ঢাকা ০৬:২০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

হানারচরে ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জলিলকে স্ট্যান্ড রিলিজ

সজীব খান : চাঁদপুর সদর উপজেলার হানারচর ইউনিয়নের সমাজমর্র্কী মোঃ জলিলকে স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে।

Model Hospital

সোমবার তাকে কচুুয়া উপজেলায় বদলি করা হয়। সমাজ সেবা অধদপ্তরের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে সারাদেশে প্রবীণ ব্যাক্তিদের সরকার ভাতা প্রদান করে আসছেন। নতুন বইয়ে ভাতাভোগীদের জন্য ৬হাজার ১টাকা নির্ধারন করেন। কিন্তু হানারচর ইউনিয়নে ভাতাভোগীদের নির্ধারিত টাকা দেওয়া হয়নি বলে ভুক্তভোগী কয়েকজন অভিযোগ করেছেন।

ওয়ার্ড মেম্বার, ইউনিয়ন সমাজকর্মী ও ব্যাংক এশিয়ার কিছুু লোকের যোগসাজশে হানারচরের ভাতাভোগীদের কাছ থেকে কিছুু টাকা মারা অভিযোগ আসে।

এ নিয়ে রবিবার প্রিয় চাঁদপুর অনলাইন সহ চাঁদপুরের স্থানীয় বেশ কয়েকটি পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলে বিষয়টি জেলা প্রশাসক কামরুল হাসানের দৃষ্টিতে পড়লে জেলা প্রশাসক বিষয়টি ৭দিনের মধ্যে তদন্ত করার জন্য সদর নির্বাহী কর্মকর্তাকে দায়িত্ব প্রদান করেন। এরপর সোমবার মোঃ জলিলকে স্ট্যান্ড রিলিজ করেন। সোমবার কর্র্মদিবসে তাকে সেখানে যোগদানের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে বলে সমাজ সেবা অফিস থেকে জানা যায়।

অভিযুক্ত হানারচর ইউনিয়নের সমাজমর্র্কী মোঃ জলিল বলেন, শনিবার হানারচরে বিশটি বইয়ের টাকা দেওয়া হয়।

১০টি এখনো রয়েছে, সেগুলো উপজেলা থেকে বিরতন করা হবে। শনিবার যাদের যাদের টাকা দেওয়া হয়েছে, তাদের প্রত্যেকের যার যার টাকা তার হাতে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। টাকা মারার বিষয়ে আমি কিংবা আমার অফিস কিছুই জানেনি। এখানে ভুল বুঝাবুুঝি হয়েছে। সবাই যার যার টাকা পেযেছে। অভিযোগটি সঠিক নয়।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

ক্যাব চাঁদপুরের আয়োজনে বাজার পরিস্থিতি ও নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক মত বিনিময় সভা

হানারচরে ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জলিলকে স্ট্যান্ড রিলিজ

আপডেট সময় : ০৪:২১:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ অগাস্ট ২০২২

সজীব খান : চাঁদপুর সদর উপজেলার হানারচর ইউনিয়নের সমাজমর্র্কী মোঃ জলিলকে স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে।

Model Hospital

সোমবার তাকে কচুুয়া উপজেলায় বদলি করা হয়। সমাজ সেবা অধদপ্তরের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে সারাদেশে প্রবীণ ব্যাক্তিদের সরকার ভাতা প্রদান করে আসছেন। নতুন বইয়ে ভাতাভোগীদের জন্য ৬হাজার ১টাকা নির্ধারন করেন। কিন্তু হানারচর ইউনিয়নে ভাতাভোগীদের নির্ধারিত টাকা দেওয়া হয়নি বলে ভুক্তভোগী কয়েকজন অভিযোগ করেছেন।

ওয়ার্ড মেম্বার, ইউনিয়ন সমাজকর্মী ও ব্যাংক এশিয়ার কিছুু লোকের যোগসাজশে হানারচরের ভাতাভোগীদের কাছ থেকে কিছুু টাকা মারা অভিযোগ আসে।

এ নিয়ে রবিবার প্রিয় চাঁদপুর অনলাইন সহ চাঁদপুরের স্থানীয় বেশ কয়েকটি পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলে বিষয়টি জেলা প্রশাসক কামরুল হাসানের দৃষ্টিতে পড়লে জেলা প্রশাসক বিষয়টি ৭দিনের মধ্যে তদন্ত করার জন্য সদর নির্বাহী কর্মকর্তাকে দায়িত্ব প্রদান করেন। এরপর সোমবার মোঃ জলিলকে স্ট্যান্ড রিলিজ করেন। সোমবার কর্র্মদিবসে তাকে সেখানে যোগদানের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে বলে সমাজ সেবা অফিস থেকে জানা যায়।

অভিযুক্ত হানারচর ইউনিয়নের সমাজমর্র্কী মোঃ জলিল বলেন, শনিবার হানারচরে বিশটি বইয়ের টাকা দেওয়া হয়।

১০টি এখনো রয়েছে, সেগুলো উপজেলা থেকে বিরতন করা হবে। শনিবার যাদের যাদের টাকা দেওয়া হয়েছে, তাদের প্রত্যেকের যার যার টাকা তার হাতে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। টাকা মারার বিষয়ে আমি কিংবা আমার অফিস কিছুই জানেনি। এখানে ভুল বুঝাবুুঝি হয়েছে। সবাই যার যার টাকা পেযেছে। অভিযোগটি সঠিক নয়।