ঢাকা ১২:৩৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মতলব উত্তরে সাংবাদিককে পিটিয়ে ফেলে রেখে গেছে সন্ত্রাসীরা : থানায় অভিযোগ

সংবাদ প্রকাশের জের ধরে দৈনিক কালবেলার চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা প্রতিনিধি মোঃ মমিনুল ইসলামের ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে বেধরক পিটিয়েছে স্থানীয় মাদক কারবারীরা। মমিনুল(৩৩) উপজেলার ছেঙ্গারচর পৌর এলাকার ৫নং ওয়ার্ডের দেওয়ানজিকান্দি গ্রামের দুলাল হোসেনের ছেলে।
১৬ ডিসেম্বর শনিবার সকালে মতলব উত্তর উপজেলা ভূমি কার্যালয়ের সামনের পাকা রাস্তার উপর এ হামলা চালানো হয়।
প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, হামলাকারীরা হচ্ছেন মোঃ আমির হোসেন মোল্লা (৪৫),মোঃ রাজিব মৃধা (২৮),মোঃ মিজান মোল্লা (৩৭)সহ আরও ৬/৭ জন। তারা প্রত্যেকেই ছেংগারচর পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের ঘনিয়ারপাড়ের বাসিন্দা।
স্থানীয় মোঃ শাহাজালাল বেপারী, মোঃ বজলুল গনি, মোঃ ইমরান হোসেন, মোঃ সাব্বির লস্করসহ দেওয়ানজিকান্দি এলাকার বাসিন্দারা বলেন, মমিনুল খুবই নম্র ভদ্র ছেলে এবং পেশাদার একজন সাংবাদিক। অতছ তার ওপর হামলা চালানো আমির ও মিজান হচ্ছে ইয়াবা কারবারী। এছাড়াও তাদের নামে চুরি, ছিনতাইসহ নানা অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে থানায়। পুলিশ তাদের নানা সময়ে ধরলে সে সংবাদ পত্রিকায় আসলে ওরা মমিনুলকে চোখের সামনে দেখে সন্দেহ করে হুমকি ধমকি দিতো।
স্থানীয়রা আরও বলেন, সাম্প্রতি সময়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আমির ও মিজানের ইয়াবা সেবনের ভিডিও ভাইরাল হয়। একই সাথে মিজানকে গরু চুরির অপরাধে পুলিশ আটকের ঘটনা পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। আর এই ভিডিও ভাইরাল ও পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশে মমিন জড়িত সন্দেহে তার ওপর এই অতর্কিতভাবে অমানবিক হামলা চালানো হলো। আমরা একজন ন্যায়পরায়ন সাংবাদিকের ওপর এমন ন্যাক্কারজনক হামলার তীব্র নিন্দা ও দোষীদের শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।
এ বিষয়ে দৈনিক কালবেলার আহত সাংবাদিক মমিনুল ইসলাম বলেন, মতলব উত্তর উপজেলা মাঠে আয়োজিত মহান বিজয় দিবস অনুষ্ঠানে পেশাগত দায়িত্ব শেষ করে আমার নিজস্ব মোটর সাইকেলযোগে নিজ বাড়ীতে যাওয়ার জন্য রওনা দেই। পথেমধ্যে ওৎ পেতে থেকে সন্ত্রাসীরা আমাকে দেশীয় অস্ত্রসহ হামলা চালিয়ে গুরুতর জখম করে। হামলার সময় ওরা আমার মোবাইল ও প্যান ড্রাইভ ছিনতাই, মোটরসাইকেল ভাঙ্গচুর এবং মানিব্যাগে থাকা নগদ অর্থ ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে আমাকে হাসপাতালে ভর্তি করে। আমি আইনের কাছে ন্যায় বিচার পেতে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।
অভিযোগ প্রসঙ্গে হামলাকারীরা গা ঢাকা দেয়ায় কারোরি বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে মতলব উত্তর থানার ওসি রাশেদ মোবারক বলেন, আমরা এ সংক্রান্ত একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অপরাধীরা যেই হউক কোন ছাড় দেয়া হবেনা। বিষয়টি গুরুত্বসহকারে তদন্ত করে দেখে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এদিকে এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে দ্রুত সাংবাদিক নির্যাতনকারীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবী জানিয়েছে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম চাঁদপুর জেলাসহ মতলব উত্তরে কর্মরত সাংবাদিক সমাজ ও বিভিন্ন সুধী মহল।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে অটো চালকের মৃত্যু

