ঢাকা ১০:৫০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী

রোজায় সেহরি নিয়ে ছিন্নমূল মানুষের পাশে অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন

গভীর রাতে গোটা শহর যখন নিস্তব্ধ, ঘড়ির কাটায় রাত তখন আড়াইটা। চাঁদপুর শহরের কালীবাড়ি শাপলা চত্বরে এসে থামে একটি গাড়ি। এরপর একজন নেমে ‘সেহরি সেহরি’ বলে ডাকতে শুরু করেন। তার ডাকে আশপাশ থেকে চলে আসেন রিকশাচালক, রেল স্টেশনের প্লাটর্ফোমে শুয়ে থাকা দুস্থ শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে সেহরির খাবার প্যাকেট তুলে দেন চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী, শিক্ষানুরাগী ও আইনজীবী, সদর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন।
বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) রাতে শহরের বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ঘুরে পথচারী, দিনমজুর, ছিন্নমূল, নৈশপ্রহরী, হাসপাতালের রোগী, স্বজনদের মাঝে তিনি সেহরি বিতরণ করেন।
রিকশাচালক সদর উপজেলার মৈশাদী এলাকার আকবর হোসেন, বাগাদী এলাকার বিল্লাল হোসেন ও মহামায়া গ্রামের আব্দুল মজিদ বলেন, আমরা মধ্যরাতে রিকশা চালাই। কিন্তু একদিকে গরীব মানুষ, সেহরি খেতে পারি না অন্যদিকে রাত জেগে রিকশা চালাতে গিয়ে বাড়িতে সেহরি খাওয়া যায় না। সুমন ভাই এসে সেহরি দিয়ে যান। আমরা সেটা খেয়ে রোজা রেখেছি।
শহরের রোগীদের সাথে আসা স্বজনরা বলেন, আমাদের বাড়ি দূরে। রাত জেগে রোগীর সেবা করি। সেহরি খাওয়ার মতো অবস্থা থাকে না। সুমন ভাই আমাদের সেহরি দিয়ে গেছেন। সেহরি পেয়ে আমাদের খুব উপকার হয়। তার এই কাজটাকে আমরা স্যালুট জানাই।
তিনি বলেন, পথের পাশের ঘুমন্ত মানুষকে ডেকে জিজ্ঞাসা করি, সেহরি খাবেন? কেউ মাথা তোলেন, কেউ মশারির ফাঁক গলিয়ে হাত বের করেন। তাদের মাঝে সেহরি বিতরণ করি। নৈশ প্রহরী, রিকশাচালক, ছিন্নমূল, পথচারী মানুষ, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগী ও স্বজনদের মাঝে এই সেহরি বিতরণ করা হয়। কারণ তারা সেহরি করার সুযোগ পান না।
অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার জন্য দোয়া চান এবং সেই সঙ্গে সামর্থ্যবান মানুষকে সাধারণ মানুষের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য আহ্বান জানান।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে অটো চালকের মৃত্যু

উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী

রোজায় সেহরি নিয়ে ছিন্নমূল মানুষের পাশে অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন

আপডেট সময় : ০৫:২৩:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০২৪
গভীর রাতে গোটা শহর যখন নিস্তব্ধ, ঘড়ির কাটায় রাত তখন আড়াইটা। চাঁদপুর শহরের কালীবাড়ি শাপলা চত্বরে এসে থামে একটি গাড়ি। এরপর একজন নেমে ‘সেহরি সেহরি’ বলে ডাকতে শুরু করেন। তার ডাকে আশপাশ থেকে চলে আসেন রিকশাচালক, রেল স্টেশনের প্লাটর্ফোমে শুয়ে থাকা দুস্থ শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে সেহরির খাবার প্যাকেট তুলে দেন চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী, শিক্ষানুরাগী ও আইনজীবী, সদর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন।
বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) রাতে শহরের বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ঘুরে পথচারী, দিনমজুর, ছিন্নমূল, নৈশপ্রহরী, হাসপাতালের রোগী, স্বজনদের মাঝে তিনি সেহরি বিতরণ করেন।
রিকশাচালক সদর উপজেলার মৈশাদী এলাকার আকবর হোসেন, বাগাদী এলাকার বিল্লাল হোসেন ও মহামায়া গ্রামের আব্দুল মজিদ বলেন, আমরা মধ্যরাতে রিকশা চালাই। কিন্তু একদিকে গরীব মানুষ, সেহরি খেতে পারি না অন্যদিকে রাত জেগে রিকশা চালাতে গিয়ে বাড়িতে সেহরি খাওয়া যায় না। সুমন ভাই এসে সেহরি দিয়ে যান। আমরা সেটা খেয়ে রোজা রেখেছি।
শহরের রোগীদের সাথে আসা স্বজনরা বলেন, আমাদের বাড়ি দূরে। রাত জেগে রোগীর সেবা করি। সেহরি খাওয়ার মতো অবস্থা থাকে না। সুমন ভাই আমাদের সেহরি দিয়ে গেছেন। সেহরি পেয়ে আমাদের খুব উপকার হয়। তার এই কাজটাকে আমরা স্যালুট জানাই।
তিনি বলেন, পথের পাশের ঘুমন্ত মানুষকে ডেকে জিজ্ঞাসা করি, সেহরি খাবেন? কেউ মাথা তোলেন, কেউ মশারির ফাঁক গলিয়ে হাত বের করেন। তাদের মাঝে সেহরি বিতরণ করি। নৈশ প্রহরী, রিকশাচালক, ছিন্নমূল, পথচারী মানুষ, হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগী ও স্বজনদের মাঝে এই সেহরি বিতরণ করা হয়। কারণ তারা সেহরি করার সুযোগ পান না।
অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার জন্য দোয়া চান এবং সেই সঙ্গে সামর্থ্যবান মানুষকে সাধারণ মানুষের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য আহ্বান জানান।