ঢাকা ০৯:২৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মতলব দক্ষিণে চলাচলের পথ বন্ধ করে জোরপূর্বক বিল্ডিং নির্মাণের অভিযোগ

মতলব দক্ষিণ উপজেলার উত্তর বাড়ৈগাঁও গ্রামের ইব্রাহীম প্রধানিয়া বাড়িতে দীর্ঘদিনের পুরনো পারিবারিক চলাচলের পথ জোরপূর্বক স্থাপনা (বিল্ডিং) নির্মাণ করে বন্ধ করার অভিযোগ উঠেছে একই বাড়ির জামাল প্রধানের বিরুদ্ধে। বাড়িতে প্রবেশের প্রায় ৫০ বছরের পুরনো চলাচলের এ রাস্তা দখল করে জোড়পূর্ক বিল্ডিং নির্মাণের ফলে যাতায়াতের পথ বন্ধ হয়ে গেছে ওই বাড়ির ১৫টি পরিবারের। ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর অভিযোগ নির্মিতব্য ভবনের নকশা ও জায়গা নিয়েও বিরোধ রয়েছে জামালের সাথে।

Model Hospital

ভুক্তভোগি একই বাড়ির আক্তারুজ্জামান ওরফে রোলু প্রধান, টিপু প্রধান, পলাশ প্রধান, রাজু প্রধান, আসাদুজ্জামান প্রধান, আজাদ প্রধান, কাউছার প্রধান, সবুজ প্রধান, মিজান প্রধান, শরীফ প্রধান ও একই বাড়ির মরহুম অলিউল্লাহ প্রধানের সৌদী প্রবাসী ছেলে রানা প্রধানসহ স্থানীয় গণ্যমান্য একাধিক ব্যক্তি জানান, জামাল প্রধান দীর্ঘদিনের পুরনো বাড়ির পারিবারিক পথ বন্ধ করে বিল্ডিং নির্মাণ কাজ করার সময় তাকে বাঁধা দেওয়া হলেও তিনি জোরপূর্বক চলাচলের পথ বন্ধ করে বিল্ডিং নির্মাণ করে। এতে বাড়ির ১৫টি পরিবারে চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যায়। বিষয়টি নিয়ে শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) বিকেলে পারিবারিক চলাচলের রাস্তা ও বিরোধপূর্ণ জমিজমা নিয়ে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে শালিশী বৈঠকের আয়োজন করা হয়। অভিযুক্ত জামাল প্রধান নিজেই উক্ত শালিসী বৈঠকের দিন তারিখ ঠিক করেন। কিন্তু বৈঠকের দিন তিনি নিজেই গাঁঢাকা দিয়ে শালিসী বৈঠকে উপস্থিত হননি।

শালিসী বৈঠকে উপস্থিত আলহাজ¦ আনোয়ার হোসেন ভূঁইয়া, হাজী আব্দুল মতিন, শেখ ফজলুল করিম সেলিমসহ উপস্থিত স্থানীয় একাধিক শালিসীগণ স্থাপনা সরিয়ে নিয়ে চলাচলের পথ বহালের জোড় দাবী জানান। এসময় তারা আরও জানান, অভিযুক্ত জামাল শালিসী বৈঠকের দিন তারিখ ঠিক করে তিনি নিজেই গাঁঢাকা দেওয়া ঠিক হয়নি। জমি সংক্রান্ত ঝামেলা থাকতে পারে কিন্তু বাড়ির পারিবারিক চলাচলের পথ খোলা রাখা অতি জরুরী।

অভিযুক্ত জামাল প্রধানের বড় ভাই আলমগীর প্রধান জানান, প্রতিপক্ষদ্বয় ও আমরা একই বাড়ির মানুষ। আমার বাবা-চাচাদের মাঝে জমিজমা নিয়ে ঝামেলা রয়েছে। কিন্তু বাড়ির চলাচলের পথের সমস্যা অবশ্যই সমাধান হওয়া উচিৎ।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত জামাল প্রধান জানান, সাড়ে সাত ফুট পথের জায়গা রেখে আমার নিজের জায়গায় বিল্ডিং করেছি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে অটো চালকের মৃত্যু

