ঢাকা ০২:১৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
চাঁদপুর লেখক পরিষদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

লেখকদের বাঁচিয়ে রাখতে হলে তাদের প্রকাশিত বই কিনতে হবে : এডিসি মোস্তাফিজুর রহমান

“সাহিত্য রচনায় সভ্যতার পথ বুনি” এ প্রতিপাদ্যে চাঁদপুর লেখক পরিষদ দুই দশকে পদার্পন করেছে। ২০০৫ সালের ৩০ জানুয়ারি এর আনুষ্ঠানিক পথ চলা শুরু হয়।
সংগঠনের ১৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সাহিত্যপাঠ, আলোচনা সভা, স্থানীয় পত্রিকাগুলোতে ক্রোড়পত্র প্রকাশ ও দেয়ালিকা প্রকাশ ও কেককাটার আয়োজন করা হয়।
সাহিত্যপাঠ ও আলোচনা সভা ৩০ জানুয়ারি, মঙ্গলবার বিকাল ৫ টায় সাহিত্য একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হয়।
চাঁদপুর লেখক পরিষদের সভাপতি ও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সচিব কবি ও প্রাবন্ধিক জাহাঙ্গীর হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবৃত্তিশিল্পী খোকন চন্দ্র মজুমদারের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( শিক্ষা ও আইসিটি) মো. মোস্তাফিজুর রহমান।
তিনি বলেন, সাহিত্য সমাজকে সুন্দর করে। সাহিত্য লিখতে হলে পড়তে হয় বেশি। একজন লেখক পড়া ছেড়ে দিলো মানেই লেখালেখি ছেড়ে দিলো না। লেখকেরও ক্ষুধা আছে। তাই তাকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে লেখকের বই কিনতে হবে। আবার লেখক যদি কারও দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় তার সাহিত্যও নিয়ন্ত্রিত হয়ে যায়, সেখানেই তিনি থেমে যাবেন।
তিনি বলেন, চাঁদপুরে সাহিত্য প্রেমিক লোক থাকার কারণেই সাহিত্য একাডেমি ও চাঁদপুর লেখক পরিষদ গড়ে উঠেছে। বিশ বছর ধরে চাঁদপুর লেখক পরিষদ টিকে আছে এটা একটা গর্বের বিষয়। তাই চাঁদপুর লেখক পরিষদের সাথে সম্পৃক্ত সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। সমাজের প্রয়োজনেই সাহিত্যকর্ম এগিয়ে যাক-এটাই কামনা করছি।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাহিত্যে একাডেমির এডহক কমিটির সদস্য সচিব কবি ও প্রাবন্ধিক শাহাদাত হোসেন শান্ত।
অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সাবেক সভাপতি ও নজরুল গবেষক বীরমুক্তিযোদ্ধা ফতেউল বারী রাজা, আবৃত্তিশিল্পী অধ্যাপক দুলাল চন্দ্র দাস, সংগঠনের সম্মানিত সদস্য অ্যাড. শীতল ঘোষ ও আবদুল গনি। কার্যকরি সদস্য অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা খান, সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য জসীম মেহেদী, চাঁদপুর লেখক পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক এনকে সুমন পাটওয়ারী।
কবিতা পাঠ করেন, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক খোকন চন্দ্র মজুমদার, কার্যকরি সদস্য মিতা ঘোষ, সদস্য হাছিনুর আকরাম ও সেঁজুতি সাহা।
মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষক সমিতি সদর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন ঢালী, নারী উদ্যোক্তা আয়েশা আক্তার মুন্নি, চাঁদপুর লেখক পরিষদের দেয়ালিকা ‘সময়ের ডাক’ এর সম্পাদক এমটি ইসলাম তাপু ও প্রকাশক পাপ্পু কুমার দত্ত, প্রচার সম্পাদক সাইফুল খান রাজিব, পাঠাগার সম্পাদক জি এম মহসীন, সংগঠনের কার্যকরি সদস্য অধ্যাপক হাফিজুর রহমান, ফাহিমা জাহান ও সোহেল পাটওয়ারী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

