ঢাকা ১০:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুর সরকারি কলেজে বাংলা বিভাগের সেমিনার পেপার উপস্থাপন

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ চাঁদপুর সরকারি কলেজে প্রত্যেক বিভাগের আয়োজনে মাসব্যাপী সেমিনারের আয়োজন করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় বাংলা বিভাগের আয়োজনে বুধবার (০৫ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২:০০টায় বিভাগীয় কক্ষে ‘বাংলার সমাজ ও সংস্কৃতিতে একুশের প্রভাব’ শীর্ষক প্রথম সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

Model Hospital

বিভাগীয় প্রধান অমর চন্দ্র দাসের সভাপ্রধানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সহযোগী অধ্যাপক মোঃ সাইদুজ্জামান।

বাংলা বিভাগের প্রভাষক ফাতেমা আক্তারের সঞ্চালনায় সেমিনারে মুখ্য আলোচক ছিলেন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শরীফ মাহমুদ চিশতী। প্রবন্ধের উপর আরো আলোচনা করেন শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মেহেদী হাসান এবং উপাধ্যক্ষ প্রফেসর শেখ মোঃ খলিলুর রহমান।

সকল বক্তাই বাংলার সমাজ ও সংস্কৃতিতে একুশের প্রভাব তুলে ধরেন।

প্রাবন্ধিক মোঃ সাইদুজ্জামান তার প্রবন্ধে বলেন, ‘একুশে ফেব্রুয়ারি আমাদের স্বাদেশিক চেতনা সৃষ্টির অন্যতম মৌল উপাদান। বাঙালি জাতির আশা-আকাক্সক্ষা, স্বাধীনতা ও জাতীয়তাবোধের মূর্ত প্রতীক হিসেবে একুশ আমাদের কাছে স্মরণীয় ও বরণীয়।

পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর তীব্র দমননীতি, ধর-পাকড়, রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে বায়ান্ন’র ভাষা-আন্দোলনে বাঙালিরা যেভাবে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো বর্তমান প্রজন্ম তা সম্পর্কে অনেকটাই উদাসীন। ঐ সময়ের পারিপার্শি¦ক অবস্থা, ভাষা-আন্দোলন পরবর্তী সরকারের দমন-পীড়ন ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতি, জাতীয় জীবনে একুশের প্রভাব ইত্যাদি চিন্তা-চেতনা বাংলার সমাজজীবনে ও সংস্কৃতিতে কীভাবে প্রভাব ফেলেছে এবং জাতির ইতিহাস, ঐতিহ্য, ভাষা-আন্দোলনের তাৎপর্যসহ বর্তমান প্রজন্মকে ঐ প্রজন্মের অবদানকে স্মরণ করিয়ে দেওয়াই এই প্রবন্ধের মৌল উদ্দেশ্য।’

সেমিনার শেষে সভাপতি মহোদয় সকলকে এই প্রাণবন্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার জন্য ধন্যবাদ জানান।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে অটো চালকের মৃত্যু

চাঁদপুর সরকারি কলেজে বাংলা বিভাগের সেমিনার পেপার উপস্থাপন

আপডেট সময় : ০৮:০২:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ চাঁদপুর সরকারি কলেজে প্রত্যেক বিভাগের আয়োজনে মাসব্যাপী সেমিনারের আয়োজন করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় বাংলা বিভাগের আয়োজনে বুধবার (০৫ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২:০০টায় বিভাগীয় কক্ষে ‘বাংলার সমাজ ও সংস্কৃতিতে একুশের প্রভাব’ শীর্ষক প্রথম সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

Model Hospital

বিভাগীয় প্রধান অমর চন্দ্র দাসের সভাপ্রধানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সহযোগী অধ্যাপক মোঃ সাইদুজ্জামান।

বাংলা বিভাগের প্রভাষক ফাতেমা আক্তারের সঞ্চালনায় সেমিনারে মুখ্য আলোচক ছিলেন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শরীফ মাহমুদ চিশতী। প্রবন্ধের উপর আরো আলোচনা করেন শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মেহেদী হাসান এবং উপাধ্যক্ষ প্রফেসর শেখ মোঃ খলিলুর রহমান।

সকল বক্তাই বাংলার সমাজ ও সংস্কৃতিতে একুশের প্রভাব তুলে ধরেন।

প্রাবন্ধিক মোঃ সাইদুজ্জামান তার প্রবন্ধে বলেন, ‘একুশে ফেব্রুয়ারি আমাদের স্বাদেশিক চেতনা সৃষ্টির অন্যতম মৌল উপাদান। বাঙালি জাতির আশা-আকাক্সক্ষা, স্বাধীনতা ও জাতীয়তাবোধের মূর্ত প্রতীক হিসেবে একুশ আমাদের কাছে স্মরণীয় ও বরণীয়।

পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর তীব্র দমননীতি, ধর-পাকড়, রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে বায়ান্ন’র ভাষা-আন্দোলনে বাঙালিরা যেভাবে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো বর্তমান প্রজন্ম তা সম্পর্কে অনেকটাই উদাসীন। ঐ সময়ের পারিপার্শি¦ক অবস্থা, ভাষা-আন্দোলন পরবর্তী সরকারের দমন-পীড়ন ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতি, জাতীয় জীবনে একুশের প্রভাব ইত্যাদি চিন্তা-চেতনা বাংলার সমাজজীবনে ও সংস্কৃতিতে কীভাবে প্রভাব ফেলেছে এবং জাতির ইতিহাস, ঐতিহ্য, ভাষা-আন্দোলনের তাৎপর্যসহ বর্তমান প্রজন্মকে ঐ প্রজন্মের অবদানকে স্মরণ করিয়ে দেওয়াই এই প্রবন্ধের মৌল উদ্দেশ্য।’

সেমিনার শেষে সভাপতি মহোদয় সকলকে এই প্রাণবন্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার জন্য ধন্যবাদ জানান।