ঢাকা ০৫:০০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুর গণপূর্ত বিভাগে বঙ্গবন্ধু কর্নার উদ্বোধন

চাঁদপুর গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী নাসিম আহমেদ টিটোর পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে সোমবার (১০ জুন) চট্টগ্রাম গণপূর্ত জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আবুল কাশেম মোঃ শাহজালাল মজুমদার বঙ্গন্ধুর কর্নার উদ্বোধন করেন।

Model Hospital

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, কুমিল্লা গণপূর্ত সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ নুরুল আমিন মিয়া, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী, মো: তানজিল ইসলাম ভূঁইয়া, মো: আলী নূর, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো: ইমাম হোসেন, লুৎফর রহনান, মো: ফিরোজ আহমেদ, মো: সাইফুল্লাহ।

উদ্বোধন পরবর্তী দোয়া মাহফিলের ব্যবস্থা করা হয়। বঙ্গবন্ধু কর্নারে জাতির পিতার প্রতিকৃতি এবং তার বর্ণাঢ্য জীবন, কর্ম, আদর্শ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের ওপর প্রকাশিত বই ও সাময়িকি সন্নিবেশিত করা হয়েছে।

অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আবুল কাশেম মোঃ শাহজালাল মজুমদার বঙ্গবন্ধু কর্নারের বিভিন্ন কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন পরবর্তী বঙ্গবন্ধু কর্নার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত চাঁদপুর গণপূর্ত বিভাগের
কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশ্যে তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনাদর্শ, দেশ প্রেম এবং দেশ ও জাতি গঠনে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভূমিকা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

তিনি বলেন বঙ্গন্ধুর জীবন ও কর্ম থেকে শিক্ষা নিয়ে যদি তা আমাদের জীবনে কাজে লাগাতে পারি তা হবে বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা ও স্মরণ করার শ্রেষ্ঠ উপায়। বাংলাদেশকে জানতে হলে আমাদের অবশ্যই বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৃঢ় নেতৃত্বে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি, লাল-সবুজের পতাকা পেয়েছি। এই বঙ্গবন্ধু কর্নারের মাধ্যমে শিক্ষক, কর্মকর্তা–কর্মচারী, শিক্ষার্থীসহ এ অঞ্চলের সবাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে সোনার বাংলা বিনির্মাণে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।’

পরিশেষে তিনি সবাইকে জাতির পিতার জীবনাদর্শে উজ্জ্বীবিত হয়ে সোনার বাংলা বিনির্মাণে সততার সঙ্গে সরকারি দায়িত্ব পালনে উদাত্ত আহ্বান জানান।

চাঁদপুর গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী নাসিম আহমেদ টিটো জানান, নিচতলায় স্থাপিত বঙ্গবন্ধু কর্নারের প্রবেশপথে স্থাপন করা হয়েছে বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিগত ও রাজনৈতিক জীবনী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছয় দফা আন্দোলনের দাবি সমূহ, কেন্দ্রের মধ্যে ছোট একটি লাইব্রেরিতে ৩ শতাধিক বই রয়েছে।
নবনির্মিত এই বঙ্গবন্ধু কর্নারে রয়েছে দুর্লভ সব আলোকচিত্র। সেখানে সাদাকালো ফ্রেমে আলো-ছায়ার মধ্যে তুলে ধরা হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। বঙ্গবন্ধুর জন্ম থেকে মৃত্যু, বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ও ব্যক্তিজীবন, রাষ্ট্রপরিচালনা সব পর্যায়ের ছবি দিয়ে কেন্দ্রটি সাজানো হয়েছে। এ ছাড়া সাল অনুয়ায়ী বঙ্গবন্ধুর জীবনবৃত্তান্ত ছবির নিচে সংক্ষিপ্ত আকারে তুলে ধরা হয়েছে।

এ ছাড়া সেখানে স্থান পেয়েছে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রসহ এ–সংক্রান্ত বিভিন্ন দুর্লভ ছবি, দেশি-বিদেশি পত্রিকায় মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন প্রকাশিত সংবাদের ছবি ও আলোকচিত্র। এখানে আলোকচিত্র ও শিল্পীর কারুকাজে তুলে ধরা হয়েছে বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতার ইতিহাস।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

স্কুলের শ্রেণিকক্ষে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় ছাত্রীসহ প্রধান শিক্ষক আটক

