ঢাকা ০১:৩৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মিলন ও সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার দুপুরে চাঁদপুর শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তাঁরা দুজন চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে নিজ নিজ বাসায় চিকিৎসাধীন আছেন।

Model Hospital

আহত গিয়াসউদ্দিন মিলন জানান, দুপুরে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে জেলা মৎস্য অফিসে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিং শেষে তিনি এবং তাঁর সেক্রেটারিসহ মোটরসাইকেলে করে বঙ্গবন্ধু সড়ক হয়ে প্রেসক্লাবে আসছিলেন। মোটরসাইকেল তিনি নিজেই চালাচ্ছিলেন।

বঙ্গবন্ধু সড়ক দিয়ে দর্জিঘাট এলাকা পার হয়ে একটু সামনে এগুলে রাস্তায় গর্ত দেখে তিনি তার মোটরসাইকেল হালকা ব্রেক করেন। তখনই মোটরসাইকেলটি কাত হয়ে পড়ে যায়। তারা দুজনও রাস্তায় পড়ে যান। এতে তারা আহত হন। গিয়াসউদ্দিন মিলন কপালে, নাকে, হাঁটুতে এবং ডান হাতের কাঁধে আঘাত পান। আর রিয়াদ ফেরদৌস কনুই ও হাঁটুতে আঘাত পান। গিয়াসউদ্দিন মিলনের ডান হাতের কাঁধের আঘাতটি গুরুতর। তাঁরা দুজন হাসপাতালে আসলে হাসপাতালের আরএমও ডাঃ সুজাউদ্দৌলা রুবেল এবং অর্থোপেডিক বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার ডাঃ ফরিদ আহমেদ চৌধুরী তাঁদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেন। পরে তাঁরা বাসায় চলে যান। গিয়াসউদ্দিন মিলনকে ডাক্তার তিন সপ্তাহের বিশ্রাম দিয়েছেন।

এদিকে প্রেসক্লাব সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আহত হওয়ার খবর পেয়ে প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন পর্যায়ের সাংবাদিক হাসপাতালে ছুটে আসেন। তারা তাদের চিকিৎসার সার্বিক দিক তদারকি করেন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

রমজানের আগেই ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ কমিশন’ দাবি নতুনধারার

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত

আপডেট সময় : ০৭:০১:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ জুলাই ২০২২

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মিলন ও সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার দুপুরে চাঁদপুর শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তাঁরা দুজন চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে নিজ নিজ বাসায় চিকিৎসাধীন আছেন।

Model Hospital

আহত গিয়াসউদ্দিন মিলন জানান, দুপুরে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে জেলা মৎস্য অফিসে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিং শেষে তিনি এবং তাঁর সেক্রেটারিসহ মোটরসাইকেলে করে বঙ্গবন্ধু সড়ক হয়ে প্রেসক্লাবে আসছিলেন। মোটরসাইকেল তিনি নিজেই চালাচ্ছিলেন।

বঙ্গবন্ধু সড়ক দিয়ে দর্জিঘাট এলাকা পার হয়ে একটু সামনে এগুলে রাস্তায় গর্ত দেখে তিনি তার মোটরসাইকেল হালকা ব্রেক করেন। তখনই মোটরসাইকেলটি কাত হয়ে পড়ে যায়। তারা দুজনও রাস্তায় পড়ে যান। এতে তারা আহত হন। গিয়াসউদ্দিন মিলন কপালে, নাকে, হাঁটুতে এবং ডান হাতের কাঁধে আঘাত পান। আর রিয়াদ ফেরদৌস কনুই ও হাঁটুতে আঘাত পান। গিয়াসউদ্দিন মিলনের ডান হাতের কাঁধের আঘাতটি গুরুতর। তাঁরা দুজন হাসপাতালে আসলে হাসপাতালের আরএমও ডাঃ সুজাউদ্দৌলা রুবেল এবং অর্থোপেডিক বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার ডাঃ ফরিদ আহমেদ চৌধুরী তাঁদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেন। পরে তাঁরা বাসায় চলে যান। গিয়াসউদ্দিন মিলনকে ডাক্তার তিন সপ্তাহের বিশ্রাম দিয়েছেন।

এদিকে প্রেসক্লাব সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আহত হওয়ার খবর পেয়ে প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন পর্যায়ের সাংবাদিক হাসপাতালে ছুটে আসেন। তারা তাদের চিকিৎসার সার্বিক দিক তদারকি করেন।