ঢাকা ০৭:৫৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মতলব উত্তরে সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের (এসডিএফ) স্টেকহোল্ডার কর্মশালা অনুষ্ঠিত

চাঁদপুরের মতলব উত্তরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের ‘সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন (এসডিএফ)’ এর রেজিলিয়েন্স, এন্ট্রাপ্রেনিওরশীপ অ্যান্ড লাইভলীহুড ইমপ্রুভমেন্ট (আরইএলআই) প্রজেক্ট স্টেকহোল্ডার কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
১৫ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার দুপুরে উক্ত কর্মশালা উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস। পরে তিনি প্রধান অতিথি বক্তৃতা দেন।
স্টেকহোল্ডার কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী অফিসার একি মিত্র চাকমা। জেলা কর্মকর্তা (এসইএল) মনিটরিং অফিসার আকিব হোসেন মেহেদীর উপস্থাপনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, এসডিএফ এর কুমিল্লা আঞ্চলিক পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান, চাঁদপুর জেলা ব্যবস্থাপক মোঃ শামছুল আলম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফয়সাল মোহাম্মদ আলী, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মনোয়ারা বেগম, প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ শ্যামল চন্দ্র দাস, সমবায় কর্মকর্তা ফারুক আলম, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা তারিক মাহমুদ, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাছিমা আক্তার, জনতা ব্যাংক সুজাতপুর বাজার শাখার ব্যবস্থাপক মোঃ জাকির হোসেন, ফতেপুর পুর্ব ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজমল হোসেন চৌধুরী, মতলব উত্তর থানার এসআই মিজানুর রহমান, সাংবাদিক আরাফাত আল-আমিন, সমবায় অফিসের সহকারি পরিদর্শক মোঃ মামুন, এসিআই প্রতিনিধি মুকুল আহমেদ প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি এসডিএফ এর কুমিল্লা আঞ্চলিক পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান বক্তব্যে এসডিএফ এর কর্মশালার লক্ষ্য, উদ্দেশ্য ও প্রত্যাশিত ফলাফল তুলে ধরেন এবং চাঁদপুর জেলা ব্যবস্থাপক মোঃ শামসুল আলম রিলাই প্রকল্পের কার্যক্রম তুলে ধরেন। সরকারের এই প্রকল্পটির ব্যাপারে তারা সকল তথ্য তুলে ধরে সরকারের ভিশনের সাথে এসডিএফ এর কার্যক্রমের গুরুত্ব আলোচনা করেন। স্টেকহোল্ডার কর্মশালায় এসডিএফ এর গ্রাম সমিতির সদস্যবৃন্দ অংশগ্রহন করেন। ৬ জন মাকে মাতৃত্বকালীন ও সিজারিয়ান ভাতা প্রদানের মাধ্যমে এই কার্যক্রম উদ্বোধন করেন অতিথিবৃন্দ।
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এমন একটি সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন। যেই বাংলাদেশে থাকবে না কোন দরিদ্র। থাকবে না কোন মানুষের দুঃখ কস্ট। তাই তিনি বাংলাদেশকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে মহান মুক্তিযুদ্ধ ঘোষনা করেন আর আমরা তার ডাকে ঝাঁপিয়ে পড়ি। ৭৫ এর আগে বঙ্গবন্ধু খুব সুন্দর ভাবে দেশটি চালিয়েছেন।
পরবর্তী ২১ বছর দেখটি পিছিয়ে পড়েছিল। তারপরে আবার বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের হাল ধরেন। আর আমরা পেয়েছি ডিজিটাল বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে এসডিএফ এর মত বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে দরিদ্র মানুষ স্বাবলম্বী হচ্ছে।
এমএ কুদ্দুস আরো বলেন, গ্রামের দরিদ্র নারী পুরুষরা এসডিএফ এর মাধ্যমে সহায়তা পেয়ে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছে। এর মাধ্যমে দেশের দ্রারিদ্রতা দূর হবে এবং সরকারের যে ভিশন উচ্চ আয়ের স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলা তা দ্রুত বাস্তবায়ন হবে। একটা সময় আমাদের দেশে নারীদের অগ্রাধিকার ছিল না, প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় এসে নারীদের অগ্রাধিকার দিয়েছেন এবং সমান অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছেন। সেজন্যই নারীরা আজ পুরুষদের পাশাপাশি সমাজের দরিদ্রতা দুরীকরণে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে পারছে। আজকে এই আয়োজনের জন্য উপজেলা প্রশাসন এবং সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের সকল কর্মকর্তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

