ঢাকা ০২:১৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অর্ন্তভুক্তিমূলক উন্নয়নে শেখ হাসিনা মডেল : চাঁদপুর ডিসি কামরুল হাসান

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ গৃহ প্রদান কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

২১মার্চ (মঙ্গলবার) বিকাল সাড়ে ৩টায় চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ প্রেস ব্রিফিং এর আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান।

চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান সভাপতির বক্তব্যে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র মানবিক উদ্যোগগুলো প্রচার করতে হবে। যাতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র উদ্যোগ গুলো সফল হয়। অন্তভুক্তিমূলক উন্নয়নে সারাদেশে  শেখ হাসিনা মডেল ।

যার ফলে চাঁদপুরের তিনটি উপজেলা ভূমি ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষনার আওতায় আনা  হয়েছে ।  আমরা যাদের জমি ও গৃহদিব তাদেরকে প্রশিক্ষন দেওয়া, কর্মসংস্থান, ঋন দেওয়ার ব্যবস্থা করব। চাঁদপুর জেলায় ৩টি উপজেলাসহ সারাদেশে  ৩য় পর্যায় অবশিষ্ট ও ৪র্থ পর্যায়ের ভূমি ও গৃহহীন ঘোষনা করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। এ বিষয়গুলো জানানোর জন্য আজকের প্রেস ব্রিফিং। আপনাদের মাধ্যমে এ তথ্য পৌঁছে যাবে। (আজকে) প্রধানমন্ত্রী গৃহহীন পরিবারকে জমাসহ গৃহপ্রদান কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করবেন। ভূমি ও গৃহহীনদের জন্য সবচেয়ে বেশি জমি ক্রয় করা হয়েছে চাঁদপুর সদরে। সদরে প্রায় ১কোটি ৬৩ লক্ষ টাকায় ১শ ২০ শতক জমি ক্রয় করা হয়। জমি ও গৃহসহ একজন ব্যক্তিকে প্রায় ৫লক্ষ টাকা দেওয়া হচ্ছে। আমরা যখনই ভূমি ও গৃহহীনদের তথ্য নিচ্ছি, বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নিচ্ছি। পরবর্তীতে আমরা যদি একজনও জমি ও ভূমিহীন পাই, তাকেও জমিসহ ঘর দেওয়ার চেষ্টা করবো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে। ভূমিহীন বলতে ৫শতক জমির কম থাকলে তাকে ভূমিহীন বলে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ঘোষনা দিয়েছেন  মুজিববর্ষে বাংলাদেশে একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে দেশের সকল ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে ৩য় পর্যায় অবশিষ্ট ও ৪র্থ পর্যায়ের শুভ উদ্বোধন করবেন। চাঁদপুর জেলায় মোট ১৫৯৯টি ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারের মধ্যে ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ৫৬টি, মতলব উত্তরে ১৮৫টি ও শাহরাস্তি উপজেলাঢ ৫৮টি হালানাগাদকৃত ভূমি ও গৃহহীন পরিবার সকলকে পুনবাসন করায় আপাতত এ তিন উপজেলায় কোন ভূমিহীন নেই। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ফরিদগঞ্জ, মতলব উত্তর, শাহরাস্তি উপজেলাকে এ পর্যায়ে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত ঘোষনা করবেন।

জেলা প্রশাসক বলেন, সর্বশেষ হালনাগাদকৃত তালিকা অনুযায়ী চাঁদপুর জেলায় ক শ্রেনির ভূমি ও গৃহহীন পরিবার এর সংখ্যা ১৫৯৯টি। জেলায় অবশিষ্ট ভূমিহীন ১০৫টি পরিবারের মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৩৭টি পরিবারকে সিভিআরপি প্রকল্প পুনবার্সন করা হবে এবং ৪২টি খাস জমিতে পুনবার্সন সম্ভব না হলে জমি ক্রয়ের মাধ্যমে, কচুয়া উপজেলায় ১৩টি পরিবারকে পুর্নবাসনের লক্ষে চাহিদা প্রেরণ করা হয়েছে। মতলব দক্ষিন উপজেলায় ১৩টি পরিবারকে জমি ক্রয়ের মাধ্যমে পুর্নবাসনের কার্যক্রম চলমান আছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসনের নির্দেশনা বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সকলে সকলে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) বশির আহমেদ এর সঞ্চালনায় জেলা প্রশাসন ও সাংবাদিক মধ্যে  বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোমাম্মৎ রাশেদা আক্তার, চাঁদপুর প্রেসক্লাব ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী,চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর প্রতিদিনের সম্পাদক ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন লিটন ,দৈনিক চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আব্দুর রহমান, দৈনিক প্রভাতী কাগজ এর সম্পাদক আব্দুল আউয়াল রুবেল ,দৈনিক প্রথম আলোর চাঁদপুর প্রতিনিধি ও ডেইলী স্টার এর চাঁদপুর জেলা  প্রতিনিধি আলম পলাশ, দৈনিক আলোকিত চাঁদপুরের সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জাকির হোসেন,  সময় টিভির চাঁদপুর জেলার স্টাফ রির্পোটার ফারুক আহমেদ,  ডিবিসি চ্যানেলের চাঁদপুর প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম আতিক।

