ঢাকা ০৫:২৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জ বাগপুরে মসজিদের কাজ বন্ধ শিরোনামে মোবাশ্বের বেগম ও এলাকাবাসী বিবৃতি

গত ১৬ এপ্রিল চাঁদপুরের বিভিন্ন পত্রিকা ও কয়েকটি নিউজ পোর্টালে “ফরিদগঞ্জের বাগপুরে মহিলার মিথ্যা মামলায় মসজিদের কাজ বন্ধ” শিরোনামের বিবৃতি দিয়ছেন মোবাশ্বেরা বেগম ও এলাকাবাসী।
মোবাশ্বেরা বেগম জানায়, আমাদের ব্যক্তিগত সম্পত্তি কয়েকজন কুচক্রী মসজিদের দাবী করে তারা আমাদের সম্পত্তিতে জোর পূর্বক টয়লেট নির্মাণ করার চেষ্টা করে। আমি তাতে বাঁধা দেওয়ায় হাছান পাটওয়ারীসহ কয়েকজন মিলে আমাকে মারধর করার চেষ্টা করে। পরে আমি উপায় না পেয়ে আদালতের স্বরনাপন্ন হই এবং আদালত তাতে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করেন।
মোবাশ্বেরা বেগম আরো বলেন, মসজিদের যে পাশে তারা টয়লেট নির্মাণ করার চেষ্টা করে, উক্ত জায়গা আমার শশুরের সূত্রে আমার মালিক হই এবং এ জায়গার তিন পাশে পারিবারিক কবরস্থান রয়েছে। মসজিদের সাথে একজন মুসলমান হিসেবে আমার কোন দূরত্ব নেই। যাহারা আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে, তারা বিভিন্ন সময় আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ভাবে ষড়যন্ত্র করে আসছে। হাছান পাটওয়ারীসহ কয়েকজন কুচক্রী মহল সংবাদ কর্মীদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ পরিবেশন করেছে। আমি উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা জানাই ও প্রতিবাদ জানাই।
এলাকাবাসী সিরাজ শেখসহ কয়েকজন জানায়, মসজিদ টয়লেট নির্মাণের জন্য কালাম পাটওয়ারীর ছেলে মাহাবুব আলম পাটওয়ারী জায়গা দেওয়ার কথা বললেও হাছান পাটওয়ারী গংরা জোরপূর্বক মোবাশ্বেরা বেগমের জায়গায় টয়লেট নির্মাণের পায়তারা করছে।
তারা আরো বলেন, সিরাজ শেখ টয়লেট নির্মাণের জন্য ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার কথা বললেও তারা তাতে কর্নপাত না করে জোর পূর্বক টয়লেট নির্মাণ করার চেষ্টা করে। মসজিদ সংলগ্ন এবং তিন পাশে কবরস্থান রেখে টয়লেট নির্মাণ কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুর শহরে আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে দাঁড়ালো অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন

ফরিদগঞ্জ বাগপুরে মসজিদের কাজ বন্ধ শিরোনামে মোবাশ্বের বেগম ও এলাকাবাসী বিবৃতি

আপডেট সময় : ০৪:১৮:৩০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ এপ্রিল ২০২২
গত ১৬ এপ্রিল চাঁদপুরের বিভিন্ন পত্রিকা ও কয়েকটি নিউজ পোর্টালে “ফরিদগঞ্জের বাগপুরে মহিলার মিথ্যা মামলায় মসজিদের কাজ বন্ধ” শিরোনামের বিবৃতি দিয়ছেন মোবাশ্বেরা বেগম ও এলাকাবাসী।
মোবাশ্বেরা বেগম জানায়, আমাদের ব্যক্তিগত সম্পত্তি কয়েকজন কুচক্রী মসজিদের দাবী করে তারা আমাদের সম্পত্তিতে জোর পূর্বক টয়লেট নির্মাণ করার চেষ্টা করে। আমি তাতে বাঁধা দেওয়ায় হাছান পাটওয়ারীসহ কয়েকজন মিলে আমাকে মারধর করার চেষ্টা করে। পরে আমি উপায় না পেয়ে আদালতের স্বরনাপন্ন হই এবং আদালত তাতে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করেন।
মোবাশ্বেরা বেগম আরো বলেন, মসজিদের যে পাশে তারা টয়লেট নির্মাণ করার চেষ্টা করে, উক্ত জায়গা আমার শশুরের সূত্রে আমার মালিক হই এবং এ জায়গার তিন পাশে পারিবারিক কবরস্থান রয়েছে। মসজিদের সাথে একজন মুসলমান হিসেবে আমার কোন দূরত্ব নেই। যাহারা আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে, তারা বিভিন্ন সময় আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ভাবে ষড়যন্ত্র করে আসছে। হাছান পাটওয়ারীসহ কয়েকজন কুচক্রী মহল সংবাদ কর্মীদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ পরিবেশন করেছে। আমি উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা জানাই ও প্রতিবাদ জানাই।
এলাকাবাসী সিরাজ শেখসহ কয়েকজন জানায়, মসজিদ টয়লেট নির্মাণের জন্য কালাম পাটওয়ারীর ছেলে মাহাবুব আলম পাটওয়ারী জায়গা দেওয়ার কথা বললেও হাছান পাটওয়ারী গংরা জোরপূর্বক মোবাশ্বেরা বেগমের জায়গায় টয়লেট নির্মাণের পায়তারা করছে।
তারা আরো বলেন, সিরাজ শেখ টয়লেট নির্মাণের জন্য ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার কথা বললেও তারা তাতে কর্নপাত না করে জোর পূর্বক টয়লেট নির্মাণ করার চেষ্টা করে। মসজিদ সংলগ্ন এবং তিন পাশে কবরস্থান রেখে টয়লেট নির্মাণ কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।