মতলব দক্ষিণে চলাচলের পথ বন্ধ করে জোরপূর্বক বিল্ডিং নির্মাণের অভিযোগ

আপডেট সময় : ১০:১৯:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৪

মতলব দক্ষিণ উপজেলার উত্তর বাড়ৈগাঁও গ্রামের ইব্রাহীম প্রধানিয়া বাড়িতে দীর্ঘদিনের পুরনো পারিবারিক চলাচলের পথ জোরপূর্বক স্থাপনা (বিল্ডিং) নির্মাণ করে বন্ধ করার অভিযোগ উঠেছে একই বাড়ির জামাল প্রধানের বিরুদ্ধে। বাড়িতে প্রবেশের প্রায় ৫০ বছরের পুরনো চলাচলের এ রাস্তা দখল করে জোড়পূর্ক বিল্ডিং নির্মাণের ফলে যাতায়াতের পথ বন্ধ হয়ে গেছে ওই বাড়ির ১৫টি পরিবারের। ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর অভিযোগ নির্মিতব্য ভবনের নকশা ও জায়গা নিয়েও বিরোধ রয়েছে জামালের সাথে।

Model Hospital

ভুক্তভোগি একই বাড়ির আক্তারুজ্জামান ওরফে রোলু প্রধান, টিপু প্রধান, পলাশ প্রধান, রাজু প্রধান, আসাদুজ্জামান প্রধান, আজাদ প্রধান, কাউছার প্রধান, সবুজ প্রধান, মিজান প্রধান, শরীফ প্রধান ও একই বাড়ির মরহুম অলিউল্লাহ প্রধানের সৌদী প্রবাসী ছেলে রানা প্রধানসহ স্থানীয় গণ্যমান্য একাধিক ব্যক্তি জানান, জামাল প্রধান দীর্ঘদিনের পুরনো বাড়ির পারিবারিক পথ বন্ধ করে বিল্ডিং নির্মাণ কাজ করার সময় তাকে বাঁধা দেওয়া হলেও তিনি জোরপূর্বক চলাচলের পথ বন্ধ করে বিল্ডিং নির্মাণ করে। এতে বাড়ির ১৫টি পরিবারে চলাচলের পথ বন্ধ হয়ে যায়। বিষয়টি নিয়ে শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) বিকেলে পারিবারিক চলাচলের রাস্তা ও বিরোধপূর্ণ জমিজমা নিয়ে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে শালিশী বৈঠকের আয়োজন করা হয়। অভিযুক্ত জামাল প্রধান নিজেই উক্ত শালিসী বৈঠকের দিন তারিখ ঠিক করেন। কিন্তু বৈঠকের দিন তিনি নিজেই গাঁঢাকা দিয়ে শালিসী বৈঠকে উপস্থিত হননি।

শালিসী বৈঠকে উপস্থিত আলহাজ¦ আনোয়ার হোসেন ভূঁইয়া, হাজী আব্দুল মতিন, শেখ ফজলুল করিম সেলিমসহ উপস্থিত স্থানীয় একাধিক শালিসীগণ স্থাপনা সরিয়ে নিয়ে চলাচলের পথ বহালের জোড় দাবী জানান। এসময় তারা আরও জানান, অভিযুক্ত জামাল শালিসী বৈঠকের দিন তারিখ ঠিক করে তিনি নিজেই গাঁঢাকা দেওয়া ঠিক হয়নি। জমি সংক্রান্ত ঝামেলা থাকতে পারে কিন্তু বাড়ির পারিবারিক চলাচলের পথ খোলা রাখা অতি জরুরী।

অভিযুক্ত জামাল প্রধানের বড় ভাই আলমগীর প্রধান জানান, প্রতিপক্ষদ্বয় ও আমরা একই বাড়ির মানুষ। আমার বাবা-চাচাদের মাঝে জমিজমা নিয়ে ঝামেলা রয়েছে। কিন্তু বাড়ির চলাচলের পথের সমস্যা অবশ্যই সমাধান হওয়া উচিৎ।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত জামাল প্রধান জানান, সাড়ে সাত ফুট পথের জায়গা রেখে আমার নিজের জায়গায় বিল্ডিং করেছি।