প্রেসব্রিফিং এ বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর প্রেসক্লাব ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভূমি ও গৃহহীনদের মাঝে জমি ও গৃহ প্রদান একটি মানবিক ও  মহৎ উদ্যোগ। এ ব্যাপারে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন নিরলসভাবে কাজ করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ করছে চাঁদপুর  জেলা প্রশাসন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভূমি ও গৃহ প্রদান মাধ্যমে ভূমিহীনরা ভুমি ও ঘর পাবে। মৈশাদী ইউপির হামানকর্দ্দি গ্রামের ভূমি ও গৃহহীনদের জন্য নির্ধারিত জায়গাগুলো অনেক লোকেশন ভালো।স্থানীয় জনগন বিষয়টিকে স্বাগত জানিয়েছে ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সানজিদা শাহনাজ, চাঁদপুর সদর এসিল্যান্ড মো: হেদায়েত উল্ল্যাহ, জেলা প্রশাসনের আরডিসি শারমিন আক্তারসহ চাঁদপুর প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ,স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার সম্পাদকবৃন্দ ,জাতীয় ও স্থানীয় গণমাধ্যমে কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

২২মার্চ সকালে সারাদেশে একযোগে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৪র্থ পর্যায় ৩৯৩৬৫টি  ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি এবং গৃহ প্রদান প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ট্যাগস :

মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিতদের গেজেট প্রকাশ

অর্ন্তভুক্তিমূলক উন্নয়নে শেখ হাসিনা মডেল : চাঁদপুর ডিসি কামরুল হাসান

আপডেট সময় : ০৪:২৭:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মার্চ ২০২৩

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমিসহ গৃহ প্রদান কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

২১মার্চ (মঙ্গলবার) বিকাল সাড়ে ৩টায় চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ প্রেস ব্রিফিং এর আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান।

চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান সভাপতির বক্তব্যে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র মানবিক উদ্যোগগুলো প্রচার করতে হবে। যাতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র উদ্যোগ গুলো সফল হয়। অন্তভুক্তিমূলক উন্নয়নে সারাদেশে  শেখ হাসিনা মডেল ।

যার ফলে চাঁদপুরের তিনটি উপজেলা ভূমি ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষনার আওতায় আনা  হয়েছে ।  আমরা যাদের জমি ও গৃহদিব তাদেরকে প্রশিক্ষন দেওয়া, কর্মসংস্থান, ঋন দেওয়ার ব্যবস্থা করব। চাঁদপুর জেলায় ৩টি উপজেলাসহ সারাদেশে  ৩য় পর্যায় অবশিষ্ট ও ৪র্থ পর্যায়ের ভূমি ও গৃহহীন ঘোষনা করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। এ বিষয়গুলো জানানোর জন্য আজকের প্রেস ব্রিফিং। আপনাদের মাধ্যমে এ তথ্য পৌঁছে যাবে। (আজকে) প্রধানমন্ত্রী গৃহহীন পরিবারকে জমাসহ গৃহপ্রদান কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করবেন। ভূমি ও গৃহহীনদের জন্য সবচেয়ে বেশি জমি ক্রয় করা হয়েছে চাঁদপুর সদরে। সদরে প্রায় ১কোটি ৬৩ লক্ষ টাকায় ১শ ২০ শতক জমি ক্রয় করা হয়। জমি ও গৃহসহ একজন ব্যক্তিকে প্রায় ৫লক্ষ টাকা দেওয়া হচ্ছে। আমরা যখনই ভূমি ও গৃহহীনদের তথ্য নিচ্ছি, বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নিচ্ছি। পরবর্তীতে আমরা যদি একজনও জমি ও ভূমিহীন পাই, তাকেও জমিসহ ঘর দেওয়ার চেষ্টা করবো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে। ভূমিহীন বলতে ৫শতক জমির কম থাকলে তাকে ভূমিহীন বলে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ঘোষনা দিয়েছেন  মুজিববর্ষে বাংলাদেশে একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নে দেশের সকল ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে ৩য় পর্যায় অবশিষ্ট ও ৪র্থ পর্যায়ের শুভ উদ্বোধন করবেন। চাঁদপুর জেলায় মোট ১৫৯৯টি ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারের মধ্যে ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ৫৬টি, মতলব উত্তরে ১৮৫টি ও শাহরাস্তি উপজেলাঢ ৫৮টি হালানাগাদকৃত ভূমি ও গৃহহীন পরিবার সকলকে পুনবাসন করায় আপাতত এ তিন উপজেলায় কোন ভূমিহীন নেই। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ফরিদগঞ্জ, মতলব উত্তর, শাহরাস্তি উপজেলাকে এ পর্যায়ে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত ঘোষনা করবেন।