চাঁদপুর গণপূর্ত বিভাগে বঙ্গবন্ধু কর্নার উদ্বোধন

আপডেট সময় : ০৯:৪৩:৫৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪

চাঁদপুর গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী নাসিম আহমেদ টিটোর পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে সোমবার (১০ জুন) চট্টগ্রাম গণপূর্ত জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আবুল কাশেম মোঃ শাহজালাল মজুমদার বঙ্গন্ধুর কর্নার উদ্বোধন করেন।

Model Hospital

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, কুমিল্লা গণপূর্ত সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ নুরুল আমিন মিয়া, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী, মো: তানজিল ইসলাম ভূঁইয়া, মো: আলী নূর, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো: ইমাম হোসেন, লুৎফর রহনান, মো: ফিরোজ আহমেদ, মো: সাইফুল্লাহ।

উদ্বোধন পরবর্তী দোয়া মাহফিলের ব্যবস্থা করা হয়। বঙ্গবন্ধু কর্নারে জাতির পিতার প্রতিকৃতি এবং তার বর্ণাঢ্য জীবন, কর্ম, আদর্শ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের ওপর প্রকাশিত বই ও সাময়িকি সন্নিবেশিত করা হয়েছে।

অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আবুল কাশেম মোঃ শাহজালাল মজুমদার বঙ্গবন্ধু কর্নারের বিভিন্ন কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন পরবর্তী বঙ্গবন্ধু কর্নার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত চাঁদপুর গণপূর্ত বিভাগের
কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশ্যে তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনাদর্শ, দেশ প্রেম এবং দেশ ও জাতি গঠনে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভূমিকা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

তিনি বলেন বঙ্গন্ধুর জীবন ও কর্ম থেকে শিক্ষা নিয়ে যদি তা আমাদের জীবনে কাজে লাগাতে পারি তা হবে বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা ও স্মরণ করার শ্রেষ্ঠ উপায়। বাংলাদেশকে জানতে হলে আমাদের অবশ্যই বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৃঢ় নেতৃত্বে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি, লাল-সবুজের পতাকা পেয়েছি। এই বঙ্গবন্ধু কর্নারের মাধ্যমে শিক্ষক, কর্মকর্তা–কর্মচারী, শিক্ষার্থীসহ এ অঞ্চলের সবাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে সোনার বাংলা বিনির্মাণে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।’

পরিশেষে তিনি সবাইকে জাতির পিতার জীবনাদর্শে উজ্জ্বীবিত হয়ে সোনার বাংলা বিনির্মাণে সততার সঙ্গে সরকারি দায়িত্ব পালনে উদাত্ত আহ্বান জানান।

চাঁদপুর গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী নাসিম আহমেদ টিটো জানান, নিচতলায় স্থাপিত বঙ্গবন্ধু কর্নারের প্রবেশপথে স্থাপন করা হয়েছে বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিগত ও রাজনৈতিক জীবনী, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছয় দফা আন্দোলনের দাবি সমূহ, কেন্দ্রের মধ্যে ছোট একটি লাইব্রেরিতে ৩ শতাধিক বই রয়েছে।
নবনির্মিত এই বঙ্গবন্ধু কর্নারে রয়েছে দুর্লভ সব আলোকচিত্র। সেখানে সাদাকালো ফ্রেমে আলো-ছায়ার মধ্যে তুলে ধরা হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। বঙ্গবন্ধুর জন্ম থেকে মৃত্যু, বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ও ব্যক্তিজীবন, রাষ্ট্রপরিচালনা সব পর্যায়ের ছবি দিয়ে কেন্দ্রটি সাজানো হয়েছে। এ ছাড়া সাল অনুয়ায়ী বঙ্গবন্ধুর জীবনবৃত্তান্ত ছবির নিচে সংক্ষিপ্ত আকারে তুলে ধরা হয়েছে।

এ ছাড়া সেখানে স্থান পেয়েছে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রসহ এ–সংক্রান্ত বিভিন্ন দুর্লভ ছবি, দেশি-বিদেশি পত্রিকায় মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন প্রকাশিত সংবাদের ছবি ও আলোকচিত্র। এখানে আলোকচিত্র ও শিল্পীর কারুকাজে তুলে ধরা হয়েছে বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতার ইতিহাস।