ঢাকা ০৪:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুরের ১৪ ইউনিয়নের নেতাকর্মীদের অনুরোধে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছি

স্টাফ রিপোর্টার : আসন্ন চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সন্মেলন কে কেন্দ্র করে উক্ত সন্মেলনে চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ প্রার্থী মোঃ আইউব আলী বেপারী বলেছেন, পারিবারিক ভাবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আর্দশকে লালন করা একটি পরিবারে আমার জন্ম। সেই ধারাবাহিকতায় ছাত্র জীবন থেকে বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে লালন করে ছাত্র জীবন থেকে ছাএ লীগের রাজনীতি দিয়ে শুরু করে আজো এ দলের রাজনীতি করে আসছি।

Model Hospital

তিনি বলেন, ছাত্র জীবনে ছাত্র রাজনীতিতে নেতৃত্ব দিতে গিয়ে বিএনপি জামাত জোটের হাতে কতবার নির্যাতিত হয়েছি, হামলা মামলার শিকার হয়েছি। রাজনৈতিক জীবনে দলের সকল নেতাকর্মীদের সুখ দুঃখে তাদের পাশে ছিলাম। তাই আমার তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা তাদের পাশে থাকার জন্য আমাকে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন, এজন্য আমি সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছি।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একটি বিশাল সমুদ্র। এই সমুদ্রের আমি একজন কর্মী হিসেবে দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের নিকট অনুরোধ, আমার রাজনৈতিক বিগত দিনের সকক কর্মকাণ্ড বিবেচনা করে আমাকে চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ পদে নির্বাচিত করবেন। ইনশাআল্লাহ আমি কথা দিচ্ছি, দলকে সুসংগঠিত ও শক্তিশালী রাজনৈতিক সংগঠনে পরিণত করতে আমার সর্বাত্মক চেষ্টা থাকবে এবং দলের সন্মান অক্ষুণ্ণ রাখবো।

উল্লেখ্য চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক   ও উপজেলা পরিষদের ভাইস  চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আইউব আলী বেপারী  ১৯৮৯ সালে বর্তমান চাঁদপুর পৌর সভার  ১০ নং ওয়ার্ড  সাবেক ৩ নং ওয়ার্ড   ছাএলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন।

এরপর তিনি ১৯৯১ সালে চাঁদপুর সদর উপজেলা ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক, ১৯৯৮ সালে জেলা ছাত্র লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য, ১৯৯৯ সালে জেলা ছাত্র লীগের সহ সভাপতি নির্বাচিত হন।

পরবর্তীতে চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০১৬ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সন্মেলনে জেলা কমিটির পুনাঙ কমিটিতে সদস্য হন।

তিনি গত উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদের  ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

তিনি শুধু একজন রাজনৈতিক নেতাই নন,তিনি সদর উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা, ধর্মীয়, ক্রীড়া ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানের সাথে ওতোপ্রোতো ভাবে জড়িত রয়েছেন এবং  বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন।

ট্যাগস :

বরযাত্রার সময় হাজির প্রথম স্ত্রী, বউ রেখে পালালেন বর

চাঁদপুরের ১৪ ইউনিয়নের নেতাকর্মীদের অনুরোধে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছি

আপডেট সময় : ০২:৪১:১৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২০ নভেম্বর ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার : আসন্ন চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সন্মেলন কে কেন্দ্র করে উক্ত সন্মেলনে চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ প্রার্থী মোঃ আইউব আলী বেপারী বলেছেন, পারিবারিক ভাবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আর্দশকে লালন করা একটি পরিবারে আমার জন্ম। সেই ধারাবাহিকতায় ছাত্র জীবন থেকে বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে লালন করে ছাত্র জীবন থেকে ছাএ লীগের রাজনীতি দিয়ে শুরু করে আজো এ দলের রাজনীতি করে আসছি।

Model Hospital

তিনি বলেন, ছাত্র জীবনে ছাত্র রাজনীতিতে নেতৃত্ব দিতে গিয়ে বিএনপি জামাত জোটের হাতে কতবার নির্যাতিত হয়েছি, হামলা মামলার শিকার হয়েছি। রাজনৈতিক জীবনে দলের সকল নেতাকর্মীদের সুখ দুঃখে তাদের পাশে ছিলাম। তাই আমার তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা তাদের পাশে থাকার জন্য আমাকে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন, এজন্য আমি সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হয়েছি।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একটি বিশাল সমুদ্র। এই সমুদ্রের আমি একজন কর্মী হিসেবে দলের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের নিকট অনুরোধ, আমার রাজনৈতিক বিগত দিনের সকক কর্মকাণ্ড বিবেচনা করে আমাকে চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ পদে নির্বাচিত করবেন। ইনশাআল্লাহ আমি কথা দিচ্ছি, দলকে সুসংগঠিত ও শক্তিশালী রাজনৈতিক সংগঠনে পরিণত করতে আমার সর্বাত্মক চেষ্টা থাকবে এবং দলের সন্মান অক্ষুণ্ণ রাখবো।

উল্লেখ্য চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক   ও উপজেলা পরিষদের ভাইস  চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আইউব আলী বেপারী  ১৯৮৯ সালে বর্তমান চাঁদপুর পৌর সভার  ১০ নং ওয়ার্ড  সাবেক ৩ নং ওয়ার্ড   ছাএলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন।

এরপর তিনি ১৯৯১ সালে চাঁদপুর সদর উপজেলা ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক, ১৯৯৮ সালে জেলা ছাত্র লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য, ১৯৯৯ সালে জেলা ছাত্র লীগের সহ সভাপতি নির্বাচিত হন।

পরবর্তীতে চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হন। ২০১৬ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সন্মেলনে জেলা কমিটির পুনাঙ কমিটিতে সদস্য হন।

তিনি গত উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদের  ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

তিনি শুধু একজন রাজনৈতিক নেতাই নন,তিনি সদর উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা, ধর্মীয়, ক্রীড়া ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানের সাথে ওতোপ্রোতো ভাবে জড়িত রয়েছেন এবং  বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন।