ঢাকা ০৮:৩৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মতলব উত্তরে জায়গা-জমি সংক্রান্ত বিষয়ে প্রবাসীকে হয়রানির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার কলেজ সুজাতপুর গ্রামে জায়গা-জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেড় ধরে এক প্রবাসীকে হয়রানির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছেন প্রবাসী নাছির উদ্দিন প্রধান।
১০ ফেব্রুয়ারী দুপুরে সুজাতপুর গ্রামে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তাকে মামলা হামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ তোলেন।
নাছির উদ্দিন প্রধান বলেন, আমি সাব কবলা মুলে আরোজা বেগম গং এর কাছ থেকে ১ শতাংশ এবং হারুনুর রশিদ গংদের কাছ থেকে ১.৫ শতাংশ মোট ২.৫ শতাংশ জায়গা কিনেছি। ওই জায়গার আমি দলিল মুলে মালিক। কিন্তু আরোজা বেগমের শরীক সেলিম ও তার স্ত্রী রত্না বেগম। তারা জায়গার মালিক না হয়েও আমার জায়গা দখল করতে চায়। আমরা বাঁধা দিলে তারা রত্না বেগম লোকজন নিয়ে এসে আমার ও আমার পরিবারের উপর হামলা করে।
শুধু তাই নয় তারা আমাদেরকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলা দায়ের করে আমাকে ও আমার পরিবারকে হয়রানি করছে। আমি টাকা দিয়ে জায়গা কিনেছি। আমি আইন ও প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু বিচার চাই।
নাছির উদ্দিনের ভাই ইসলামাবাদ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান বলেন, আমার ভাই নাছির উদ্দিন একজন প্রবাসী। তার ছেলে একজন বিজিবি সদস্য। তাদেরকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। আমার ভাই টাকা দিয়ে জায়গা কিনেছে।
এখানে আমাদের কোন দোষ নেই। আমি নিজে যুবলীগ করি কেন, সেটা তারা সহ্য করতে পারছে না। আমাদেরকে বিভিন্ন ভাবে হামলা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।
রত্না বেগমের ভাসুর আঃ রশিদ মিন্টু ও দেবর হারুনুর রশিদ বলেন, জায়গা বিক্রি করার আগে আমাদের সকল শরীককে জিজ্ঞেস করেছি। কেউ কিনবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। আমাদের চিকিৎসার জন্য টাকার দরকার তাই নাছির উদ্দিনের কাছে জায়গা বিক্রি করেছি। কিন্তু সেলিম ও তার স্ত্রী রত্না বেগম আমাদেরকেও হামলা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য সোলেমান পাটোয়ারী বলেন, নাছির উদ্দিন প্রধান টাকা দিয়ে জয়গা কিনেছে। এখানে তার কোন ভুল আমরা দেখছি না। কিন্তু যারা বিক্রি করেছে তাদের শরীকদের মধ্যে ঝামেলা থাকতে পারে। তাদেরকে বলছি আপনারা বসে সমাধান করেন। কিন্তু আমার কথা না শুনে উল্টা আমাকেই আক্রমন করেছে। এই ঘটনাটি একটি দুঃখজনক ঘটনা।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে মাদরাসাতু মুহাম্মদ সাঃ উদ্বোধন

মতলব উত্তরে জায়গা-জমি সংক্রান্ত বিষয়ে প্রবাসীকে হয়রানির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

আপডেট সময় : ০৯:২৭:৫৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার কলেজ সুজাতপুর গ্রামে জায়গা-জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেড় ধরে এক প্রবাসীকে হয়রানির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছেন প্রবাসী নাছির উদ্দিন প্রধান।
১০ ফেব্রুয়ারী দুপুরে সুজাতপুর গ্রামে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তাকে মামলা হামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ তোলেন।
নাছির উদ্দিন প্রধান বলেন, আমি সাব কবলা মুলে আরোজা বেগম গং এর কাছ থেকে ১ শতাংশ এবং হারুনুর রশিদ গংদের কাছ থেকে ১.৫ শতাংশ মোট ২.৫ শতাংশ জায়গা কিনেছি। ওই জায়গার আমি দলিল মুলে মালিক। কিন্তু আরোজা বেগমের শরীক সেলিম ও তার স্ত্রী রত্না বেগম। তারা জায়গার মালিক না হয়েও আমার জায়গা দখল করতে চায়। আমরা বাঁধা দিলে তারা রত্না বেগম লোকজন নিয়ে এসে আমার ও আমার পরিবারের উপর হামলা করে।
শুধু তাই নয় তারা আমাদেরকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলা দায়ের করে আমাকে ও আমার পরিবারকে হয়রানি করছে। আমি টাকা দিয়ে জায়গা কিনেছি। আমি আইন ও প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু বিচার চাই।
নাছির উদ্দিনের ভাই ইসলামাবাদ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান বলেন, আমার ভাই নাছির উদ্দিন একজন প্রবাসী। তার ছেলে একজন বিজিবি সদস্য। তাদেরকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। আমার ভাই টাকা দিয়ে জায়গা কিনেছে।
এখানে আমাদের কোন দোষ নেই। আমি নিজে যুবলীগ করি কেন, সেটা তারা সহ্য করতে পারছে না। আমাদেরকে বিভিন্ন ভাবে হামলা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।
রত্না বেগমের ভাসুর আঃ রশিদ মিন্টু ও দেবর হারুনুর রশিদ বলেন, জায়গা বিক্রি করার আগে আমাদের সকল শরীককে জিজ্ঞেস করেছি। কেউ কিনবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। আমাদের চিকিৎসার জন্য টাকার দরকার তাই নাছির উদ্দিনের কাছে জায়গা বিক্রি করেছি। কিন্তু সেলিম ও তার স্ত্রী রত্না বেগম আমাদেরকেও হামলা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য সোলেমান পাটোয়ারী বলেন, নাছির উদ্দিন প্রধান টাকা দিয়ে জয়গা কিনেছে। এখানে তার কোন ভুল আমরা দেখছি না। কিন্তু যারা বিক্রি করেছে তাদের শরীকদের মধ্যে ঝামেলা থাকতে পারে। তাদেরকে বলছি আপনারা বসে সমাধান করেন। কিন্তু আমার কথা না শুনে উল্টা আমাকেই আক্রমন করেছে। এই ঘটনাটি একটি দুঃখজনক ঘটনা।