ঢাকা ০৬:৩০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লোকমান আলী ফকিরের ওফাত দিবস উপলক্ষে রঘুনাথপুরে ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও চাঁদপুর শহরে ৫নং ওয়ার্ডে রঘুনাথপুর এলাকায় হযরত শাহ্ সুফি সাধক খাজা লোকমান আলী ফকির এর ১২তম ওফাত দিবস উপলক্ষে মাজারে ওয়াজ মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

Model Hospital

বৃহস্পতিবার ২৩ মে বাদ আসর এর পর কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু লোকমান আলী ফকির এর ১২তম ওফাত দিবস উপলক্ষে মাজারে ওয়াজ মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উক্ত অনুষ্ঠানে মিলাদ ও দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের চাঁদপুর জেলা কমিটির সহ-সভাপতি পীরজাদা হযরত মাওলানা খাজা জুবায়ের আহমেদ।

অনুষ্ঠানে প্রধান মেহমান হিসেবে ওয়াজ করেন হযরত মাওলানা মোহাম্মদ আলী আল কাদরী চাঁদপুরী ।

এ সময় তিনি বলেন, ‘হযরত ওয়ায়েজ কুরুনী রাদিআল্লাহু তা’আলাকে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু ওয়া সাল্লাম বেশি ভালোবাসতেন নবীজির চার খলিফা ছিল যা হযরত আবু বক্কর সিদ্দিকী রা., হযরত ওসমান গনি রা., হযরত ওমর ফারুক রা., হযরত মাওলা আলী রা., তাদের চেয়েও বেশি ভালবাসতেন ওয়েজ কূরনি রা.কে। যার কারণে নবীজির গায়ের জুব্বা মোবারক তাকে দান করে গেছেন।

আমার নবীজি যখন সাহাবীদের সাথে কথা বলতেন তখন এই কথা বন্ধ হয়ে যেত তখন সাহাবীরা বলতেন নবীজির কেন কথা বন্ধ বলছেন না। নবীজি তখন বলতেন এ সাহাবীরারে আমি তোদের সাথে কথা বন্ধ করে কথা বলেছিলাম আমার ওয়েজ কূরনির সাথে। নবীজি তাকে কেমন ভালোবাসতেন তাঁর ডাকের তিনি থাকতে পারেননি, আগে ওয়েজ কূরনির সাথে কথা বলেন। এই হচ্ছে প্রেম এইভাবে আপনার অলি আউলিয়াদের সাথে প্রেম লাগান । আপনার ডাকে আমার নবিজীও সাড়া দিবে। ’

অনুষ্ঠানে বিশেষ মেহমান হিসেবে ওয়াজ করেন বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন চাঁদপুর জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মিজানুর রহমান চিশতী চাঁদপুরী।

এ সময় তিনি বলেন, ‘আমাদের মধ্যে একদল আছে অলি আউলিয়াদের পছন্দ করেন না বলে কিসের মাজার আরে এদেশে যদি অলি-আওলিয়াগণ যদি না আসতো তাহলে আমার আপনারা মুসলমানি হতেন না। হযরত শাহজালাল ইয়ামানি রা. হযরত শাহ পরান ইয়ামনি রা. এরাই ইসলাম জিন্দা করে গেছেন তাদেরও মাজার রয়েছে। যে লোক আল্লাহকে ডাকতে ডাকতে তিনি অলি আউলিয়ার কাতারে পৌঁছে যায় তার হয় মাজার আর সাধারণ মানুষের হয় কবর।

হযরত শাহ সুফি লোকমান আলী ফকির অলি আউলিয়ার কাতারে পৌঁছে গেছেন সেইজন্যে হয়েছে তার মাজার। আসুন আমরা সবাই অলি আউলিয়াদেরকে ভালবেসে মহান আল্লাহ রাসুলপাক ডাকি একদিন আপনিও তাদের মত হয়ে যেতে পারেন । উক্ত অনুষ্ঠান দায়িত্ব ও পরিচালনা করেন লোকমান আলী ফকিরের ভক্ত মোহাম্মদ জাকির মজুমদার, মোহাম্মদ জাকির মিয়াজী, ঢাকার মামা দেলোয়ার হোসেন, মোঃ শাহাদাত মজুমদার, মোহাম্মদ বিলাল হাজী, মাস্টার দেলোয়ার সহ ভক্তবৃন্দ।

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, মইনীয়া ভক্ত ও দৈনিক চাঁদপুর সময় এর প্রকাশক ও বাংলা স্টার সম্পাদক ও প্রকাশন মোহাম্মদ এরশাদ খান। শান পরিবেশন করেন মোহাম্মদ আরমান বাঙ্গালী, আরো উপস্থিত ছিলেন হযরত শাহ সুফি মোবারক শাহ এর ভক্ত মোহাম্মদ আব্দুর রশিদ খান, রহমানিয়া দরবার শরীফের ভক্ত মোহাম্মদ নাজির হোসেন পাটোয়ারী, মো. শামছু, জাকের পার্টি যুব ফ্রন্ট চাঁদপুর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ দেলোয়ার হোসেন রাশেদ, মইনীয়া ভক্ত ও চাঁদপুর সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ জেলার সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল হাসেম গাজী, মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আব্দুল মালেক মিয়াজী, লোকমান আলী ফকিরের ভক্ত মোহাম্মদ শামীম সহ ভক্ত বিভিন্ন তরিকতের আশেক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরে মিলাদ শেষে সবার মাঝে তবারক বিতরণ করা হয়। পরে সারারাত চলে সময় মাহফিল।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

