ঢাকা ০৬:৩৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মা ইলিশ রক্ষায় সকলকে কাজ করতে হবে : জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ

সজীব খান : চাঁদপুরে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থপনা প্রকল্প এর আওতায় জেলা পর্যায়ে অবহিতকরণ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসক ও জেলা মৎস্য অধিদপ্তরের আয়োজনে মঙ্গলবার উপজেলা  পরিষদের অডিটোরিয়ামে জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশের সভাপতিত্বে অবহিতকণ সেসিমার অনষ্ঠিত হয়।
এ সময় জেলা প্রশাসক বলেন,মা ইলিশ রক্ষায় সকলকে কাজ করতে হবে, জনপ্রতিনিধিসহ প্রশাসনের সকলে মিলে এ কাজ করতে হবে, জেলেদের অযথা শাস্ত্রী দিতে চাইনা, জেলেরাই মাছ ধরে, তাদেরকে একটু সচেতন হতে হবে, জেলেদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ইলিশ সম্পদ সম্পর্কে জানাতে হবে। অভাশ্রমের সময় প্রশাসনকে সঠিক তত্ত্ব দিতে হবে। যাতে করে ম্যাজিস্ট্রেট গিয়ে সত্যতা পায়। মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান সুষ্ঠ ভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে জেলেরাই সচেতন হতে হবে।
তিনি বলেন প্রতিটি জেলে পল্লীতে যেতে হবে,তাদেরকে বুঝাতে হবে, জেলেদেরকে যুব উন্নয়ন থেকে প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হবে। যাতে জেলেরা অভাশ্রমের সময় বিভিন্ন কাজ করতে পারে। জেলারা যাতে আইনের প্রতি সম্মান থাকে,তাদেরকে সে বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।
তিনি বলেন, জেলেদের যে চাল দেওয়া হয়, তা  সঠিক সময়ে, সঠিক নিয়মে তাদের মাঝে বিতরন করতে হবে। প্রতিজন জেলেকে যাতে নিদিষ্ট পরিমান চাল পায়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।একটা চাল ও তাদেরকে কম দেওয়া যাবেনা।
জেলেদের তালিকা সঠিক ভাবে করতে হবে,  সকলে মিলে সমন্বয় করে সঠিক তথ্য দিয়ে জেলে তালিকা করতে হবে, যারা যারা মারা গেছে,যারা বিদেশ গেছে, যারা পেশা পরিবর্তন করছে তাদেরকে চিহৃত করে সঠিক ভাবে তালিকা বের করতে হবে। এ বারের অভিযান যাতে সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন হয় সেদিকে আমাদের লক্ষ্যে রেখে কাজ করতে হবে।
তিনি বলেন, মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানের সময় বহিরাগত জেলেরা মাছ স্বীকার করতে আসলে, সাথে সাথে প্রশাসনকে অবগত করতে হবে। তাদেরকে চিহৃত করতে হবে। অভিযানের সময় স্ব স্ব ডিপার্টমেন্ট তাদের দায়িত্ব সঠিক ভাবে পালন করতে হবে। মৎস্য পল্লী, জেলে পল্লীতে বেশি বেশি প্রচার করতে হবে।
মা ইলিশ রক্ষা করতে হবে, নতুবা আমরা ইলিশ পাবোনা, ইলিশ আমাদের একটা জাতিয় সম্পদ, সমন্বয় করে ইলিশ রক্ষা করতে হবে।
উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মাহবুব রশিদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে  স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ গোলাম মেহেদী হাসান,  ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থপনা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক জিয়া হায়দার চৌধুরী,
সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, নৌ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন সিকদার, চাঁদপুর কোস্টগার্ডের স্টেশান কমান্ডার লেফটেনেন্ট মাসহাদ উদ্দিন নাহিয়ান,চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল পাটওয়ারী, ইলিশের উপর ছাড়া অবৃত্তি করেন কবি ও ছাড়াকার ডাঃ পীযুষ কান্তি ভুড়ুয়া, ইলিশের উপর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন  ইলিশ গভেষনা ইনস্টিটিউটের সহকারী পরিচালক সামছুল আলম পাটওয়ারী, কান্ট্রি ফিসিং বোর্ড মালিক সমিতির সভাপতি শাহ আলম মল্লীক, চাঁদপুর কেন্দ্রীয় মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতি তসলিম বেপারী, মালেক দেওয়ান প্রমুখ।
এ সময় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আইউব আলী বেপারি, রাজরাজেশ্বর ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী বেপারীসহ প্রশাসনের বিভিন্ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা, বিভিন্ন ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি, মৎস্য জীবি সমিতি নের্তৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠনে কোরআন পাঠ করেন উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মুফতি কেফায়েত উল্ল্যাহ, গীত পাঠ করেন মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ্ত।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

