ঢাকা ০১:৩০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে

চেয়ারম্যান প্রার্থী নাজিম দেওয়ানের রামপুরে গণসংযোগ

  • মাসুদ হোসেন
  • আপডেট সময় : ১০:০৯:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • 119
আসন্ন চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান অব্যাহত রেখেছেন নির্বাচনী গণসংযোগ।
সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারী) বিকালে তিনি চাঁদপুর সদর উপজেলার ৫নং রামপুর ইউনিয়নের ছোট সুন্দর বাজার ও বদরখোলা বাজার গণসংযোগ করেন।
এ সময় তিনি দলীয় নেতাকর্মী ও বাজারের ব্যবসায়ীসহ সর্বস্তরের জনগণের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।
গণসংযোগকালে নাজিম দেওয়ান বলেন, গত মাসেই জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষ হতেই আগামী ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনেকটা কাছাকাছি চলে এসেছে। নতুন উদ্দীপনায় নতুন উৎসাহে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার জন্য উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল খুব সহসাই ঘোষনা করতে যাচ্ছে। তবে প্রথম ধাপেই আগামী ৪ মে চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে।
তিনি বলেন, আমি বিগত ৫ বছর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলাম। সকলের সমস্যা সমাধান আমি করতে পারি নাই। কাঙ্ক্ষিত সেবাও আমি দিতে পারি নাই। কিন্তু আমার পরিষদে যদি কোন মুরব্বি কিংবা কোন মানুষ গেলে আমি সবার কথা খুব মনযোগ দিয়ে শুনেছি। তার সাথে অন্তত ভালো ব্যবহার করার চেষ্টা করেছি।
উপজেলা পরিষদের যে একটা চেয়ার রয়েছে সে চেয়ারের একটা মর্যাদা রয়েছে, আমার হয়তো মর্যাদা কম থাকতে পারে। যদি আপনাদের কাছের মানুষ আমাকে মনে করেন, তাহলে আমার প্রতীক যাই থাকুক না কেন আমাকে সে প্রতীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার অনুরোধ রইলো।
তিনি আরো বলেন, আমি ইউনিয়ন পরিষদের ২ বারের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছি, একবার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানদের দায়িত্ব পালন করেছি, এবং বর্তমানে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছি। এ দায়িত্ব পালন কালে হয়তো আপনাদের সকল চাহিদা আমি পূরণ করতে পারিনি। আমার দাদা চেয়ারম্যানি করেছে, আমার বাবা চেয়ারম্যানি করেছে, আমিও করেছি, জনগণের সেবা করাই আমাদের দায়িত্ব। আমি ৫০ বছরে নৌকা করে একবার নৌকা প্রতীক পেয়েছি, এ বছর যখন নেত্রী ঘোষনা করেছে দলীয় প্রতীক থাকবে না, তারপরও দল যদি প্রার্থী ঘোষনা করেন তাহলে আমি আশাবাদী দল আমাকে মনোনয়ন দেবে, মূল্যায়ণ করবে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন রামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি র্মিজা মোঃ শহিদুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক আল মামুন লিটু, রামপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মোঃ আল মামুন পাটওয়ারী, মৈশাদী ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম পাটওয়ারী, শাহমাহমুদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আখতারুজ্জামান পাটওয়ারী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান হাওলাদার সাজু, রামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোস্তফা কামাল কালাম পাটওয়ারী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান কাঞ্চন পাটওয়ারী, বর্তমান সহ সভাপতি সোহরাব হোসেন পাটওয়ারী, শাহাদাত হোসেন জাকির পাটওয়ারী, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুন্নবী সোহেল, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক খোকন চন্দ্র রায়, সদস্য মাহফুজুর রহমান রাজু, সদর উপজেলা যুবলীগের সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ইকবাল হোসেন পলাশ পাটওয়ারী, রামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি ফরিদ উদ্দিন পলাশ, বর্তমান সভাপতি আহসান পাটওয়ারী সহ ইউনিয়ন ও বিভিন্ন ওয়ার্ডের আওয়ামী অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

