ঢাকা ১২:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুর শহরের প্রফেসর পাড়ায় কোদাল দিয়ে কুপিয়ে নারীকে রক্তাক্ত জখম

চাঁদপুর শহরের প্রফেসর পাড়ায় মাটি কাটার কোদাল দিয়ে কুপিয়ে  মাজেদা খানম (৫০) নামের এক বিধবা বৃদ্ধা নারীকে রক্তাক্ত জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ওই নারী গুরুতর আহত হয়ে বর্তমানে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ১৭ সেপ্টেম্বর রোববার বেলা সাড়ে ১২ টায় শহরের প্রফেসর পাড়া মোল্লা বাড়ি রোডস্থ রহিম খার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহত মাজেদা খানম ওই বাড়ির মৃত গিয়াস উদ্দিনের স্ত্রী ও রহিম খানের মেয়ে।
আহত মাজেদা খানম ও তার স্বজনরা জানান, পার্শ্ববর্তী মোল্লা বাড়ির তাহের মোল্লার ছেলে শাহাদাত হোসেন মোল্লা ও বাবু মোল্লাসহ অজ্ঞত আরো বেশ কয়েকজন মিলে তার উপর এ হামলা চালায়।
তারা জানান, তাহের মোল্লাদের সাথে তাদের জমি জমা বিষয়ে নিয়ে কোন সম্পর্ক নেই। তবুও তারা ২০১৯ সালে গায়ে পড়ে জমির বিরোধ সৃষ্টি করে তাদেরকে মারধর করেছেন। সে মামলাও বর্তমানে আদালতে চলমান রয়েছে। সেই পূর্ব শত্রুতার কারনেই তার ওপর এ হামলা চালানো হয়েছে বলে তাদের অভিযোগ।
ঘটনার দিন সকাল থেকে আহত মাজেদা খানম রাজ মিস্ত্রী দিয়ে তার বাসার রিপায়ারিং কাজ করাচ্ছেন। তিনি দাঁড়িয়ে সে আস্তরের কাজের তদারকি করছিলেন। এমন সময় হঠাৎ কিছু বুঝে উঠার আগেই পার্শ্ববর্তী বাড়ির তাহের মোল্লা,তার ছেলে শাহাদাত মোল্লা ও বাবু মোল্লা সহ অজ্ঞত আরো বেশ কয়েকজন মিলে চাঁদা দাবি করে কাজ বন্ধ করার কথা বলেই মাটি কাটার কোদাল দিয়ে মাজেদা খানমের মাথায় কোপ দিয়ে রক্তাক্ত জখম করেন। পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করান।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

স্কুলের শ্রেণিকক্ষে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় ছাত্রীসহ প্রধান শিক্ষক আটক

চাঁদপুর শহরের প্রফেসর পাড়ায় কোদাল দিয়ে কুপিয়ে নারীকে রক্তাক্ত জখম

আপডেট সময় : ১০:৪৫:১১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩
চাঁদপুর শহরের প্রফেসর পাড়ায় মাটি কাটার কোদাল দিয়ে কুপিয়ে  মাজেদা খানম (৫০) নামের এক বিধবা বৃদ্ধা নারীকে রক্তাক্ত জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ওই নারী গুরুতর আহত হয়ে বর্তমানে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ১৭ সেপ্টেম্বর রোববার বেলা সাড়ে ১২ টায় শহরের প্রফেসর পাড়া মোল্লা বাড়ি রোডস্থ রহিম খার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহত মাজেদা খানম ওই বাড়ির মৃত গিয়াস উদ্দিনের স্ত্রী ও রহিম খানের মেয়ে।
আহত মাজেদা খানম ও তার স্বজনরা জানান, পার্শ্ববর্তী মোল্লা বাড়ির তাহের মোল্লার ছেলে শাহাদাত হোসেন মোল্লা ও বাবু মোল্লাসহ অজ্ঞত আরো বেশ কয়েকজন মিলে তার উপর এ হামলা চালায়।
তারা জানান, তাহের মোল্লাদের সাথে তাদের জমি জমা বিষয়ে নিয়ে কোন সম্পর্ক নেই। তবুও তারা ২০১৯ সালে গায়ে পড়ে জমির বিরোধ সৃষ্টি করে তাদেরকে মারধর করেছেন। সে মামলাও বর্তমানে আদালতে চলমান রয়েছে। সেই পূর্ব শত্রুতার কারনেই তার ওপর এ হামলা চালানো হয়েছে বলে তাদের অভিযোগ।
ঘটনার দিন সকাল থেকে আহত মাজেদা খানম রাজ মিস্ত্রী দিয়ে তার বাসার রিপায়ারিং কাজ করাচ্ছেন। তিনি দাঁড়িয়ে সে আস্তরের কাজের তদারকি করছিলেন। এমন সময় হঠাৎ কিছু বুঝে উঠার আগেই পার্শ্ববর্তী বাড়ির তাহের মোল্লা,তার ছেলে শাহাদাত মোল্লা ও বাবু মোল্লা সহ অজ্ঞত আরো বেশ কয়েকজন মিলে চাঁদা দাবি করে কাজ বন্ধ করার কথা বলেই মাটি কাটার কোদাল দিয়ে মাজেদা খানমের মাথায় কোপ দিয়ে রক্তাক্ত জখম করেন। পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করান।