ঢাকা ১১:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘ইসলামী যুব আন্দোলনের সৌন্দর্য  সকল যুবসমাজের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে’

ইসলামী যুব আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর পৌর শাখার নব-গঠিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা, শপথগ্রহণ ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
২ জুন শুক্রবার সকাল ১০টায় শহরের বিপনীভাগ পৌর মার্কেটে সংগঠনের কার্যালয়ে এ আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সেক্রেটারি কে.এম. ইয়াসির রাশেদসানী।
প্রধান বক্তা ছিলে ইসলামী যুব আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি মুহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক।
ইসলামী যুব আন্দোলন চাঁদপুর পৌর শাখার সভাপতি মাওলানা ওমায়ের খান রাহাতের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আকাশ শেখের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার প্রচার ও দাওয়া বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা হেলাল আহমাদ, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা নূরদ্দিন, ইসলামী যুব আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক হাফেজ শাহাদাত হোসাইন, ইসলামী আন্দোলন চাঁদপুর শহর শাখার সভাপতি মুফতি আবু নাঈম মুহাম্মদ তানভীর, ইসলামী যুব আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ শাহিন খান, ইসলামী ছাত্র আন্দোলন চাঁদপুর পৌর শাখার সভাপতি মুহাম্মদ ফরহাদ হোসাইন।
বক্তারা বলেন, অসুস্থ্য ধারার রাজনীতি আমাদের দেশের যুবসমাজকে ধ্বংসের ধারপ্রান্তে নিয়ে গেছে। আমাদের যে যুবসমাজ দেশের জন্য জীবন দিয়েছে, সেই যুবসমাজ সন্ত্রাস, মাদক আর পাপাচারে লিপ্ত হয়ে পড়েছে। তাই যুব সমাজকে পাপাচার থেকে দূরে রাখতে এবং ইসলামের পথে আনার জন্য বাংলাদেশ ইসলামী যুব আন্দোলন গঠন করা হয়েছে।
ইসলামী যুব আন্দোলন প্রতিষ্ঠার মাত্র ৭ বছরে বাংলাদেশে একটি আদর্শীক এবং শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে প্রতিষ্ঠালাভ করেছে।
বক্তারা আরো বলেন, ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের উদ্দেশ্য এবং লক্ষ্য যদি ঠিক থাকে, তবে ইনশাআল্লাহ্ আমরা সফল হবই। সমাজের যেখানেই ক্যান্সার আছে, সেখানেই চিকিৎসা করতে হবে। যেখানের অসঙ্গতি, পাপাচার চলবে সেখানেই আমাদের ইসলামের দাওয়াত নিয়ে যেতে হবে। যুব সমাজ আলোর পথে চলে এলে পুরো সমাজব্যবস্থা পাল্টে যাবে। ইসলামী যুব আন্দোলনের সৌন্দর্য যুবসমাজের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে।
অনুষ্ঠানে ইসলামী যুব আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর পৌর শাখার নতুন শেসনের জন্য পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করে নেতৃবৃন্দ শপথবাক্য পাঠ করানো হয়।
ট্যাগস :

‘ইসলামী যুব আন্দোলনের সৌন্দর্য  সকল যুবসমাজের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে’

আপডেট সময় : ১০:১৪:৩৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২ জুন ২০২৩
ইসলামী যুব আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর পৌর শাখার নব-গঠিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা, শপথগ্রহণ ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
২ জুন শুক্রবার সকাল ১০টায় শহরের বিপনীভাগ পৌর মার্কেটে সংগঠনের কার্যালয়ে এ আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সেক্রেটারি কে.এম. ইয়াসির রাশেদসানী।
প্রধান বক্তা ছিলে ইসলামী যুব আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি মুহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক।
ইসলামী যুব আন্দোলন চাঁদপুর পৌর শাখার সভাপতি মাওলানা ওমায়ের খান রাহাতের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আকাশ শেখের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার প্রচার ও দাওয়া বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা হেলাল আহমাদ, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা নূরদ্দিন, ইসলামী যুব আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক হাফেজ শাহাদাত হোসাইন, ইসলামী আন্দোলন চাঁদপুর শহর শাখার সভাপতি মুফতি আবু নাঈম মুহাম্মদ তানভীর, ইসলামী যুব আন্দোলন চাঁদপুর জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ শাহিন খান, ইসলামী ছাত্র আন্দোলন চাঁদপুর পৌর শাখার সভাপতি মুহাম্মদ ফরহাদ হোসাইন।
বক্তারা বলেন, অসুস্থ্য ধারার রাজনীতি আমাদের দেশের যুবসমাজকে ধ্বংসের ধারপ্রান্তে নিয়ে গেছে। আমাদের যে যুবসমাজ দেশের জন্য জীবন দিয়েছে, সেই যুবসমাজ সন্ত্রাস, মাদক আর পাপাচারে লিপ্ত হয়ে পড়েছে। তাই যুব সমাজকে পাপাচার থেকে দূরে রাখতে এবং ইসলামের পথে আনার জন্য বাংলাদেশ ইসলামী যুব আন্দোলন গঠন করা হয়েছে।
ইসলামী যুব আন্দোলন প্রতিষ্ঠার মাত্র ৭ বছরে বাংলাদেশে একটি আদর্শীক এবং শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে প্রতিষ্ঠালাভ করেছে।
বক্তারা আরো বলেন, ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের উদ্দেশ্য এবং লক্ষ্য যদি ঠিক থাকে, তবে ইনশাআল্লাহ্ আমরা সফল হবই। সমাজের যেখানেই ক্যান্সার আছে, সেখানেই চিকিৎসা করতে হবে। যেখানের অসঙ্গতি, পাপাচার চলবে সেখানেই আমাদের ইসলামের দাওয়াত নিয়ে যেতে হবে। যুব সমাজ আলোর পথে চলে এলে পুরো সমাজব্যবস্থা পাল্টে যাবে। ইসলামী যুব আন্দোলনের সৌন্দর্য যুবসমাজের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে।
অনুষ্ঠানে ইসলামী যুব আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর পৌর শাখার নতুন শেসনের জন্য পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করে নেতৃবৃন্দ শপথবাক্য পাঠ করানো হয়।