ঢাকা ০২:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে টিকা নিতে গিয়ে ৮ শিক্ষার্থী আহত, প্রধান শিক্ষক অবরুদ্ধ!

বিশেষ প্রতিবেদক : চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে কোভিড-১৯ এর টিকা নিতে এসে অটো থ্রি-হুইলার উল্টে ৮ শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে। আবার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইব্রাহিম খলিল শিক্ষার্থীদের কোভিড-১৯ এর টিকা গ্রহনের জন্য ১৫০ টাকা জনপ্রতি আদায় করে বলেও অভিযোগ মিলেছে।
এ ঘটনায় উত্তেজিত শিক্ষার্থী, অভিভাবকরা ক্ষুব্ধ হয়ে প্রধান শিক্ষককে বিদ্যালয়ে তালা মেরে অবরুদ্ধ করে রাখেন। পরে পুলিশ গিয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ইব্রাহিম খলিলকে উদ্ধার করেন। আজ মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বেরনাইয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে অবরুদ্ধ এবং দেবকরা মালিবাড়ী মসজিদ সংলগ্ন হোসাইন আহম্মেদ সড়ক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটনা ঘটে।
শিক্ষার্থীর অভিভাবক, প্রত্যক্ষদর্শী, ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীরা জানান, বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা উপজেলার পৌর শহরের নিজ মেহের মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন দিতে থ্রি-হুইলার অটো যোগে আসছিলেন। এসময় উপজেলার দেবকরা মালিবাড়ী মসজিদ সংলগ্ন হোসাইন আহম্মেদ সড়ক এলাকায় তাদের বহন করা অটোটি অতিক্রমের সময় উল্টে ৮ শিক্ষার্থী গুরুতর জখম হয়।
আহত শিক্ষার্থীরা হচ্ছে, কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জ উপজেলার চান্দাইল গ্রামের  নাজমুল হকের পুত্র তারেক মনোয়ার, শাহরাস্তি উপজেলার কৃষ্ণপুর বেরনাইয়া এলাকার মঞ্জুর হোসেনের মেয়ে আসমা আক্তার ৭ম-শ্রেনী, একই এলাকার ইয়াসিনের পুত্র শাওন ৭ম-শ্রেনী, বাংলাইস বেরনাইয়া এলাকার আলমগীর হোসেনের মেয়ে আপিপা ৭ম-শ্রেনী, শিবপুর গ্রামের মাইনুল ইসলামের মেয়ে ফারিয়া আক্তার ৭ম-শ্রেনী, ৮ম-শ্রেনীর তানিয়া নামের দু’ শিক্ষার্থী গুরুতর জখম হয়।
পরে স্থানীয়রা ওই শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডা. সারোয়ার হোসেন তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান করেন।
এ প্রসঙ্গে আহত শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা জানান, ওই শিক্ষার্থীদের দুর্ঘটনার সংবাদ মুঠোফোনের কল্যাণে স্বজনদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ অভিভাবকরা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইব্রাহিম খলিলকে অফিস কক্ষে অবরুদ্ধ করেন। পরে বিষয়টি চাউর হলে শাহরাস্তি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল মান্নান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অভিভাবকদের সঙ্গে আলাপ করে প্রধান শিক্ষককে নিরাপদে বাড়ি যেতে সহযোগিতা করেন।
দুর্ঘটনার বিষয়ে ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থী এবং স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা আরো জানান, ওই সময় অটোচালক মুঠোফোনে কথা বলতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন।
এদিকে আহত শিক্ষার্থীর স্বজনরা এবং স্থানীয় বাসিদ্ধারা জানান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইব্রাহিম খলিল শিক্ষার্থীদের কোভিড-১৯ এর টিকা গ্রহনের জন্য ১৫০ টাকা জনপ্রতি আদায় করে। শিক্ষার্থীদের যাতায়াতে প্রধান শিক্ষক মো. ইব্রাহিম খলিল তার নিজ এলাকার কিছু অটো রিকশায় ৬ জনের স্থলে ১০ থেকে ১২ জন শিক্ষার্থীকে উঠিয়ে দেন। ওভারলোড হয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে অভিভাবকরা জানান।
এদিকে বিদ্যালয়ে কোভিড ভ্যাকসিনের জন্য টাকা উত্তোলনের প্রসঙ্গ জানতে উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা মো. আহসান উল্লাহ চৌধুরীকে মুঠোফোনে ফোন দিলে তিনি সাড়া দানে বিরত থাকেন। এদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নাসির উদ্দিন জানান, শিক্ষার্থীদের কোভিড সুরক্ষায় মড্রানা ও ফাইজার এর টিকা দেওয়া হচ্ছে।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

স্কুলের শ্রেণিকক্ষে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় ছাত্রীসহ প্রধান শিক্ষক আটক

শাহরাস্তিতে টিকা নিতে গিয়ে ৮ শিক্ষার্থী আহত, প্রধান শিক্ষক অবরুদ্ধ!

আপডেট সময় : ০৪:৩১:১৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জানুয়ারী ২০২২
বিশেষ প্রতিবেদক : চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে কোভিড-১৯ এর টিকা নিতে এসে অটো থ্রি-হুইলার উল্টে ৮ শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে। আবার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইব্রাহিম খলিল শিক্ষার্থীদের কোভিড-১৯ এর টিকা গ্রহনের জন্য ১৫০ টাকা জনপ্রতি আদায় করে বলেও অভিযোগ মিলেছে।
এ ঘটনায় উত্তেজিত শিক্ষার্থী, অভিভাবকরা ক্ষুব্ধ হয়ে প্রধান শিক্ষককে বিদ্যালয়ে তালা মেরে অবরুদ্ধ করে রাখেন। পরে পুলিশ গিয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ইব্রাহিম খলিলকে উদ্ধার করেন। আজ মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বেরনাইয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে অবরুদ্ধ এবং দেবকরা মালিবাড়ী মসজিদ সংলগ্ন হোসাইন আহম্মেদ সড়ক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটনা ঘটে।
শিক্ষার্থীর অভিভাবক, প্রত্যক্ষদর্শী, ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীরা জানান, বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা উপজেলার পৌর শহরের নিজ মেহের মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন দিতে থ্রি-হুইলার অটো যোগে আসছিলেন। এসময় উপজেলার দেবকরা মালিবাড়ী মসজিদ সংলগ্ন হোসাইন আহম্মেদ সড়ক এলাকায় তাদের বহন করা অটোটি অতিক্রমের সময় উল্টে ৮ শিক্ষার্থী গুরুতর জখম হয়।
আহত শিক্ষার্থীরা হচ্ছে, কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জ উপজেলার চান্দাইল গ্রামের  নাজমুল হকের পুত্র তারেক মনোয়ার, শাহরাস্তি উপজেলার কৃষ্ণপুর বেরনাইয়া এলাকার মঞ্জুর হোসেনের মেয়ে আসমা আক্তার ৭ম-শ্রেনী, একই এলাকার ইয়াসিনের পুত্র শাওন ৭ম-শ্রেনী, বাংলাইস বেরনাইয়া এলাকার আলমগীর হোসেনের মেয়ে আপিপা ৭ম-শ্রেনী, শিবপুর গ্রামের মাইনুল ইসলামের মেয়ে ফারিয়া আক্তার ৭ম-শ্রেনী, ৮ম-শ্রেনীর তানিয়া নামের দু’ শিক্ষার্থী গুরুতর জখম হয়।
পরে স্থানীয়রা ওই শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডা. সারোয়ার হোসেন তাদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান করেন।
এ প্রসঙ্গে আহত শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা জানান, ওই শিক্ষার্থীদের দুর্ঘটনার সংবাদ মুঠোফোনের কল্যাণে স্বজনদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ অভিভাবকরা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইব্রাহিম খলিলকে অফিস কক্ষে অবরুদ্ধ করেন। পরে বিষয়টি চাউর হলে শাহরাস্তি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল মান্নান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অভিভাবকদের সঙ্গে আলাপ করে প্রধান শিক্ষককে নিরাপদে বাড়ি যেতে সহযোগিতা করেন।
দুর্ঘটনার বিষয়ে ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থী এবং স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা আরো জানান, ওই সময় অটোচালক মুঠোফোনে কথা বলতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন।
এদিকে আহত শিক্ষার্থীর স্বজনরা এবং স্থানীয় বাসিদ্ধারা জানান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইব্রাহিম খলিল শিক্ষার্থীদের কোভিড-১৯ এর টিকা গ্রহনের জন্য ১৫০ টাকা জনপ্রতি আদায় করে। শিক্ষার্থীদের যাতায়াতে প্রধান শিক্ষক মো. ইব্রাহিম খলিল তার নিজ এলাকার কিছু অটো রিকশায় ৬ জনের স্থলে ১০ থেকে ১২ জন শিক্ষার্থীকে উঠিয়ে দেন। ওভারলোড হয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে অভিভাবকরা জানান।
এদিকে বিদ্যালয়ে কোভিড ভ্যাকসিনের জন্য টাকা উত্তোলনের প্রসঙ্গ জানতে উপজেলা মাধ্যমিক কর্মকর্তা মো. আহসান উল্লাহ চৌধুরীকে মুঠোফোনে ফোন দিলে তিনি সাড়া দানে বিরত থাকেন। এদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নাসির উদ্দিন জানান, শিক্ষার্থীদের কোভিড সুরক্ষায় মড্রানা ও ফাইজার এর টিকা দেওয়া হচ্ছে।