ঢাকা ০৮:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মতলব উত্তরে মুগ ডাল চাষ বেড়েছে

মনিরুল ইসলাম মনির : মতলব উত্তর উপজেলায় এ বছর মুগডালের আবাদ বেড়েছে। অনুকূল আবহাওয়ায় ফলনও পাওয়া গেছে ভালো। এখন চলছে ডাল সংগ্রহের কাজ। অন্যান্য ফসলের তুলনায় খরচ কম হওয়ায় মুগডাল চাষে আগ্রহ বেড়েছে কৃষকের।

Model Hospital

মতলব উত্তরে এ বছর মাঠের পর মাঠে মুগডালের আবাদ হয়েছে। কৃষক জানান, গত কয়েক বছর পানির অভাবে পাট পঁচানো সম্ভব হচ্ছিলো না। এবার সেই পাটের জমিতেই তারা মুগডাল আবাদ করেছেন।

স্থানীয় কৃষকরা বলেন, এবার জমিতে মুগ ডালের ভালো ফলন হয়েছে। বেশি যত্ন নেয়া লাগেনি। সময়মতো বৃষ্টি হওয়ায় ও আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ডালের ফলন হয়েছে ভালো। এখন চলছে ফসল সংগ্রহের কাজ। পুরুষের পাশাপাশি মাঠে কাজ করছেন মহিলারাও।

বাজারে প্রতিমণ মুগ বিক্রি হচ্ছে পাঁচ থেকে ছয় হাজার টাকায়। আর প্রতি বিঘায় কৃষক মুগের ফলন পাচ্ছেন ১০ থেকে ১৫ মণ। কৃষকরা বলেন, ১২০ থেকে ১৩০ টাকা প্রতি কিলো হলে মণে পাওয়া যায় ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা। এতে আমাদের অনেক লাভ হয়। কৃষককে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিচ্ছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।

মতলব উত্তর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ সালাউদ্দিন বলেন, উপজেলায় এ বছর মুগ ডালের চাষ হয়েছে ১৫ হেক্টর জমিতে। মুগ ডাল যেমন আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য দরকার তেমনি মাটির উর্বরতা বৃদ্ধির জন্য মুগ ডাল চাষে আমরা কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করে যাচ্ছি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

ক্যাব চাঁদপুরের আয়োজনে বাজার পরিস্থিতি ও নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক মত বিনিময় সভা

মতলব উত্তরে মুগ ডাল চাষ বেড়েছে

আপডেট সময় : ০২:৫১:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ এপ্রিল ২০২২

মনিরুল ইসলাম মনির : মতলব উত্তর উপজেলায় এ বছর মুগডালের আবাদ বেড়েছে। অনুকূল আবহাওয়ায় ফলনও পাওয়া গেছে ভালো। এখন চলছে ডাল সংগ্রহের কাজ। অন্যান্য ফসলের তুলনায় খরচ কম হওয়ায় মুগডাল চাষে আগ্রহ বেড়েছে কৃষকের।

Model Hospital

মতলব উত্তরে এ বছর মাঠের পর মাঠে মুগডালের আবাদ হয়েছে। কৃষক জানান, গত কয়েক বছর পানির অভাবে পাট পঁচানো সম্ভব হচ্ছিলো না। এবার সেই পাটের জমিতেই তারা মুগডাল আবাদ করেছেন।

স্থানীয় কৃষকরা বলেন, এবার জমিতে মুগ ডালের ভালো ফলন হয়েছে। বেশি যত্ন নেয়া লাগেনি। সময়মতো বৃষ্টি হওয়ায় ও আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ডালের ফলন হয়েছে ভালো। এখন চলছে ফসল সংগ্রহের কাজ। পুরুষের পাশাপাশি মাঠে কাজ করছেন মহিলারাও।

বাজারে প্রতিমণ মুগ বিক্রি হচ্ছে পাঁচ থেকে ছয় হাজার টাকায়। আর প্রতি বিঘায় কৃষক মুগের ফলন পাচ্ছেন ১০ থেকে ১৫ মণ। কৃষকরা বলেন, ১২০ থেকে ১৩০ টাকা প্রতি কিলো হলে মণে পাওয়া যায় ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা। এতে আমাদের অনেক লাভ হয়। কৃষককে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিচ্ছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।

মতলব উত্তর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ সালাউদ্দিন বলেন, উপজেলায় এ বছর মুগ ডালের চাষ হয়েছে ১৫ হেক্টর জমিতে। মুগ ডাল যেমন আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য দরকার তেমনি মাটির উর্বরতা বৃদ্ধির জন্য মুগ ডাল চাষে আমরা কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করে যাচ্ছি।