মতলব উত্তরে কাপ-পিরিচ প্রতীকে উঠান বৈঠক ও ব্যাপক গণসংযোগ

চাঁদপুর লেখক পরিষদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

লেখকদের বাঁচিয়ে রাখতে হলে তাদের প্রকাশিত বই কিনতে হবে : এডিসি মোস্তাফিজুর রহমান

আপডেট সময় : ০৮:৪৮:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৪
“সাহিত্য রচনায় সভ্যতার পথ বুনি” এ প্রতিপাদ্যে চাঁদপুর লেখক পরিষদ দুই দশকে পদার্পন করেছে। ২০০৫ সালের ৩০ জানুয়ারি এর আনুষ্ঠানিক পথ চলা শুরু হয়।
সংগঠনের ১৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সাহিত্যপাঠ, আলোচনা সভা, স্থানীয় পত্রিকাগুলোতে ক্রোড়পত্র প্রকাশ ও দেয়ালিকা প্রকাশ ও কেককাটার আয়োজন করা হয়।
সাহিত্যপাঠ ও আলোচনা সভা ৩০ জানুয়ারি, মঙ্গলবার বিকাল ৫ টায় সাহিত্য একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হয়।
চাঁদপুর লেখক পরিষদের সভাপতি ও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সচিব কবি ও প্রাবন্ধিক জাহাঙ্গীর হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবৃত্তিশিল্পী খোকন চন্দ্র মজুমদারের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( শিক্ষা ও আইসিটি) মো. মোস্তাফিজুর রহমান।
তিনি বলেন, সাহিত্য সমাজকে সুন্দর করে। সাহিত্য লিখতে হলে পড়তে হয় বেশি। একজন লেখক পড়া ছেড়ে দিলো মানেই লেখালেখি ছেড়ে দিলো না। লেখকেরও ক্ষুধা আছে। তাই তাকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে লেখকের বই কিনতে হবে। আবার লেখক যদি কারও দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় তার সাহিত্যও নিয়ন্ত্রিত হয়ে যায়, সেখানেই তিনি থেমে যাবেন।
তিনি বলেন, চাঁদপুরে সাহিত্য প্রেমিক লোক থাকার কারণেই সাহিত্য একাডেমি ও চাঁদপুর লেখক পরিষদ গড়ে উঠেছে। বিশ বছর ধরে চাঁদপুর লেখক পরিষদ টিকে আছে এটা একটা গর্বের বিষয়। তাই চাঁদপুর লেখক পরিষদের সাথে সম্পৃক্ত সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। সমাজের প্রয়োজনেই সাহিত্যকর্ম এগিয়ে যাক-এটাই কামনা করছি।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাহিত্যে একাডেমির এডহক কমিটির সদস্য সচিব কবি ও প্রাবন্ধিক শাহাদাত হোসেন শান্ত।
অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সাবেক সভাপতি ও নজরুল গবেষক বীরমুক্তিযোদ্ধা ফতেউল বারী রাজা, আবৃত্তিশিল্পী অধ্যাপক দুলাল চন্দ্র দাস, সংগঠনের সম্মানিত সদস্য অ্যাড. শীতল ঘোষ ও আবদুল গনি। কার্যকরি সদস্য অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা খান, সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য জসীম মেহেদী, চাঁদপুর লেখক পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক এনকে সুমন পাটওয়ারী।
কবিতা পাঠ করেন, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক খোকন চন্দ্র মজুমদার, কার্যকরি সদস্য মিতা ঘোষ, সদস্য হাছিনুর আকরাম ও সেঁজুতি সাহা।
মাধ্যমিক সহকারী শিক্ষক সমিতি সদর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন ঢালী, নারী উদ্যোক্তা আয়েশা আক্তার মুন্নি, চাঁদপুর লেখক পরিষদের দেয়ালিকা ‘সময়ের ডাক’ এর সম্পাদক এমটি ইসলাম তাপু ও প্রকাশক পাপ্পু কুমার দত্ত, প্রচার সম্পাদক সাইফুল খান রাজিব, পাঠাগার সম্পাদক জি এম মহসীন, সংগঠনের কার্যকরি সদস্য অধ্যাপক হাফিজুর রহমান, ফাহিমা জাহান ও সোহেল পাটওয়ারী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।