ঢাকা ০৯:৩৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মতলবের মেধাবী শিক্ষার্থী ফয়সালকে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান

প্রতিনিধি : চাঁদপুরের শিক্ষিত তরুণ প্রজন্মের অরাজনৈতিক প্ল্যাটফর্ম ‘অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর অনুরোধে সাড়া দিয়ে মতলব দক্ষিণ উপজেলার ১নং নায়েরগাঁও উত্তর ইউনিয়ন এর তুষপুর গ্রামের দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থী মোঃ ফয়সাল হোসেনের আবেদনের প্রেক্ষিতে মতলব দক্ষিণ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব ফাহমিদা হক স্যার আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করেছেন।

Model Hospital

২৮ ফেব্রুয়ারি সোমবার সকালে উপজেলা কার্যালয়ে অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর প্রতিনিধি দলসহ ফয়সাল হোসেনকে ১০,০০০/- (দশ হাজার) টাকা নগদ প্রদান করা হয়।এ সময় ইউএনও স্যার প্রতিনিধি দলের কথা শুনেন এবং আগামী দিনেও উপজেলা কার্যালয় তার পড়াশোনা নির্বিঘ্নে চালিয়ে যেতে সহযোগিতা করবেন বলে আশ্বস্ত করেন। এই সহযোগিতার ফলে ফয়সাল হোসেন গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের লক্ষ্যে ভর্তি নিশ্চিত সম্ভব হলো।

এ বিষয়ে অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর কার্যনির্বাহী পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়ালীউল্যাহ সরকার তৌহিদ বলেন, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর অফিসিয়াল ফেসবুক আইডির ম্যাসেঞ্জারে দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থী মোঃ ফয়সাল হোসেন অর্থাভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারছেনা এমনটা লিখেন স্থানীয় শিক্ষক জনাব মোঃ জসিমউদদীন পাটোয়ারী বিএসসি। এরপর অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর প্রতিনিধি দল ফয়সালের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করে বিস্তারিত জেনে তার পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়।

তার বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার স্বপ্ন যেন থেমে না যায় সেই আকুতি জানিয়ে অনলাইনে পোস্ট দেই। সংগঠন তার পাশে আছে তাকে আশ্বস্ত করি। এরই প্রেক্ষিতে উক্ত বিষয়ে মতলব দক্ষিণ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করি। তিনি গতকাল অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর যোগাযোগের প্রেক্ষাপটে ফয়সালকে আর্থিক সহযোগিতা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

মেধাবী শিক্ষার্থী ফয়সাল হোসেন তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করে বলেন, আমি চরম দুঃসময়ে অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠনকে পাশে পেয়েছি। তাদের প্রচেষ্টায় আজ মতলব দক্ষিণ ইউএনও স্যারের সহযোগিতা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে যাচ্ছি। আল্লাহর কাছে শুকরিয়া। আমি এজন্য ইউএনও স্যার, অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এবং জসিমউদদীন পাটোয়ারী বিএসসি স্যারকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। আশাকরি শিক্ষাজীবন শেষ করা অবধি তাদের সহযোগিতা পাব ইনশাল্লাহ। আগামী দিনে অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর সাথে যুক্ত হয়ে মানুষের জন্য কাজ করার ইচ্ছে রয়েছে। আমি আনন্দিত ও অভিভূত।

অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর কার্যনির্বাহী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শুভ চন্দ্র শীল বলেন, অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন ২০১৩ সালের ০১ জুন প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যাবধি স্বেচ্ছাসেবী, সামাজিক ও শিক্ষামূলক কাজে এভাবেই যুক্ত আছে। আমাদের দ্বারা কেউ যদি সামাণ্যতম উপকৃত হন তাতেই আমরা আনন্দিত ও গর্বিত। সবার সহযোগিতা নিয়ে এভাবে এগিয়ে যাব আমরা ইনশাল্লাহ।

এতে অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর প্রতিনিধি দলে ছিলেন সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমেদ হীরা, এ এস পলাশ ও অনুষ্ঠান ব্যবস্থাপনা সম্পাদক মাহামুদুল হাসান মুন্না সরকার। তারা এমন মহতী কাজে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে পেরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন।

অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর পক্ষ থেকে সহ প্রতিষ্ঠাতা ও কার্যনির্বাহী পরিষদের সভাপতি মুহাম্মদ আল-আমিন মিয়াজী মতলব দক্ষিণ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা স্যারকে অশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। আগামী দিনে উপজেলা প্রশাসন মানবিক কাজে আরও বেশি যুক্ত থাকবেন বলেও প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। এভাবেই অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন ‘বন্ধুত্বের ঐক্য গড়ে, সেবার সুড়ঙ্গ পথে হাঁটবে ইনশাল্লাহ।

ট্যাগস :

কনের পরিবারের ইচ্ছেপূরণে হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে এলেন লালমনিরহাটের মামুন

