ঢাকা ০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে ফসলি জমিনের পাঁকা ধান চুরি ও নারী নির্যাতনে অভিযুক্ত দুইজন আটক

শাহরাস্তিতে ফসলি জমিনের পাঁকা ধান চুরি ও নারী নির্যাতনের পৃথক মামলায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।
শুক্রবার ভোররাতে উপজেলার সূচিপাড়া উত্তর ইউপিরশোরসাক গ্রামের শাহ আলমের ৪২ শতাংশ ফসলি জমিনে পাঁকা ধান চুরির ঘটনা সংঘটিত হয়।
ওই কান্ডে একই গ্রামের আনোয়ার হোসেনের পুত্র মিজানুর রহমানকে(২৯) অভিযুক্ত করে শাহরাস্তি মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করে ক্ষতিগ্রস্ত শাহ আলম।
মামলার বাদী ও সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা যায়, ওই গ্রামের মিজানুর রহমান শুক্রবার ভোররাতে লোকজন নিয়ে শাহ আলমের পাঁকা ধানের ৪২ শতাংশ ফসলি জমিনে পাঁকা ধান কেটে একটি মিনি ট্রাকে তোলে চুরি করে নিয়ে যায়। পরের দিনের আলোতে বিষয়টি চাউর হলে জমিনের মূল মালিক শাহ আলম বিষয়টি অবগত হয়ে পাঁকা ধান লুণ্ঠনের অভিযোগে মিজানের নামে শাহরাস্তি মডেল থানা একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
যার মামলা নং -৬ তারিখ- ১০ মে, ২০২৪।পরে পুলিশ ওই অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থলের পার্শ্ববর্তী শোরসাক হাওর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করেন।
একই দিন শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউপির মুড়াগাঁও গ্রামের মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেনের পুত্র ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী মোঃ ফখরুল হাসানকে আটক করে পুলিশ।
তার বিরুদ্ধে শাহরাস্তি মডেল থানায় সিআর-২০/২০২৪ইং, ধারা-যৌতুক নিরোধ আইনের ৩ এর ধারায় একটি মামলা রুজু ছিল।
তাকে আটকে অভিযান পরিচালনা করেন এএসআই (নিঃ)মোঃ আতাউর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স।
এ প্রসঙ্গে শাহরাস্তি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, অভিযুক্ত আসামিদের আটকের পর আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ শেষে পুলিশ এসকর্টের মাধ্যমে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

গরু জবাই করার সময় হার্ট অ্যাটাকে মৃ’ত্যু

শাহরাস্তিতে ফসলি জমিনের পাঁকা ধান চুরি ও নারী নির্যাতনে অভিযুক্ত দুইজন আটক

আপডেট সময় : ০৯:৩১:৫০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ মে ২০২৪
শাহরাস্তিতে ফসলি জমিনের পাঁকা ধান চুরি ও নারী নির্যাতনের পৃথক মামলায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।
শুক্রবার ভোররাতে উপজেলার সূচিপাড়া উত্তর ইউপিরশোরসাক গ্রামের শাহ আলমের ৪২ শতাংশ ফসলি জমিনে পাঁকা ধান চুরির ঘটনা সংঘটিত হয়।
ওই কান্ডে একই গ্রামের আনোয়ার হোসেনের পুত্র মিজানুর রহমানকে(২৯) অভিযুক্ত করে শাহরাস্তি মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করে ক্ষতিগ্রস্ত শাহ আলম।
মামলার বাদী ও সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা যায়, ওই গ্রামের মিজানুর রহমান শুক্রবার ভোররাতে লোকজন নিয়ে শাহ আলমের পাঁকা ধানের ৪২ শতাংশ ফসলি জমিনে পাঁকা ধান কেটে একটি মিনি ট্রাকে তোলে চুরি করে নিয়ে যায়। পরের দিনের আলোতে বিষয়টি চাউর হলে জমিনের মূল মালিক শাহ আলম বিষয়টি অবগত হয়ে পাঁকা ধান লুণ্ঠনের অভিযোগে মিজানের নামে শাহরাস্তি মডেল থানা একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
যার মামলা নং -৬ তারিখ- ১০ মে, ২০২৪।পরে পুলিশ ওই অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থলের পার্শ্ববর্তী শোরসাক হাওর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অভিযুক্ত আসামিকে আটক করেন।
একই দিন শাহরাস্তি উপজেলার টামটা উত্তর ইউপির মুড়াগাঁও গ্রামের মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেনের পুত্র ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী মোঃ ফখরুল হাসানকে আটক করে পুলিশ।
তার বিরুদ্ধে শাহরাস্তি মডেল থানায় সিআর-২০/২০২৪ইং, ধারা-যৌতুক নিরোধ আইনের ৩ এর ধারায় একটি মামলা রুজু ছিল।
তাকে আটকে অভিযান পরিচালনা করেন এএসআই (নিঃ)মোঃ আতাউর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স।
এ প্রসঙ্গে শাহরাস্তি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, অভিযুক্ত আসামিদের আটকের পর আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ শেষে পুলিশ এসকর্টের মাধ্যমে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়।