মতলব উত্তরে সাংবাদিককে পিটিয়ে ফেলে রেখে গেছে সন্ত্রাসীরা : থানায় অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৮:২৮:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০২৩
সংবাদ প্রকাশের জের ধরে দৈনিক কালবেলার চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা প্রতিনিধি মোঃ মমিনুল ইসলামের ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে বেধরক পিটিয়েছে স্থানীয় মাদক কারবারীরা। মমিনুল(৩৩) উপজেলার ছেঙ্গারচর পৌর এলাকার ৫নং ওয়ার্ডের দেওয়ানজিকান্দি গ্রামের দুলাল হোসেনের ছেলে।
১৬ ডিসেম্বর শনিবার সকালে মতলব উত্তর উপজেলা ভূমি কার্যালয়ের সামনের পাকা রাস্তার উপর এ হামলা চালানো হয়।
প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, হামলাকারীরা হচ্ছেন মোঃ আমির হোসেন মোল্লা (৪৫),মোঃ রাজিব মৃধা (২৮),মোঃ মিজান মোল্লা (৩৭)সহ আরও ৬/৭ জন। তারা প্রত্যেকেই ছেংগারচর পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের ঘনিয়ারপাড়ের বাসিন্দা।
স্থানীয় মোঃ শাহাজালাল বেপারী, মোঃ বজলুল গনি, মোঃ ইমরান হোসেন, মোঃ সাব্বির লস্করসহ দেওয়ানজিকান্দি এলাকার বাসিন্দারা বলেন, মমিনুল খুবই নম্র ভদ্র ছেলে এবং পেশাদার একজন সাংবাদিক। অতছ তার ওপর হামলা চালানো আমির ও মিজান হচ্ছে ইয়াবা কারবারী। এছাড়াও তাদের নামে চুরি, ছিনতাইসহ নানা অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে থানায়। পুলিশ তাদের নানা সময়ে ধরলে সে সংবাদ পত্রিকায় আসলে ওরা মমিনুলকে চোখের সামনে দেখে সন্দেহ করে হুমকি ধমকি দিতো।
স্থানীয়রা আরও বলেন, সাম্প্রতি সময়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আমির ও মিজানের ইয়াবা সেবনের ভিডিও ভাইরাল হয়। একই সাথে মিজানকে গরু চুরির অপরাধে পুলিশ আটকের ঘটনা পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। আর এই ভিডিও ভাইরাল ও পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশে মমিন জড়িত সন্দেহে তার ওপর এই অতর্কিতভাবে অমানবিক হামলা চালানো হলো। আমরা একজন ন্যায়পরায়ন সাংবাদিকের ওপর এমন ন্যাক্কারজনক হামলার তীব্র নিন্দা ও দোষীদের শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।
এ বিষয়ে দৈনিক কালবেলার আহত সাংবাদিক মমিনুল ইসলাম বলেন, মতলব উত্তর উপজেলা মাঠে আয়োজিত মহান বিজয় দিবস অনুষ্ঠানে পেশাগত দায়িত্ব শেষ করে আমার নিজস্ব মোটর সাইকেলযোগে নিজ বাড়ীতে যাওয়ার জন্য রওনা দেই। পথেমধ্যে ওৎ পেতে থেকে সন্ত্রাসীরা আমাকে দেশীয় অস্ত্রসহ হামলা চালিয়ে গুরুতর জখম করে। হামলার সময় ওরা আমার মোবাইল ও প্যান ড্রাইভ ছিনতাই, মোটরসাইকেল ভাঙ্গচুর এবং মানিব্যাগে থাকা নগদ অর্থ ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে আমাকে হাসপাতালে ভর্তি করে। আমি আইনের কাছে ন্যায় বিচার পেতে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।
অভিযোগ প্রসঙ্গে হামলাকারীরা গা ঢাকা দেয়ায় কারোরি বক্তব্য পাওয়া যায়নি।
এ বিষয়ে মতলব উত্তর থানার ওসি রাশেদ মোবারক বলেন, আমরা এ সংক্রান্ত একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অপরাধীরা যেই হউক কোন ছাড় দেয়া হবেনা। বিষয়টি গুরুত্বসহকারে তদন্ত করে দেখে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এদিকে এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে দ্রুত সাংবাদিক নির্যাতনকারীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবী জানিয়েছে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম চাঁদপুর জেলাসহ মতলব উত্তরে কর্মরত সাংবাদিক সমাজ ও বিভিন্ন সুধী মহল।