মতলবের মেধাবী শিক্ষার্থী ফয়সালকে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান

আপডেট সময় : ০৭:১০:৪১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২২

প্রতিনিধি : চাঁদপুরের শিক্ষিত তরুণ প্রজন্মের অরাজনৈতিক প্ল্যাটফর্ম ‘অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর অনুরোধে সাড়া দিয়ে মতলব দক্ষিণ উপজেলার ১নং নায়েরগাঁও উত্তর ইউনিয়ন এর তুষপুর গ্রামের দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থী মোঃ ফয়সাল হোসেনের আবেদনের প্রেক্ষিতে মতলব দক্ষিণ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব ফাহমিদা হক স্যার আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করেছেন।

Model Hospital

২৮ ফেব্রুয়ারি সোমবার সকালে উপজেলা কার্যালয়ে অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর প্রতিনিধি দলসহ ফয়সাল হোসেনকে ১০,০০০/- (দশ হাজার) টাকা নগদ প্রদান করা হয়।এ সময় ইউএনও স্যার প্রতিনিধি দলের কথা শুনেন এবং আগামী দিনেও উপজেলা কার্যালয় তার পড়াশোনা নির্বিঘ্নে চালিয়ে যেতে সহযোগিতা করবেন বলে আশ্বস্ত করেন। এই সহযোগিতার ফলে ফয়সাল হোসেন গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের লক্ষ্যে ভর্তি নিশ্চিত সম্ভব হলো।

এ বিষয়ে অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর কার্যনির্বাহী পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ওয়ালীউল্যাহ সরকার তৌহিদ বলেন, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর অফিসিয়াল ফেসবুক আইডির ম্যাসেঞ্জারে দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থী মোঃ ফয়সাল হোসেন অর্থাভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারছেনা এমনটা লিখেন স্থানীয় শিক্ষক জনাব মোঃ জসিমউদদীন পাটোয়ারী বিএসসি। এরপর অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর প্রতিনিধি দল ফয়সালের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করে বিস্তারিত জেনে তার পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়।

তার বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার স্বপ্ন যেন থেমে না যায় সেই আকুতি জানিয়ে অনলাইনে পোস্ট দেই। সংগঠন তার পাশে আছে তাকে আশ্বস্ত করি। এরই প্রেক্ষিতে উক্ত বিষয়ে মতলব দক্ষিণ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করি। তিনি গতকাল অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর যোগাযোগের প্রেক্ষাপটে ফয়সালকে আর্থিক সহযোগিতা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

মেধাবী শিক্ষার্থী ফয়সাল হোসেন তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করে বলেন, আমি চরম দুঃসময়ে অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠনকে পাশে পেয়েছি। তাদের প্রচেষ্টায় আজ মতলব দক্ষিণ ইউএনও স্যারের সহযোগিতা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে যাচ্ছি। আল্লাহর কাছে শুকরিয়া। আমি এজন্য ইউএনও স্যার, অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এবং জসিমউদদীন পাটোয়ারী বিএসসি স্যারকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। আশাকরি শিক্ষাজীবন শেষ করা অবধি তাদের সহযোগিতা পাব ইনশাল্লাহ। আগামী দিনে অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর সাথে যুক্ত হয়ে মানুষের জন্য কাজ করার ইচ্ছে রয়েছে। আমি আনন্দিত ও অভিভূত।

অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর কার্যনির্বাহী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শুভ চন্দ্র শীল বলেন, অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন ২০১৩ সালের ০১ জুন প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যাবধি স্বেচ্ছাসেবী, সামাজিক ও শিক্ষামূলক কাজে এভাবেই যুক্ত আছে। আমাদের দ্বারা কেউ যদি সামাণ্যতম উপকৃত হন তাতেই আমরা আনন্দিত ও গর্বিত। সবার সহযোগিতা নিয়ে এভাবে এগিয়ে যাব আমরা ইনশাল্লাহ।

এতে অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর প্রতিনিধি দলে ছিলেন সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমেদ হীরা, এ এস পলাশ ও অনুষ্ঠান ব্যবস্থাপনা সম্পাদক মাহামুদুল হাসান মুন্না সরকার। তারা এমন মহতী কাজে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে পেরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন।

অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন এর পক্ষ থেকে সহ প্রতিষ্ঠাতা ও কার্যনির্বাহী পরিষদের সভাপতি মুহাম্মদ আল-আমিন মিয়াজী মতলব দক্ষিণ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা স্যারকে অশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। আগামী দিনে উপজেলা প্রশাসন মানবিক কাজে আরও বেশি যুক্ত থাকবেন বলেও প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। এভাবেই অঙ্গীকার বন্ধু সংগঠন ‘বন্ধুত্বের ঐক্য গড়ে, সেবার সুড়ঙ্গ পথে হাঁটবে ইনশাল্লাহ।