মা ইলিশ রক্ষায় সকলকে কাজ করতে হবে : জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ

আপডেট সময় : ০২:২০:৪৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২১
সজীব খান : চাঁদপুরে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থপনা প্রকল্প এর আওতায় জেলা পর্যায়ে অবহিতকরণ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসক ও জেলা মৎস্য অধিদপ্তরের আয়োজনে মঙ্গলবার উপজেলা  পরিষদের অডিটোরিয়ামে জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশের সভাপতিত্বে অবহিতকণ সেসিমার অনষ্ঠিত হয়।
এ সময় জেলা প্রশাসক বলেন,মা ইলিশ রক্ষায় সকলকে কাজ করতে হবে, জনপ্রতিনিধিসহ প্রশাসনের সকলে মিলে এ কাজ করতে হবে, জেলেদের অযথা শাস্ত্রী দিতে চাইনা, জেলেরাই মাছ ধরে, তাদেরকে একটু সচেতন হতে হবে, জেলেদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ইলিশ সম্পদ সম্পর্কে জানাতে হবে। অভাশ্রমের সময় প্রশাসনকে সঠিক তত্ত্ব দিতে হবে। যাতে করে ম্যাজিস্ট্রেট গিয়ে সত্যতা পায়। মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান সুষ্ঠ ভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে জেলেরাই সচেতন হতে হবে।
তিনি বলেন প্রতিটি জেলে পল্লীতে যেতে হবে,তাদেরকে বুঝাতে হবে, জেলেদেরকে যুব উন্নয়ন থেকে প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হবে। যাতে জেলেরা অভাশ্রমের সময় বিভিন্ন কাজ করতে পারে। জেলারা যাতে আইনের প্রতি সম্মান থাকে,তাদেরকে সে বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।
তিনি বলেন, জেলেদের যে চাল দেওয়া হয়, তা  সঠিক সময়ে, সঠিক নিয়মে তাদের মাঝে বিতরন করতে হবে। প্রতিজন জেলেকে যাতে নিদিষ্ট পরিমান চাল পায়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।একটা চাল ও তাদেরকে কম দেওয়া যাবেনা।
জেলেদের তালিকা সঠিক ভাবে করতে হবে,  সকলে মিলে সমন্বয় করে সঠিক তথ্য দিয়ে জেলে তালিকা করতে হবে, যারা যারা মারা গেছে,যারা বিদেশ গেছে, যারা পেশা পরিবর্তন করছে তাদেরকে চিহৃত করে সঠিক ভাবে তালিকা বের করতে হবে। এ বারের অভিযান যাতে সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন হয় সেদিকে আমাদের লক্ষ্যে রেখে কাজ করতে হবে।
তিনি বলেন, মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানের সময় বহিরাগত জেলেরা মাছ স্বীকার করতে আসলে, সাথে সাথে প্রশাসনকে অবগত করতে হবে। তাদেরকে চিহৃত করতে হবে। অভিযানের সময় স্ব স্ব ডিপার্টমেন্ট তাদের দায়িত্ব সঠিক ভাবে পালন করতে হবে। মৎস্য পল্লী, জেলে পল্লীতে বেশি বেশি প্রচার করতে হবে।
মা ইলিশ রক্ষা করতে হবে, নতুবা আমরা ইলিশ পাবোনা, ইলিশ আমাদের একটা জাতিয় সম্পদ, সমন্বয় করে ইলিশ রক্ষা করতে হবে।
উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মাহবুব রশিদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে  স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ গোলাম মেহেদী হাসান,  ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থপনা প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক জিয়া হায়দার চৌধুরী,
সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, নৌ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলায়েত হোসেন সিকদার, চাঁদপুর কোস্টগার্ডের স্টেশান কমান্ডার লেফটেনেন্ট মাসহাদ উদ্দিন নাহিয়ান,চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল পাটওয়ারী, ইলিশের উপর ছাড়া অবৃত্তি করেন কবি ও ছাড়াকার ডাঃ পীযুষ কান্তি ভুড়ুয়া, ইলিশের উপর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন  ইলিশ গভেষনা ইনস্টিটিউটের সহকারী পরিচালক সামছুল আলম পাটওয়ারী, কান্ট্রি ফিসিং বোর্ড মালিক সমিতির সভাপতি শাহ আলম মল্লীক, চাঁদপুর কেন্দ্রীয় মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতি তসলিম বেপারী, মালেক দেওয়ান প্রমুখ।
এ সময় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আইউব আলী বেপারি, রাজরাজেশ্বর ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী বেপারীসহ প্রশাসনের বিভিন্ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা, বিভিন্ন ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি, মৎস্য জীবি সমিতি নের্তৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠনে কোরআন পাঠ করেন উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মুফতি কেফায়েত উল্ল্যাহ, গীত পাঠ করেন মৎস্য কর্মকর্তা সুদীপ্ত।