ঢাকা ০৪:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মতলব উত্তরের মেয়ে ফরহানা কবির দিনা এমবিবিএস পাশ

মতলব উত্তর উপজেলাধীন ফরাজীকান্দি ইউনিয়ন সরদারকান্দি গ্রামের মেয়ে ফারহানা কবির দিনা কৃতিত্বের সাথে তায়রুননেছা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করেন।

Model Hospital

তিনি ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি হয়ে এমবিবিএস পাশ করেন। তার এমবিবিএস ডাক্তারি পাশ করার খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকার মানুষ খুশিতে ফেটে পড়েন। ফারহানা কবির দিনা ২০১৪ সালে এসএসসি ও ২০১৬ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় এমইএইচ আরিফ কলেজ থেকে কৃতিত্বের সহিত পাশ করেন।

তার বাবা মো. কবির হোসেন প্রধান ব্যবসায়ী। মেয়ের এমন কৃতিত্বে তিনি বলেন, আমার মেয়ে ফারহানা কবির দিনা একজন ডাক্তার হিসেবে দেশ ও এলাকার সেবায় নিয়োজিত থাকবে। গরীব ও দুঃখী মানুষের চিকিৎসা করবে। আমার পরিবার সবসময় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে আমার মেয়ে ও সেটা করবে। আমি আমার মেয়ের জন্য দোয়া প্রার্থনা করছি।

সদ্য এমবিএস করা ফারহানা কবির দিনা বলেন, আল্লাহর শুকরিয়া আমি ফাইনাল পরীক্ষার ফলাফলে উত্তীর্ণ হয়েছি। তবে মানুষ চাইলে সবকিছুই সম্ভব।

জীবনের কঠিন সময়গুলোতে যারা তাকে সাহস যুগিয়েছেন, পাশে থেকেছেন সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এই অর্জনের আমার বাবা-মা আতœীয় স্বজনদের। উনাদের দোয়ায় আমি ডাক্তার হয়েছি।

অনুপ্রেরণাটা আসলে অনেক বড় বিষয় বিশেষ করে বাবা-মা’র অনুপ্রেরণা ফল আজ এই কৃতিত্ব অর্জন। আমি দেশের অসহায় মানুষের চিকিৎসাসেবা দিতে চাই। তার জন্য সকলের দোয়া কামনা করছি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

কি হবে আর ছবি তুলে!

মতলব উত্তরের মেয়ে ফরহানা কবির দিনা এমবিবিএস পাশ

আপডেট সময় : ০৮:২৬:৫২ অপরাহ্ন, সোমবার, ৯ অক্টোবর ২০২৩

মতলব উত্তর উপজেলাধীন ফরাজীকান্দি ইউনিয়ন সরদারকান্দি গ্রামের মেয়ে ফারহানা কবির দিনা কৃতিত্বের সাথে তায়রুননেছা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করেন।

Model Hospital

তিনি ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি হয়ে এমবিবিএস পাশ করেন। তার এমবিবিএস ডাক্তারি পাশ করার খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকার মানুষ খুশিতে ফেটে পড়েন। ফারহানা কবির দিনা ২০১৪ সালে এসএসসি ও ২০১৬ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় এমইএইচ আরিফ কলেজ থেকে কৃতিত্বের সহিত পাশ করেন।

তার বাবা মো. কবির হোসেন প্রধান ব্যবসায়ী। মেয়ের এমন কৃতিত্বে তিনি বলেন, আমার মেয়ে ফারহানা কবির দিনা একজন ডাক্তার হিসেবে দেশ ও এলাকার সেবায় নিয়োজিত থাকবে। গরীব ও দুঃখী মানুষের চিকিৎসা করবে। আমার পরিবার সবসময় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে আমার মেয়ে ও সেটা করবে। আমি আমার মেয়ের জন্য দোয়া প্রার্থনা করছি।

সদ্য এমবিএস করা ফারহানা কবির দিনা বলেন, আল্লাহর শুকরিয়া আমি ফাইনাল পরীক্ষার ফলাফলে উত্তীর্ণ হয়েছি। তবে মানুষ চাইলে সবকিছুই সম্ভব।

জীবনের কঠিন সময়গুলোতে যারা তাকে সাহস যুগিয়েছেন, পাশে থেকেছেন সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এই অর্জনের আমার বাবা-মা আতœীয় স্বজনদের। উনাদের দোয়ায় আমি ডাক্তার হয়েছি।

অনুপ্রেরণাটা আসলে অনেক বড় বিষয় বিশেষ করে বাবা-মা’র অনুপ্রেরণা ফল আজ এই কৃতিত্ব অর্জন। আমি দেশের অসহায় মানুষের চিকিৎসাসেবা দিতে চাই। তার জন্য সকলের দোয়া কামনা করছি।