ঈদে স্ত্রীকে মাংস কিনে খাওয়াতে না পেরে চিরকুট লিখে আত্মহত্যা

মতলব উত্তরে সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের (এসডিএফ) স্টেকহোল্ডার কর্মশালা অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ১০:০৩:১৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
চাঁদপুরের মতলব উত্তরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের ‘সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন (এসডিএফ)’ এর রেজিলিয়েন্স, এন্ট্রাপ্রেনিওরশীপ অ্যান্ড লাইভলীহুড ইমপ্রুভমেন্ট (আরইএলআই) প্রজেক্ট স্টেকহোল্ডার কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
১৫ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার দুপুরে উক্ত কর্মশালা উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস। পরে তিনি প্রধান অতিথি বক্তৃতা দেন।
স্টেকহোল্ডার কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী অফিসার একি মিত্র চাকমা। জেলা কর্মকর্তা (এসইএল) মনিটরিং অফিসার আকিব হোসেন মেহেদীর উপস্থাপনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, এসডিএফ এর কুমিল্লা আঞ্চলিক পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান, চাঁদপুর জেলা ব্যবস্থাপক মোঃ শামছুল আলম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ফয়সাল মোহাম্মদ আলী, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মনোয়ারা বেগম, প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ শ্যামল চন্দ্র দাস, সমবায় কর্মকর্তা ফারুক আলম, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা তারিক মাহমুদ, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাছিমা আক্তার, জনতা ব্যাংক সুজাতপুর বাজার শাখার ব্যবস্থাপক মোঃ জাকির হোসেন, ফতেপুর পুর্ব ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজমল হোসেন চৌধুরী, মতলব উত্তর থানার এসআই মিজানুর রহমান, সাংবাদিক আরাফাত আল-আমিন, সমবায় অফিসের সহকারি পরিদর্শক মোঃ মামুন, এসিআই প্রতিনিধি মুকুল আহমেদ প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি এসডিএফ এর কুমিল্লা আঞ্চলিক পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান বক্তব্যে এসডিএফ এর কর্মশালার লক্ষ্য, উদ্দেশ্য ও প্রত্যাশিত ফলাফল তুলে ধরেন এবং চাঁদপুর জেলা ব্যবস্থাপক মোঃ শামসুল আলম রিলাই প্রকল্পের কার্যক্রম তুলে ধরেন। সরকারের এই প্রকল্পটির ব্যাপারে তারা সকল তথ্য তুলে ধরে সরকারের ভিশনের সাথে এসডিএফ এর কার্যক্রমের গুরুত্ব আলোচনা করেন। স্টেকহোল্ডার কর্মশালায় এসডিএফ এর গ্রাম সমিতির সদস্যবৃন্দ অংশগ্রহন করেন। ৬ জন মাকে মাতৃত্বকালীন ও সিজারিয়ান ভাতা প্রদানের মাধ্যমে এই কার্যক্রম উদ্বোধন করেন অতিথিবৃন্দ।
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এমন একটি সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন। যেই বাংলাদেশে থাকবে না কোন দরিদ্র। থাকবে না কোন মানুষের দুঃখ কস্ট। তাই তিনি বাংলাদেশকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে মহান মুক্তিযুদ্ধ ঘোষনা করেন আর আমরা তার ডাকে ঝাঁপিয়ে পড়ি। ৭৫ এর আগে বঙ্গবন্ধু খুব সুন্দর ভাবে দেশটি চালিয়েছেন।
পরবর্তী ২১ বছর দেখটি পিছিয়ে পড়েছিল। তারপরে আবার বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের হাল ধরেন। আর আমরা পেয়েছি ডিজিটাল বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে এসডিএফ এর মত বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে দরিদ্র মানুষ স্বাবলম্বী হচ্ছে।
এমএ কুদ্দুস আরো বলেন, গ্রামের দরিদ্র নারী পুরুষরা এসডিএফ এর মাধ্যমে সহায়তা পেয়ে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছে। এর মাধ্যমে দেশের দ্রারিদ্রতা দূর হবে এবং সরকারের যে ভিশন উচ্চ আয়ের স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলা তা দ্রুত বাস্তবায়ন হবে। একটা সময় আমাদের দেশে নারীদের অগ্রাধিকার ছিল না, প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় এসে নারীদের অগ্রাধিকার দিয়েছেন এবং সমান অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছেন। সেজন্যই নারীরা আজ পুরুষদের পাশাপাশি সমাজের দরিদ্রতা দুরীকরণে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে পারছে। আজকে এই আয়োজনের জন্য উপজেলা প্রশাসন এবং সোশ্যাল ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের সকল কর্মকর্তাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।