জেলা প্রশাসক বলেন, সর্বশেষ হালনাগাদকৃত তালিকা অনুযায়ী চাঁদপুর জেলায় ক শ্রেনির ভূমি ও গৃহহীন পরিবার এর সংখ্যা ১৫৯৯টি। জেলায় অবশিষ্ট ভূমিহীন ১০৫টি পরিবারের মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৩৭টি পরিবারকে সিভিআরপি প্রকল্প পুনবার্সন করা হবে এবং ৪২টি খাস জমিতে পুনবার্সন সম্ভব না হলে জমি ক্রয়ের মাধ্যমে, কচুয়া উপজেলায় ১৩টি পরিবারকে পুর্নবাসনের লক্ষে চাহিদা প্রেরণ করা হয়েছে। মতলব দক্ষিন উপজেলায় ১৩টি পরিবারকে জমি ক্রয়ের মাধ্যমে পুর্নবাসনের কার্যক্রম চলমান আছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারকে পুনর্বাসনের নির্দেশনা বাস্তবায়নে জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সকলে সকলে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) বশির আহমেদ এর সঞ্চালনায় জেলা প্রশাসন ও সাংবাদিক মধ্যে  বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোমাম্মৎ রাশেদা আক্তার, চাঁদপুর প্রেসক্লাব ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী,চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর প্রতিদিনের সম্পাদক ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন লিটন ,দৈনিক চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আব্দুর রহমান, দৈনিক প্রভাতী কাগজ এর সম্পাদক আব্দুল আউয়াল রুবেল ,দৈনিক প্রথম আলোর চাঁদপুর প্রতিনিধি ও ডেইলী স্টার এর চাঁদপুর জেলা  প্রতিনিধি আলম পলাশ, দৈনিক আলোকিত চাঁদপুরের সম্পাদক ও প্রকাশক মো: জাকির হোসেন,  সময় টিভির চাঁদপুর জেলার স্টাফ রির্পোটার ফারুক আহমেদ,  ডিবিসি চ্যানেলের চাঁদপুর প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম আতিক।

প্রেসব্রিফিং এ বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর প্রেসক্লাব ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী।

তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভূমি ও গৃহহীনদের মাঝে জমি ও গৃহ প্রদান একটি মানবিক ও  মহৎ উদ্যোগ। এ ব্যাপারে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন নিরলসভাবে কাজ করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ করছে চাঁদপুর  জেলা প্রশাসন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভূমি ও গৃহ প্রদান মাধ্যমে ভূমিহীনরা ভুমি ও ঘর পাবে। মৈশাদী ইউপির হামানকর্দ্দি গ্রামের ভূমি ও গৃহহীনদের জন্য নির্ধারিত জায়গাগুলো অনেক লোকেশন ভালো।স্থানীয় জনগন বিষয়টিকে স্বাগত জানিয়েছে ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সানজিদা শাহনাজ, চাঁদপুর সদর এসিল্যান্ড মো: হেদায়েত উল্ল্যাহ, জেলা প্রশাসনের আরডিসি শারমিন আক্তারসহ চাঁদপুর প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ,স্থানীয় দৈনিক পত্রিকার সম্পাদকবৃন্দ ,জাতীয় ও স্থানীয় গণমাধ্যমে কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

২২মার্চ সকালে সারাদেশে একযোগে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৪র্থ পর্যায় ৩৯৩৬৫টি  ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি এবং গৃহ প্রদান প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।