ঢাকা ০২:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ছেংগারচর দারুল উলূম কারীমিয়া মাদ্রাসার বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল

মতলব উত্তর প্রতিনিধি : চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর বাজার দারুল উলূম কারীমিয়া মাদরাসার ১২তম বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

বুধবার বিকেলে থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত ওয়াজ মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন ছেংগারচর পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী ও গুলশান থানা যুবলীগের সহ-সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব মাহবুবুর রহমান সেলিম এবং প্রধান বক্তা হিসেবে বয়ান রাখেন মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী কুয়াকাটা, বিশেষ বক্তা হিসেবে বয়ান রাখেন শুয়াইব আহম্মদ আশরাফী, মাওলানা রাশেদুল ইসলাম রহমতপুরী, মাওলানা তাজুল ইসলাম জেহাদী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আবদুল হাকিম মিয়াজী। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন- মাওলানা আতাউল্লাহ মহসিন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাহবুবুর রহমান সেলিম বলেন, দুনিয়া ও আখিরাতে শান্তি পেতে সবাইকে কোরআন ও সুন্নাহর আলোকে জীবন গঠন করতে হবে। দুনিয়ার সফলতা প্রকৃত সফলতা নয় তাই আখিরাতের সফলতার জন্য আমাদের কাজ করতে হবে।

মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেছেন, সন্তানকে মায়া-মমতা দিয়ে লালন-পালন করা এবং তাদের আদর্শ জীবন গঠন করা পিতা-মাতার কর্তব্য। এ ক্ষেত্রে ইসলামের অনুপম শিক্ষা ও নীতিমালা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, ধর্মীয় শিক্ষা ছাড়া শিশুদের প্রকৃত আদর্শ জীবন গড়ে তোলা সম্ভব নয়। শিশু আল্লাহ তাআলার প্রদত্ত উত্তম নিয়ামত। এ জন্য তাদের নৈতিক শিক্ষা দেওয়া প্রতিটি শিশুর মা-বাবার পবিত্র দায়িত্ব।

তিনি বলেন, যে সমাজসংসারে স্বামী-স্ত্রীর মনোমালিন্য, ঝগড়া-বিবাদ, পারিবারিক অশান্তি ও বিশৃঙ্খলা লেগে থাকে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই, সেসব সংসারের শিশুরা হয় অবাধ্য ও দুর্বিনীত। তারা বড় হয়ে মাদকাসক্ত ও সন্ত্রাসীর খাতায় নাম লেখায়। এ জন্য মা-বাবাকে শিশুদের সামনে সংযত হয়ে চলা বা কথা বলা উচিত; যাতে পরিবারে শিশুরা সুশিক্ষা পায়। শিশুদের শারীরিক নির্যাতন না করে তাদের সঙ্গে ভালো ব্যবহারের মাধ্যমে নৈতিক শিক্ষাদানের বিষয়ে নবী করিম (সা.) ঘোষণা করেছেন, ‘তোমরা সন্তানদের (শিশুদের) স্নেহ কোরো, তাদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার কোরো এবং সদাচরণ ও শিষ্টাচার শিক্ষা দাও।’ শিশুকালে অন্যান্য শিক্ষার পাশাপাশি সন্তানকে অবশ্যই দীনের শিক্ষা দিতে হবে। এই বয়সেই শুদ্ধভাবে কোরআন পড়া ও তা আমল করার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, হাজী আহমদ উল্লাহ, সফিকুল ইসলাম, আমিনুল ইসলাম বেপারী, সফিকুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান, আলমগীর হোসেন, ইব্রাহিম, মেহেদী, আহসান হাবীব, ক্বারী আবু ইউসুফ, গাজী মানিক, দয়াল, তোজাম্মেল, রায়হান মাষ্টার প্রমুখ।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর বিজয়ের গান গাইলেন সুনামগঞ্জের সাংবাদিক রাজু

ছেংগারচর দারুল উলূম কারীমিয়া মাদ্রাসার বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল

আপডেট সময় : ০৬:৫৬:৫৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১২ মে ২০২২

মতলব উত্তর প্রতিনিধি : চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর বাজার দারুল উলূম কারীমিয়া মাদরাসার ১২তম বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

বুধবার বিকেলে থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত ওয়াজ মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন ছেংগারচর পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী ও গুলশান থানা যুবলীগের সহ-সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব মাহবুবুর রহমান সেলিম এবং প্রধান বক্তা হিসেবে বয়ান রাখেন মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী কুয়াকাটা, বিশেষ বক্তা হিসেবে বয়ান রাখেন শুয়াইব আহম্মদ আশরাফী, মাওলানা রাশেদুল ইসলাম রহমতপুরী, মাওলানা তাজুল ইসলাম জেহাদী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আবদুল হাকিম মিয়াজী। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন- মাওলানা আতাউল্লাহ মহসিন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাহবুবুর রহমান সেলিম বলেন, দুনিয়া ও আখিরাতে শান্তি পেতে সবাইকে কোরআন ও সুন্নাহর আলোকে জীবন গঠন করতে হবে। দুনিয়ার সফলতা প্রকৃত সফলতা নয় তাই আখিরাতের সফলতার জন্য আমাদের কাজ করতে হবে।

মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেছেন, সন্তানকে মায়া-মমতা দিয়ে লালন-পালন করা এবং তাদের আদর্শ জীবন গঠন করা পিতা-মাতার কর্তব্য। এ ক্ষেত্রে ইসলামের অনুপম শিক্ষা ও নীতিমালা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, ধর্মীয় শিক্ষা ছাড়া শিশুদের প্রকৃত আদর্শ জীবন গড়ে তোলা সম্ভব নয়। শিশু আল্লাহ তাআলার প্রদত্ত উত্তম নিয়ামত। এ জন্য তাদের নৈতিক শিক্ষা দেওয়া প্রতিটি শিশুর মা-বাবার পবিত্র দায়িত্ব।

তিনি বলেন, যে সমাজসংসারে স্বামী-স্ত্রীর মনোমালিন্য, ঝগড়া-বিবাদ, পারিবারিক অশান্তি ও বিশৃঙ্খলা লেগে থাকে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই, সেসব সংসারের শিশুরা হয় অবাধ্য ও দুর্বিনীত। তারা বড় হয়ে মাদকাসক্ত ও সন্ত্রাসীর খাতায় নাম লেখায়। এ জন্য মা-বাবাকে শিশুদের সামনে সংযত হয়ে চলা বা কথা বলা উচিত; যাতে পরিবারে শিশুরা সুশিক্ষা পায়। শিশুদের শারীরিক নির্যাতন না করে তাদের সঙ্গে ভালো ব্যবহারের মাধ্যমে নৈতিক শিক্ষাদানের বিষয়ে নবী করিম (সা.) ঘোষণা করেছেন, ‘তোমরা সন্তানদের (শিশুদের) স্নেহ কোরো, তাদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার কোরো এবং সদাচরণ ও শিষ্টাচার শিক্ষা দাও।’ শিশুকালে অন্যান্য শিক্ষার পাশাপাশি সন্তানকে অবশ্যই দীনের শিক্ষা দিতে হবে। এই বয়সেই শুদ্ধভাবে কোরআন পড়া ও তা আমল করার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, হাজী আহমদ উল্লাহ, সফিকুল ইসলাম, আমিনুল ইসলাম বেপারী, সফিকুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান, আলমগীর হোসেন, ইব্রাহিম, মেহেদী, আহসান হাবীব, ক্বারী আবু ইউসুফ, গাজী মানিক, দয়াল, তোজাম্মেল, রায়হান মাষ্টার প্রমুখ।