মতলব উত্তরে কাপ-পিরিচ প্রতীকে উঠান বৈঠক ও ব্যাপক গণসংযোগ

চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে

চেয়ারম্যান প্রার্থী নাজিম দেওয়ানের রামপুরে গণসংযোগ

আপডেট সময় : ১০:০৯:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
আসন্ন চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান অব্যাহত রেখেছেন নির্বাচনী গণসংযোগ।
সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারী) বিকালে তিনি চাঁদপুর সদর উপজেলার ৫নং রামপুর ইউনিয়নের ছোট সুন্দর বাজার ও বদরখোলা বাজার গণসংযোগ করেন।
এ সময় তিনি দলীয় নেতাকর্মী ও বাজারের ব্যবসায়ীসহ সর্বস্তরের জনগণের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।
গণসংযোগকালে নাজিম দেওয়ান বলেন, গত মাসেই জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষ হতেই আগামী ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনেকটা কাছাকাছি চলে এসেছে। নতুন উদ্দীপনায় নতুন উৎসাহে ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার জন্য উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল খুব সহসাই ঘোষনা করতে যাচ্ছে। তবে প্রথম ধাপেই আগামী ৪ মে চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে।
তিনি বলেন, আমি বিগত ৫ বছর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলাম। সকলের সমস্যা সমাধান আমি করতে পারি নাই। কাঙ্ক্ষিত সেবাও আমি দিতে পারি নাই। কিন্তু আমার পরিষদে যদি কোন মুরব্বি কিংবা কোন মানুষ গেলে আমি সবার কথা খুব মনযোগ দিয়ে শুনেছি। তার সাথে অন্তত ভালো ব্যবহার করার চেষ্টা করেছি।
উপজেলা পরিষদের যে একটা চেয়ার রয়েছে সে চেয়ারের একটা মর্যাদা রয়েছে, আমার হয়তো মর্যাদা কম থাকতে পারে। যদি আপনাদের কাছের মানুষ আমাকে মনে করেন, তাহলে আমার প্রতীক যাই থাকুক না কেন আমাকে সে প্রতীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার অনুরোধ রইলো।
তিনি আরো বলেন, আমি ইউনিয়ন পরিষদের ২ বারের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছি, একবার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানদের দায়িত্ব পালন করেছি, এবং বর্তমানে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছি। এ দায়িত্ব পালন কালে হয়তো আপনাদের সকল চাহিদা আমি পূরণ করতে পারিনি। আমার দাদা চেয়ারম্যানি করেছে, আমার বাবা চেয়ারম্যানি করেছে, আমিও করেছি, জনগণের সেবা করাই আমাদের দায়িত্ব। আমি ৫০ বছরে নৌকা করে একবার নৌকা প্রতীক পেয়েছি, এ বছর যখন নেত্রী ঘোষনা করেছে দলীয় প্রতীক থাকবে না, তারপরও দল যদি প্রার্থী ঘোষনা করেন তাহলে আমি আশাবাদী দল আমাকে মনোনয়ন দেবে, মূল্যায়ণ করবে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন রামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি র্মিজা মোঃ শহিদুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক আল মামুন লিটু, রামপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মোঃ আল মামুন পাটওয়ারী, মৈশাদী ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম পাটওয়ারী, শাহমাহমুদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আখতারুজ্জামান পাটওয়ারী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান হাওলাদার সাজু, রামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোস্তফা কামাল কালাম পাটওয়ারী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান কাঞ্চন পাটওয়ারী, বর্তমান সহ সভাপতি সোহরাব হোসেন পাটওয়ারী, শাহাদাত হোসেন জাকির পাটওয়ারী, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুন্নবী সোহেল, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক খোকন চন্দ্র রায়, সদস্য মাহফুজুর রহমান রাজু, সদর উপজেলা যুবলীগের সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ইকবাল হোসেন পলাশ পাটওয়ারী, রামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি ফরিদ উদ্দিন পলাশ, বর্তমান সভাপতি আহসান পাটওয়ারী সহ ইউনিয়ন ও বিভিন্ন ওয়ার্ডের আওয়ামী অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।