ঢাকা ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জেলা পরিষদের পাবলিক টয়লেটের টাংকি দখল করে দোকান নির্মাণ

চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুরে মহামায়া বাজারে জেলা পরিষদের পাবলিক টয়লেটের টাংকি দখল করে দোকান নির্মান করেন স্থানীয় লোধেরগাঁও বেপারী বাড়ির মরহুম আলাউদ্দিন বেপারী ছেলে আরজু বেপারী। এই নিয়ে বাজার ব্যবসায়ীদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।

Model Hospital

৩ ও ৪ জুন সকাল থেকে লোকজন নিয়ে টয়লেটের টাংকির ফাঁকা জায়গা দখল করে কাজ করতে দেখা যায় আরজু বেপারী কে। বাজার ব্যবসায়ীরা তাকে বাঁধা দিলে সে কাউকে কোন তোয়াক্কা না করে হুমকি থামকি দিয়ে কাজ করে । বাজারের পদধিকার বলে সভাপতি ৪ নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মাসুদুর রহমান নান্টু কে জানালে তিনি ঘটনা স্থলে আসেনি এবং কোন প্রয়োজনীয় ব্যবন্থা গ্রহন করেনি। সড়ক ও জনপদ বিভাগের জায়গায় জেলা পরিষদের নির্মিন টয়লেটি এতে করে হুমকির মুখে। এর ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে মসজিদের মুসুল্লি ও শত শত বাজার ব্যবসায়ীরা।

বাজার ব্যবসায়ী কুসম জানান আমি ও বাজারের অনেক ব্যবসায়ীরা আরজুকে এই কাজ করতে বাঁধা দিয়েছি। আরজু আমাদের কথা না শুনে পেশী শক্তি দিয়ে কাজ করেছে। আমরা ব্যবসা করার সুবাদে এই টয়লেটি ও টিউবওয়েল ব্যবহার করতাম। মসজিদের মুসুল্লিরাও নামাজের জন্য অযু করে কিন্তু এটা দখল হওয়াতে বাজার ব্যবসায়ী ও মুসুল্লিদের অনেক ক্ষতি হয়েছে।চেয়ারম্যানকে বারংবার বলেছি তিনি আসেনি এবং কোন ব্যবন্থা গ্রহন করেনি। আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে করে জনস্বার্থে পাবলিক টয়লেট ও টিউবয়েলটি রক্ষা করবে।

এই বিষয়ে পাবলিক টয়লেটের টাংকি দখলকারী আরজু বেপারী বলেন, আমার মরহুম বাবা বাজারের দীর্ঘ ১৯ বছর ইজারাদার ছিল। আর সেই অধিকারের দাবিতে এই টাংকির উপর একটি দোকান তৈরী করেছি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

স্কুলের শ্রেণিকক্ষে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় ছাত্রীসহ প্রধান শিক্ষক আটক

জেলা পরিষদের পাবলিক টয়লেটের টাংকি দখল করে দোকান নির্মাণ

আপডেট সময় : ১০:৫২:০২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জুন ২০২৪

চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুরে মহামায়া বাজারে জেলা পরিষদের পাবলিক টয়লেটের টাংকি দখল করে দোকান নির্মান করেন স্থানীয় লোধেরগাঁও বেপারী বাড়ির মরহুম আলাউদ্দিন বেপারী ছেলে আরজু বেপারী। এই নিয়ে বাজার ব্যবসায়ীদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।

Model Hospital

৩ ও ৪ জুন সকাল থেকে লোকজন নিয়ে টয়লেটের টাংকির ফাঁকা জায়গা দখল করে কাজ করতে দেখা যায় আরজু বেপারী কে। বাজার ব্যবসায়ীরা তাকে বাঁধা দিলে সে কাউকে কোন তোয়াক্কা না করে হুমকি থামকি দিয়ে কাজ করে । বাজারের পদধিকার বলে সভাপতি ৪ নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মাসুদুর রহমান নান্টু কে জানালে তিনি ঘটনা স্থলে আসেনি এবং কোন প্রয়োজনীয় ব্যবন্থা গ্রহন করেনি। সড়ক ও জনপদ বিভাগের জায়গায় জেলা পরিষদের নির্মিন টয়লেটি এতে করে হুমকির মুখে। এর ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে মসজিদের মুসুল্লি ও শত শত বাজার ব্যবসায়ীরা।

বাজার ব্যবসায়ী কুসম জানান আমি ও বাজারের অনেক ব্যবসায়ীরা আরজুকে এই কাজ করতে বাঁধা দিয়েছি। আরজু আমাদের কথা না শুনে পেশী শক্তি দিয়ে কাজ করেছে। আমরা ব্যবসা করার সুবাদে এই টয়লেটি ও টিউবওয়েল ব্যবহার করতাম। মসজিদের মুসুল্লিরাও নামাজের জন্য অযু করে কিন্তু এটা দখল হওয়াতে বাজার ব্যবসায়ী ও মুসুল্লিদের অনেক ক্ষতি হয়েছে।চেয়ারম্যানকে বারংবার বলেছি তিনি আসেনি এবং কোন ব্যবন্থা গ্রহন করেনি। আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি, তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে করে জনস্বার্থে পাবলিক টয়লেট ও টিউবয়েলটি রক্ষা করবে।

এই বিষয়ে পাবলিক টয়লেটের টাংকি দখলকারী আরজু বেপারী বলেন, আমার মরহুম বাবা বাজারের দীর্ঘ ১৯ বছর ইজারাদার ছিল। আর সেই অধিকারের দাবিতে এই টাংকির উপর একটি দোকান তৈরী করেছি।