গরু জবাই করার সময় হার্ট অ্যাটাকে মৃ’ত্যু

লোকমান আলী ফকিরের ওফাত দিবস উপলক্ষে রঘুনাথপুরে ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল

আপডেট সময় : ০৯:১২:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও চাঁদপুর শহরে ৫নং ওয়ার্ডে রঘুনাথপুর এলাকায় হযরত শাহ্ সুফি সাধক খাজা লোকমান আলী ফকির এর ১২তম ওফাত দিবস উপলক্ষে মাজারে ওয়াজ মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

Model Hospital

বৃহস্পতিবার ২৩ মে বাদ আসর এর পর কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু লোকমান আলী ফকির এর ১২তম ওফাত দিবস উপলক্ষে মাজারে ওয়াজ মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উক্ত অনুষ্ঠানে মিলাদ ও দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের চাঁদপুর জেলা কমিটির সহ-সভাপতি পীরজাদা হযরত মাওলানা খাজা জুবায়ের আহমেদ।

অনুষ্ঠানে প্রধান মেহমান হিসেবে ওয়াজ করেন হযরত মাওলানা মোহাম্মদ আলী আল কাদরী চাঁদপুরী ।

এ সময় তিনি বলেন, ‘হযরত ওয়ায়েজ কুরুনী রাদিআল্লাহু তা’আলাকে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু ওয়া সাল্লাম বেশি ভালোবাসতেন নবীজির চার খলিফা ছিল যা হযরত আবু বক্কর সিদ্দিকী রা., হযরত ওসমান গনি রা., হযরত ওমর ফারুক রা., হযরত মাওলা আলী রা., তাদের চেয়েও বেশি ভালবাসতেন ওয়েজ কূরনি রা.কে। যার কারণে নবীজির গায়ের জুব্বা মোবারক তাকে দান করে গেছেন।

আমার নবীজি যখন সাহাবীদের সাথে কথা বলতেন তখন এই কথা বন্ধ হয়ে যেত তখন সাহাবীরা বলতেন নবীজির কেন কথা বন্ধ বলছেন না। নবীজি তখন বলতেন এ সাহাবীরারে আমি তোদের সাথে কথা বন্ধ করে কথা বলেছিলাম আমার ওয়েজ কূরনির সাথে। নবীজি তাকে কেমন ভালোবাসতেন তাঁর ডাকের তিনি থাকতে পারেননি, আগে ওয়েজ কূরনির সাথে কথা বলেন। এই হচ্ছে প্রেম এইভাবে আপনার অলি আউলিয়াদের সাথে প্রেম লাগান । আপনার ডাকে আমার নবিজীও সাড়া দিবে। ’

অনুষ্ঠানে বিশেষ মেহমান হিসেবে ওয়াজ করেন বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন চাঁদপুর জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মিজানুর রহমান চিশতী চাঁদপুরী।

এ সময় তিনি বলেন, ‘আমাদের মধ্যে একদল আছে অলি আউলিয়াদের পছন্দ করেন না বলে কিসের মাজার আরে এদেশে যদি অলি-আওলিয়াগণ যদি না আসতো তাহলে আমার আপনারা মুসলমানি হতেন না। হযরত শাহজালাল ইয়ামানি রা. হযরত শাহ পরান ইয়ামনি রা. এরাই ইসলাম জিন্দা করে গেছেন তাদেরও মাজার রয়েছে। যে লোক আল্লাহকে ডাকতে ডাকতে তিনি অলি আউলিয়ার কাতারে পৌঁছে যায় তার হয় মাজার আর সাধারণ মানুষের হয় কবর।

হযরত শাহ সুফি লোকমান আলী ফকির অলি আউলিয়ার কাতারে পৌঁছে গেছেন সেইজন্যে হয়েছে তার মাজার। আসুন আমরা সবাই অলি আউলিয়াদেরকে ভালবেসে মহান আল্লাহ রাসুলপাক ডাকি একদিন আপনিও তাদের মত হয়ে যেতে পারেন । উক্ত অনুষ্ঠান দায়িত্ব ও পরিচালনা করেন লোকমান আলী ফকিরের ভক্ত মোহাম্মদ জাকির মজুমদার, মোহাম্মদ জাকির মিয়াজী, ঢাকার মামা দেলোয়ার হোসেন, মোঃ শাহাদাত মজুমদার, মোহাম্মদ বিলাল হাজী, মাস্টার দেলোয়ার সহ ভক্তবৃন্দ।

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, মইনীয়া ভক্ত ও দৈনিক চাঁদপুর সময় এর প্রকাশক ও বাংলা স্টার সম্পাদক ও প্রকাশন মোহাম্মদ এরশাদ খান। শান পরিবেশন করেন মোহাম্মদ আরমান বাঙ্গালী, আরো উপস্থিত ছিলেন হযরত শাহ সুফি মোবারক শাহ এর ভক্ত মোহাম্মদ আব্দুর রশিদ খান, রহমানিয়া দরবার শরীফের ভক্ত মোহাম্মদ নাজির হোসেন পাটোয়ারী, মো. শামছু, জাকের পার্টি যুব ফ্রন্ট চাঁদপুর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ দেলোয়ার হোসেন রাশেদ, মইনীয়া ভক্ত ও চাঁদপুর সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ জেলার সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল হাসেম গাজী, মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আব্দুল মালেক মিয়াজী, লোকমান আলী ফকিরের ভক্ত মোহাম্মদ শামীম সহ ভক্ত বিভিন্ন তরিকতের আশেক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরে মিলাদ শেষে সবার মাঝে তবারক বিতরণ করা হয়। পরে সারারাত চলে সময় মাহফিল।