরণ দেওয়া সম্ভব নয়, মানবিক সহায়তা হিসেবে পরিবারটিকে নগদ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের একমাত্র আয়ের উৎস একটি ছোট্ট চায়ের দোকানকে ট্রেড লাইসেন্স প্রদানের মাধ্যমে বৈধতা দেওয়া হয়েছে এবং খুব শিগগিরই দোকানটিকে ডিএনসিসির পক্ষ থেকে সুসজ্জিত করে দেওয়া হবে।